আপডেট জুন ২৪, ২০১৯

ঢাকা রবিবার, ৬ কার্তিক, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২১ সফর, ১৪৪১

কৃষি, রাজশাহী লালপুরে বৃদ্ধি পাচ্ছে পাট চাষ, ন্যায্য মূল্যের দাবি চাষিদের

লালপুরে বৃদ্ধি পাচ্ছে পাট চাষ, ন্যায্য মূল্যের দাবি চাষিদের

লালপুর (নাটোর),নিরাপদ নিউজ: অন্যান্য ফসলের তুলনায় পাট চাষে খরচ বেশি তার ওপর শ্রমিক সংকট, শ্রমিকের অধিক মূল্য এবং পাটের ন্যায্য মূল্য না পাওয়া সর্তেও নাটোরের লালপুরে বৃদ্ধি পাচ্ছে পাট চাষ। দেশের জন্য যারা সোনালী আঁশ উৎপাদন করছেন সেই কৃষকরা পাটের ন্যায্য মূল্যের দাবি রেখে ও ন্যায্য মূল্য পাওয়ার আশায় বিগত দিনের ক্ষতির বোঝা মাথায় নিয়েও পাট চাষ অব্যাহত রেখেছেন।

লালপুর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এ বছর উপজেলায় মোট ৫ হাজার ৯১০ হেক্টর জমিতে পাটের চাষ হয়েছে। গত বছর পাট চাষের পরিমান ছিল ৩ হাজার ৬০০ হেক্টর। এ বছর পাট চাষ বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ২ হাজার ৩১০ হেক্টর।

উপজেলার প্রায় সব এলাকাতেই পাটের চাষ হচ্ছে। উপজেলার চাঁদপুর গ্রামের কৃষক আমছেদ আলী জানান, ‘গত বছর তিনি দুই বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছিলেন, বিগত দুই বছর ধরে পাট চাষ করে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন,তার পরেও এবছর ন্যায্য মূল্য পাওয়ার আশায় গত বছরের চাইতে এক বিঘা জমি বাড়িয়ে মোট তিন বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছেন। অনুকুল আবহাওয়ার কারনে এবছর পাট খুব ভালো হয়েছে। ন্যায্য মূল্য পেলে আগের ক্ষতি কাটিয়ে উঠবেন বলে তিনি আশাবাদি’।

উপজেলার কেশবপুর গ্রামের কৃষক কান্টু আলী জানান, ‘বিগত বছরে পাট চাষ করে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছি, তবুও এবছর আরো বেশি পরিমান জমিতে পাট চাষ করেছি এই আশায় যে, কৃষি বান্ধব সরকার অবশ্যই এবার পাটের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করবেন। তিনি আরো জানান, পটের জমি তৈরী থেকে শুরু করে নিড়ানি দেয়া, পাট কাটা,জাগ দেয়া ও আঁশ আহরণ করতে অনেক শ্রমিকের প্রয়োজন। বর্তমানে শ্রমিক সংকট প্রকট আকার ধারন করেছে তার ওপরে রয়েছে শ্রমিকের মুজুরী বৃদ্ধি, সর্বপরি অন্যান্য ফসলের তুলনায় পাট চাষে খরচ অনেক বেশি। কৃষকরা পাটের ন্যায্য মূল্য পেলে আরো বেশি পরিমানে পাট চাষ হবে।

লালপুর উপজেলা কৃষি অফিসার রফিকুল ইসলাম জানান, আধুনিক পদ্ধতিতে পাট চাষে বিভিন্ন পরামর্শসহ মাঠপর্যায়ে কৃষকদের পাট চাষের বিষয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে উদ্বুদ্ধ করা হয়েছে ফলে এ অঞ্চলে প্রতিবছরই পাটচাষ বৃদ্ধি পাচ্ছে, গত দুই বছর থেকে পাটের সঠিক মূল্য না পেয়ে পাট চাষিরা ক্ষতির মুখে পড়েছেন, ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করতে পারলে চাষিরা পাট চাষে আরো আগ্রহী হবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)