ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৪ মিনিট ১৯ সেকেন্ড

ঢাকা রবিবার, ৯ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ , গ্রীষ্মকাল, ৭ই শাবান, ১৪৩৯ হিজরী

অপরাধ, রাজশাহী রাণীনগরে রাতে আঁধারে পথরোধ করে পিতা-পুত্রকে পিটিয়ে জখম

রাণীনগরে রাতে আঁধারে পথরোধ করে পিতা-পুত্রকে পিটিয়ে জখম

রাণীনগরে রাতে আঁধারে পথরোধ করে পিতা-পুত্রকে পিটিয়ে জখম

সাইদুজ্জামান সাগর,নিরাপদ নিউজ : নওগাঁর রাণীনগরে রাতে আঁধারে দূর্বৃত্তরা দেশীয় অস্ত্র ও রড দিয়ে পিতা-পুত্রকে বেধর মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করেছে। ঘটনাস্থল থেকে ওই রাতেই স্থানীয়রা গুরুত্বর অবস্থায় উদ্ধার করে রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেয়। পিতা-পুত্রের অবস্থার অবনতি হলে দুই জনকেই উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। চিকিৎসকরা বলেছেন, দুই রোগীরই শরীরে গুরুত্বর আঘাতসহ পা ভেঙ্গে গেছে। জানা গেছে, উপজেলার ৪নং পারইল ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য একেএম আতোয়ার রহমান ভোমর ও তার ছেলে ইবনে ফরাদ প্রিন্স শনিবার এলাকার বানিয়াপাড়া গ্রামে একটি ওয়াজ মাহফিলে যায়। সেখান থেকে রাত অনুমান সাড়ে ১০ টার দিকে মটরসাইকেল যোগে তার নিজ বাড়িতে ফেরার পথে বাড়ির অদূরে ধোপাপাড়া ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন পৌছা মাত্রই পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক উৎ পেতে থাকা কতিপয় চিহিৃত ৮/১০ জন দূর্বৃত্তরা পথরোধ করে দেশীয় অস্ত্র ও রড দিয়ে পিতা-পুত্রকে বেধর মারপিটের এক পর্যায়ে ইউপি সদস্য ভোমর কে জবাই করার উদ্দেশ্যে মাটিতে ফেললে প্রিন্স তার পিতাকে বাঁচানোর জন্য তার বুকের উপর ঝাপটি দিয়ে শুয়ে পড়ে আতœচিৎকার শুরু করে। তার চিৎকারে গ্রামবাসিরা এগিয়ে আসলে দূবৃত্তরা পিতা-পুত্রকে রক্তাক্ত জখম করে ফেলে যায়। ঘটনাস্থল থেকে ওই রাতেই স্থানীয়রা উদ্ধার করে রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। পরিস্থিতির অবনতি হলে দুই জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসকরা বলেছেন, দুই রোগীরই শরীরে গুরুত্বর আঘাত সহ পা ভেঙ্গে গেছে। সে উপজেলার বিলপালশা গ্রামের আলহাজ্ব আজাহার আলী খন্দকারের ছেলে। এব্যাপারে আহত ইউপি সদস্যর বড় ভাই একেএম জহুরুল ইসলাম দুলাল বাদি হয়ে রাণীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করে। আহতর বড় ভাই জহুরুল ইসলাম দুলাল জানান, তার ভাই এলাকায় দীর্ঘ দিন ধরে মেম্বারী করে আসছেন। স্থানীয় ভাবে তার জনপ্রিয়তায় ইর্শানিত্ব হয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন এ হামলা করেছে। সন্ত্রাসীদের হামলায় ভোমর মেম্বারের দুই পা এবং ভাতিজা প্রিন্স এর বাম পা ভেঙ্গে দেয়াসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে। এব্যাপারে ৪নং পারইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মজিবর রহমান জানান, ভোমর আমার ইউনিয়ন পরিষদে পর পর কয়েকবার নির্বাচিত সদস্য। এলাকায় তার বেশ সুনাম রয়েছে। সে এলাকার কতিপয় দূর্বৃত্তদের অপকর্মের প্রতিবাদ করার কারণেই তার উপর এই হামলা। ওই রাতে সে আমাকে বাড়িতে রেখে পিতা-পুত্র তার বাড়িতে মটরসাইকেল যোগে যাওয়ার পথে তাকে পথরোধ করে হত্যার উদ্দেশ্যেই এই হামলা করা হয়েছে। আমি এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ সহ দোষিদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থার দাবি জানাচ্ছি। রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এএসএম সিদ্দিকুর রহমান জানান, ভোমর মেম্বারের উপর হামলার ঘটনা সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে এবং এঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)