আপডেট ১০ মিনিট ৪ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ৩০ আশ্বিন, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৫ সফর, ১৪৪১

খুলনা মাগুরায় বিয়ের দাবিতে বিষের বোতল নিয়ে যুবকের বাড়িতে তরুণীর অনশন

মাগুরায় বিয়ের দাবিতে বিষের বোতল নিয়ে যুবকের বাড়িতে তরুণীর অনশন

মাহামুদুন নবী,নিরাপদ নিউজ: মাগুরা মহম্মদপুরে বিয়ের দাবিতে বিষের বোতল হাতে নিয়ে রফিক মল্লিক (২৬) নামের এক যুবকের বাড়িতে অনশনে বসেছেন এক তরুণী (২৫)। তরুণী রফিককে তার প্রেমিক বলে দাবি করেছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার যশপুর মালো পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে মেয়েটি এ রিপোর্ট লেখা পর্যুন্ত এখনও ওই যুবকের বাড়িতেই রয়েছে বলে জানা যায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে সাদেক মল্লিকের ছেলে প্রেমিক রফিকুল ইসলাম (শয়ের মল্লিক) এর বাড়িতে উপজেলার মৌশা উত্তরপাড়া এলাকার এক তরুণী বিয়ের দাবিতে বিষের বোতল হাতে নিয়ে অনশন করছে। মেয়েটিকে একা পেয়ে ছেলের পরিবারের লোকজন তার শরীরে আঘাত ও করেছে বলে মেয়েটির পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠেছে।

অনশনরত মেয়েটি বলেন, “রফিকুল ইসলামের সাথে তার ১৩ বছরের সম্পর্ক। তার যখন অন্য যায়গায় বিয়ে হয়ে যায় তখনও সে তাকে বিবাহের প্রস্তাব দেয়। সে তার স্বামীর বাড়িতে যেয়ে কিছু কুৎসা রটায়। পরে বাধ্য হয়ে রফিকুলের প্ররোচনায় পড়ে স্বামীকে তালাক দেয়। এরপর তাকে বিয়ের কথা বলে ঢাকায় নিয়ে গিয়ে একটি পোশাক কারখানায় চাকুরী দেয় এবং বিয়ে ছাড়ায় একই সাথে থাকতে শুরু করে রফিকুল।

কিছুদিন পরে হঠাৎ ছেলেটি তাকে না বলে বাসা ছেড়ে দিয়ে গোপনে অন্যত্র বাসা ভাড়া করে থাকতে শুরু করলে মেয়েটির মনে খটকা লাগতে শুরু করে এবং এক পর্যায়ে ছেলেটি মেয়েটির সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

ফোনে কথা বলতে গেলে সে ব্যস্ত বলে প্রায়ই তার ফোন কেটে দেয়। এছাড়া বিয়ের কথা বললে ছেলেটি পুরাপুরি যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। নিরুপায় হয়েই বিয়ের দাবি নিয়ে বিষের বোতল হাতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিতে বাধ্য হয়েছে বলে মেয়েটি আরো জানান। ওই ছেলের সাথে তার বিয়ে না দিলে মেয়েটি আত্মহত্যা করবে বলে হুমকি প্রদান করেন পরিবারের লোকজনদের।

প্রেমিক রফিকুলের সাথে যোগাযোগ করলে সে জানান, “পড়ালেখার সুবাদে ওই মেয়ের সাথে আমার একটি ভালো বন্ধু হিসেবে সম্পর্ক ছিলো। অনশন করে আমার বিরুদ্ধে একটি ষড়যন্ত্র করছে।”

বালিদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম ফুল মিয়া বলেন, “ এ ঘটনায় ছেলের বাড়িতে গিয়েছিলাম। দু’পক্ষকে নিয়ে আমি সমঝোতার চেষ্টা করছি”। এর আগে একই দাবিতে অভিযুক্ত রফিকের বাড়িতে গিয়ে আরেক তরুণীর উঠেছিল বলে তিনি জানান। সেটিও গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে সে বিষয়টি মিমাংসা করে দেয়া হয়েছিল।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)