ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৩৪ মিনিট ৪ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ , বর্ষাকাল, ১৬ জিলক্বদ, ১৪৪০

সংগঠন সংবাদ মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ীদের স্মারকলিপি প্রদান

মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ীদের স্মারকলিপি প্রদান

নিরাপদ নিউজ: আজ ১৪ মে বাংলাদেশ মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ী এসোসিয়েশনের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলুর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন দাবী আদায়ের লক্ষ্যে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, বিটিআরসি ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি প্রদান করেন। আধুনিক বিশ্বয়ানের যুগে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের লক্ষ্যে এদেশে ৬টি মোবাইল কোম্পানি সৃষ্টি হয়েছে। মোবাইল কোম্পানিগুলির সেবার মানকে জনগনের কাছে পৌছে দিতে বাংলাদেশে প্রায় ৭ লক্ষ মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ী সৃষ্টি হযেছে। প্রতোকটি মোবাইল কোম্পানি ১ যুুগের বেশি সময় ধরে প্রতি হাজারে ২৭/- টাকা কমিশন দিয়ে আসছে, যা রীতিমতো অমানবিক। একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী প্রতিদিন গড়ে ২ থেকে ৩ হাজার টাকা রিচার্জ করে থাকেন অর্থাৎ একজন ব্যবসায়ী গড়ে প্রতিদিন ৮১/-টাকা আয় করেন। বর্তমানে দ্রব্য মূল্যের উর্ধ্বগতি, দোকান ভাড়া বৃদ্ধি ,দোকানের জামানত বৃদ্ধি সহ জীবন যাত্রার মানের সাথে তাল মিলিয়ে জীবিকা নির্বাহ করা ব্যবসায়ীদের পক্ষে অসম্ভব হযে পড়েছে। এক যুগের বেশি সময় ধরে রিচার্জের কমিশন বৃদ্ধি না করে এদেশের সহজ সরল মানুষকে ফাঁদে ফেলে নিত্য নতুন আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপন দিয়ে এদেশ থেকে কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছে মোবাইল কোম্পানিগুলো । অথচ যাদের হাত দিযে শত শত কোটি টাকা আয় করছে তাদের ব্যাপারে কোম্পানিগুলোর কোন মাথা ব্যাথা নেই । ব্যবসায়ীদের স্বার্থে সুষ্ঠু নীতিমালা প্রণয়ন করার দাবী। নিম্নে ব্যবসায়ীদের দাবীগুলো তুলে ধরা হয়:
১. প্রতি হাজারে কমিশন ২৭/- টাকার পরিবর্তে ১০০/- টাকা দিতে হবে। ২. ভূল নাম্বারে রিচার্জকৃত টাকা/মোবাইল ব্যাংকিংয়ের টাকা চলে গেলে তা ফেরতের ব্যবস্থা করতে হবে। ৩. ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টারে মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ী এসোসিয়েশনের প্রতিনিধিত্ব রাখতে হবে। ৪. রিচার্জের সিমে কোম্পানি কর্তৃক বাধ্যতামূলক ব্যালেন্স রাখার নিয়ম প্রত্যাহার করতে হবে। ৫. মোবাইল রিচার্জ/মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্ট সিমগুলো কোম্পানি কর্তৃক বীমার আওতায় আনতে হবে। যাতে কোন ব্যবসায়ী অসুস্থ হয়ে পড়লে বিমার টাকা দিয়ে তাঁর চিকিৎসা ও সংসার চালাতে পারে। ৬. নিবন্ধিত দোকান বা প্রতিষ্ঠান ছাড়া কোন ভ্রাম্যমান ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে রিচার্জের সিম/মোবাইল ব্যাংকিংয়ের এজেন্ট সীম না দেওয়া। ৭. এসোসিয়েশনের মাধ্যমে রিচার্জের/মোবাইল ব্যাংকিংয়ের এজেন্ট সিম প্রদান করা। ৮. মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলো কর্তৃক মোবাইল ফোন সিম/রিচার্জ সম্পর্কে কোন পদক্ষেপ নিতে চাইলে অবশ্যই তা মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসায়ী এসোসিয়েশনকে অবহিত করা। ৯. ব্যবসার ধরণ: মোবাইল ফোন রিচার্জ ব্যবসা/মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবসা (ট্রেড লাইসেন্স) ফি সর্বনিম্ন করতে হবে। যেমন : সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড-৩০০, ইউনিয়ন-১০০, পৌরসভা-১৫০ টাকা করার জন্য প্রস্তাব করছি। যাতে প্রতিটি ব্যবসায়ী ট্রেড লাইসেন্স করতে আগ্রহী হয়। এতে সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে কোটি কোটি টাকা। ১০. মোবাইল ফোন রিচার্জ/মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবসায়ীদেরকে সহজ শর্তে ব্যাংক লোনের ব্যবস্থা করতে হবে। ১১. রিচার্জ বা মোবাইল ব্যাংকিং এর জন্য বিনামূল্যে মোবাইল সেট প্রদান করা।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)