ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৩১ মিনিট ৫৯ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ , গ্রীষ্মকাল, ১৯ রমযান, ১৪৪০

টেনিস, লিড নিউজ লঙ্কান কিংবদন্তি জয়াসুরিয়ার বিরুদ্ধে সুপারি চোরাচালানের অভিযোগ!

লঙ্কান কিংবদন্তি জয়াসুরিয়ার বিরুদ্ধে সুপারি চোরাচালানের অভিযোগ!

নিরাপদ নিউজ: আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) উত্থাপিত দুর্নীতির অভিযোগের রেশ কাটতে না কাটতেই নতুন বিপদে পড়লেন লঙ্কান কিংবদন্তি সনাথ জয়াসুরিয়া। ‘মাতার হারিক্যান’ খ্যাত বিশ্বকাপজয়ী এই সাবেক ব্যাটসম্যানের বিরুদ্ধে এবার সুপারি চোরাচালানের অভিযোগ উঠেছে! অবিশ্বাস্য হলেও এটাই সত্যি যে, শ্রীলঙ্কা থেকে বিপুল পরিমান সুপারি ভারতে পাচারে নাকি যুক্ত ছিলেন জয়াসুরিয়া!

লঙ্কান সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের রাজস্ব তদন্ত বিভাগের উপপরিচালক দিলীপ সিভার দেশটির গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, বিপুল পরিমাণ সুপারি শ্রীলঙ্কা থেকে ভারতে পাচার করা হয়েছে। এই সুপারি ইন্দোনেশিয়া থেকে শ্রীলঙ্কায় আনা হয়েছিল। এই বেআইনি কাজটি করার জন্য শ্রীলঙ্কায় কিছু ভুয়া প্রতিষ্ঠানও সৃষ্টি করেছিলেন জয়াসুরিয়া। এসব করতে তিনি ব্যক্তিগত ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন লঙ্কান মহাতারকা।

ইন্দোনেশিয়া থেকে সুপারি আমদানি করা হলে বিপুল অঙ্কের (১০৮ শতাংশ) আমদানি শুল্ক দিতে হয়। এর থেকে বাঁচার জন্য শ্রীলঙ্কা থেকে সুপারি আনার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। সার্কের বিশেষ বাণিজ্য সুবিধা থাকায় শ্রীলঙ্কা থেকে সুপারি আমদানি করা বেশি লাভজনক। ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি খরচের চার ভাগের এক ভাগ লাগে। তাই ইন্দোনেশিয়ার সুপারি শ্রীলঙ্কার মাধ্যমে ভারতে এনে দেশীয় পণ্যের সঙ্গে মিশিয়ে ফেলা হতো।

শুধু জয়াসুরিয়াই নয়, এই তালিকায় নাকি একাধিক শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারের নাম আছে। যদিও সেসব নাম এখনও প্রকাশ করা হয়নি। অভিযোগ উঠেছে, শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটাররা তাদের তারকাখ্যাতি ব্যবহার করে এসব ভুয়া প্রতিষ্ঠানের জন্য লাইসেন্স জোগাড় করে থাকেন। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে যাচ্ছে ভারতের রাজস্ব তদন্ত বিভাগ। তবে অভিযোগের ব্যাপারে জয়াসুরিয়ার কোনো বক্তব্য এখনও পাওয়া যায়নি।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)