ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট জুলাই ১৩, ২০১৯

ঢাকা রবিবার, ৩ ভাদ্র, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৬ জিলহজ্জ, ১৪৪০

জীবনযাপন, বরিশাল মাথায় ক্ষত নিয়ে অসহ্য যন্ত্রনায় মৃত্যুর প্রহর গুনছেন বৃদ্ধ নারী!

মাথায় ক্ষত নিয়ে অসহ্য যন্ত্রনায় মৃত্যুর প্রহর গুনছেন বৃদ্ধ নারী!

রহিম রেজা,নিরাপদ নিউজ: যে বৃদ্ধ বয়সে ছোট শিশুদের মত স্বজনদের আদরে ঘরে বসে সৃষ্টিকর্তার নৈকট্য লাভের আশায় হাতে তজবী নিয়ে প্রার্থনা করার কথা সেই বৃদ্ধ বয়সে মাথায় ক্ষত (পচন) নিয়ে অসহ্য যন্ত্রনায় রাস্তার পাশে মৃত্যুর প্রহর গুনছেন অজ্ঞাত এক বৃদ্ধ নারী (৬০)। নিজের পরিচয়ও বলতে না পারা মানসিক ভারসাম্যহীন এ বৃদ্ধ নারী রাস্তার পাশে বসেই রোদে পুড়ছেন এবং বৃষ্টিতে ভীজে কোনমতে বেঁচে আছেন তিনি। এলাকার কয়েকজন মিলে ওই নারীকে রোদ বৃষ্টির হাত থেকে রক্ষার বৃথা চেষ্টায় গাছের কয়েকটি ডাল, এক টুকরো পলিথিন ইট বিছিয়ে রাস্তার পাশেই ছাপড়া দিয়ে রেখেছেন। মাঝে মধ্যে তাকে দুয়েক বেলা খেতেও দেয়া হয়। এমনই হৃদয় বিদারক ঘটনাটি ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার পুটিয়াখালি গ্রামের মীরেরহাট বাজারের দক্ষিণ প্রান্ত এলাকার। বাজার এলাকার কয়েকজন যুবক মিলে ওই নারীর ক্ষত মাথায় যাতে মাছি না পড়ে এ জন্য ঔষধ (ফ্যানাইল) দিয়েছেন। স্থানীয় দিনমজুর হারুন হোসেন মাঝে মধ্যে তাকে ভাত খাওয়ার জন্য দিলেও তা অনেক সময় কুকুরে খেয়ে ফেলে। ময়লা ত্যাগ করে পরিবেশ নষ্ট করায় তাকে নির্জন ওইস্থানে রাখা হয়েছে। হারুন হোসেন জানান, কয়েক মাস ধরে মানুসিক ভারসাম্যহীন এ নারী শারীরিকভাবে সুস্থ্য অবস্থায় আসেন। কিন্তু কয়েক মাস এভাবে অযত্নে অবহেলায় থাকার কারনে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে পচন ধরে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়েছে।

নোংরা অবস্থায় থাকায় কেহই তার কাছে যেতেও চায় না। রাজাপুরের পুটিয়াখালি মীরের হাট কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আল আমিন হোসেন জানান, ওই নারী তার পরিচয় বলতে পারে না। দ্রুত যদি এ নারীকে উদ্ধার করে চিকিৎসা না করানো যায়, তবে যে কোন সময় এভাবে ধুকে ধুকে মৃত্যুবরণ করবে। প্রশাসনের উচিত তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসা করানো এবং তার পরিচয় খুজে বের করে স্বজনদের কাছে পৌঁছে দেয়া। জানতে চাইলে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোঃ মোজাম্মেল হোসেন জানান, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মাধ্যমে যদি কোন অসহায় ব্যক্তির চিকিৎসা সহায়তার জন্য আবেদন করা হয়, সে ক্ষেত্রে চিকিৎসা সহায়তা দেয়া হয়। কিন্তু উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার জন্য কোন সংস্থা বা সরকারিভাবে উপজেলা পর্যায়ে কোন প্রতিষ্ঠান নেই।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)