ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৩ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ১১ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , গ্রীষ্মকাল, ৯ই শাবান, ১৪৩৯ হিজরী

অর্থনীতি, চট্টগ্রাম রাজস্ব হালখাতায় চট্টগ্রামে আদায় দুইশ কোটি টাকা

রাজস্ব হালখাতায় চট্টগ্রামে আদায় দুইশ কোটি টাকা

রাজস্ব হালখাতায় চট্টগ্রামে আদায় দুইশ কোটি টাকা

শফিক আহমেদ সাজীব, নিরাপদনিউজ :  প্রথমবারের মতো গতকাল বৃহস্পতিবার আয়োজিত রাজস্ব হালখাতা অনুষ্ঠানে চট্টগ্রামের সকল শুল্ক স্টেশনে দুই শতাধিক কোটি টাকার রাজস্ব আয় হয়েছে। এরমধ্যে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসে ১৭৮ কোটি টাকা এবং চার কর অঞ্চলে ২৩ কোটি ৩ লাখ টাকা আয় হয়েছে। উৎসবমুখর পরিবেশে গতকাল এই হালখাতার আয়োজন করা হয়।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) নির্দেশনা অনুযায়ী চট্টগ্রাম কাস্টমস, কর বিভাগ, বন্ড কমিশনারেটে ‘রাজস্ব হালখাতা’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করলেও প্রস্তুতি অভাবে চট্টগ্রাম কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট হালখাতার আয়োজন করতে পারেনি। প্রতিষ্ঠানটি আজ শুক্রবার অনুষ্ঠান আয়োজন করার কথা রয়েছে।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের সহকারী কমিশনার কামরুল ইসলাম জানান, রাজস্ব হালখাতা উপলক্ষে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ১৭৮ কোটি টাকা পরিশোধ করেছেন। এই রাজস্বের অধিকাংশই আয় হয়েছে রাষ্ট্রীয় জালানি তেল বিপণন কোম্পানি পদ্মা, মেঘনা, যমুনা অয়েল কোম্পানি থেকে।

রাজস্ব হালখাতা উপলক্ষ্যে চট্টগ্রাম কর বিভাগে বড় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। সকাল ১০টায় নগরীর সরকারী কার্যভবন-১ এ বর্নাঢ্য আয়োজনের উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

কর অঞ্চল-১ এর অতিরিক্ত কমিশনার বজলুল কবির ভূঁইয়া জানান, চট্টগ্রামের চারটি কর অঞ্চলে মোট ২৩ কোটি ৩ লাখ টাকার রাজস্ব আয় হয়েছে। এরমধ্যে সিজিএ বিল্ডিংস্থ কর অফিসগুলোতে ১৮ কোটি ৩ লাখ এবং বিভিন্ন সার্কেল থেকে ৫ কোটি টাকা আদায় হয়েছে। কর অঞ্চলের সকল অফিসেই আমরা মিস্টিমুখের ব্যবস্থা রেখেছিলাম, বলেন অতিরিক্ত কমিশনার বজলুল কবির ভুঁইয়া। চট্টগ্রাম বন্ড কমিশনারেটে সরাসরি রাজস্ব জমা না হলেও বন্ড কার্যক্রমের সাথে যুক্ত ব্যবসায়ীরা নগরীর ওয়াসা এলাকার কার্যালয়ে এসে বিভিন্ন ধরনের সেবা নিয়েছেন। তাদেরকে মিষ্টিমুখ করানো হয়েছে।

এদিকে, প্রয়োজনীয় প্রস্তুতির অভাবে চট্টগ্রাম কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কর্তৃপক্ষ গতকাল হালখাতার আয়োজন করতে পারেননি। আজ শুক্রবার প্রতিষ্ঠানটি হালখাতা অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে বলে জানা গেছে।
উল্লেখ্য, গ্রামবাংলার চিরায়ত হালখাতা উৎসবের মতো করে এখানেও গদিতে ক্যাশ বাক্স নিয়ে বসে থাকতে দেখা গেছে কর কর্মচারীদের। সকলের পরনে ছিল পাঞ্জাবী আর হাতে ছিল হালনাগাদ নতুন লালখাতা। আগত করদাতাদের বরণ করা হয় মিষ্টিমুখ করিয়ে।

অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণ সাজানো হয়েছে নানা ধরনের বাঙ্গালী অনুষঙ্গ তাল পাতার পাখা, মালসা, বাঁশের বেড়া, কুলা, টুকরী, ধামা আর কুঁড়েঘর দিয়ে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)