ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট জুন ১৩, ২০১৮

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১ ভাদ্র, ১৪২৫ , শরৎকাল, ৪ জিলহজ্জ, ১৪৩৯

বিনোদন লুশা মির্জা ও বিজয় মামুন পাশাপাশি

লুশা মির্জা ও বিজয় মামুন পাশাপাশি

নিরাপদনিউজ : প্রকাশিত হল লুশা মির্জা ও বিজয় মামুনের কণ্ঠে ‘পাশাপাশি’ গানের মিউজিক ভিডিও। গত ১২ই জুন ২০১৮ তারিখে গানটি ভিডিও আকারে প্রকাশ করে ই-নেটওয়ার্ক। বরাবরই ক্লাসিক গানের শিল্পী লুশা মির্জা। বাপ্পা মজুমদারের সংগীত আয়োজনে নিজের প্রথম অ্যালবাম লুশা মির্জা প্রকাশ করেন শুধুই রবীন্দ্র সংগীত নিয়ে। যাতে বোঝাই যায় ক্লাসিক গানই তাঁর রুচিতে বেশি প্রাধান্য পায়। অন্যদিকে, ব্যান্ড সংগীত শিল্পী বিজয় মামুন। নিজের ব্যান্ড ‘বিজয়’ এর নামটি তাঁর নামের সাথে এমন ভাবেই জুঁড়ে গেছে যেন বিজয় আর মামুন কোন আলাদা সত্ত্বা নয়। ব্যান্ড সংগীত শিল্পী বিজয় মামুন তাঁর নিজস্ব ঢঙেই নির্মাণ করেছেন পাশাপাশি গানটি। গানটি লিখেছেন তরুণ গীতিকার আমিনুল ইসলাম।
প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ই-মিউজিক নির্মাণ করেছে পাশাপাশি গানের মিউজিক ভিডিও। দুই শিল্পীরই বেশ কয়েকটি গান প্রকাশ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। গানটি মিউজিক ভিডিও শুটিং সম্পন্ন হয়েছে পুবাইলে। মিউজিক ভিডিওতে দুইজন শিল্পীকেই বেশ নান্দনিক ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। মিউজিক ভিডিও পরিচালনা করেছেন ইয়ামিন ইলান ও ভিডিও এডিটিং করেছেন শুভ্র।
পাশাপাশি গানটি সম্পর্কে কণ্ঠশিল্পী লুশা মির্জা বলেন, শিল্পী বিজয় মামুন এর সাথে এটিই ছিল আমরা প্রথম কাজ। খুব চমৎকার একজন মিউজিশিয়ান হবার পাশাপাশি খুব আন্তরিক একজন মানুষ তিনি। যিনি খুব দ্রুত কাজ শেষ করেন এবং তাঁর সহ শিল্পীকে পূর্ণাঙ্গ সহযোগিতা প্রদান চেষ্টা করেন। রেকর্ডিং এর সময় গানের কি ধরনের আমেজ তিনি চান সেটি তিনি খুব সুন্দর করে বুঝিয়ে দেন। তাঁর গান আগেও শুনেছি। একটু ভিন্ন ধারার গানই তাঁর কাছ থেকে পেয়েছি। হারিয়ে যাওয়া সেই ৯০ দশকের একটা আমেজ তাঁর গানে পাওয়া যায় যেটা আমাকে সবচেয়ে বেশি আকৃষ্ট করেছিল।
কাজটি করে খুবই আনন্দ পেয়েছি। আর তাই আমার কৃতজ্ঞতা ই-মিউজিক এর কর্নধার ইয়ামিন ইলান এর প্রতি আমাদের নিয়ে এই উদ্দ্যোগটি নেয়ার জন্যে। বরানরের মতনই পরিচালক ইয়ামিন ইলান এই গানের ভিডিওটি একটি নতুন আঙ্গিকে পরিবেশন করেছেন যেখানে শুধু মাত্র গানের শিল্পীরাই উপস্থিত ছিলেন এবং আমার ধন্যবাদ শুভ্রকে এত চমৎকার সম্পাদনার জন্যে। আমার আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ ই-মিউজিক এর সকল কলাকুশিলেদের প্রতি যারা নিরন্তর আন্তরিক ভাবে তাদের সহযোগিতা প্রদান করে এসেছেন।
পাশাপাশি গানটি নিয়ে ই-মিউজিকের কর্ণধার ইয়ামিন ইলান বলেন, বিজয় মামুন অত্যন্ত প্রতিভাবান শিল্পী। তার কণ্ঠ বেশ সুরেলা। তাঁর মধ্যে আমাদের হারিয়ে যাওয়া সেই ব্যান্ডের গানগুলোর একটা আমেজ পাওয়া যায়। সে কারণে ই-মিউজিক তাঁর সাথে কাজের সিদ্ধান্ত নেয়। তাঁর গানগুলোর ভিডিও নির্মাণের দাযিত্ব নেয় ই-মিউজিক ও পরিবেশনার দায়িত্ব নেয় ই-নেটওয়ার্ক। ‘পলাতক আমি’ ও ‘কথা ছিল’ এই দুটি গানের পরেই আমরা পরিকল্পনা করি শক্তিশালী কিছু একটা করার। ই-মিউজিকের পাওয়ার হাউজ লুশা মির্জা। যাঁর গলার কোন সীমাবদ্ধতা নেই। আমরা সিদ্ধান্ত নেই এই দুই শিল্পীকে একসাথে নিয়ে কিছু একটা করার। সেই প্রচেষ্টা থেকেই “পাশা পাশি” গানটি। আমিনুল ইসলাম খুব সুন্দর লিখেছেন গানটি। গানের শুটিং হয়েছে পুবাইলে। খুব অল্প সময়ে করা এই ভিডিওতে আমি চেষ্টা করেছি দুইজন শিল্পীকে দর্শক শ্রোতাদের সামনে ভিন্ন ভাবে উপস্থাপনের। আমরা আমাদের সাধ্যমত করেছি, বাকি টুকু দর্শকের হাতেই ছেড়ে দিতে চাই।
বিজয় মামুন বলেন, আমি লুশা মির্জার গান আগেও অনেক শুনেছি। সংগীতাঙ্গনে তাঁর সুনামও রয়েছে। সেই প্রেক্ষিতে তাঁকে নিয়ে কাজ করার একটা অভিপ্রায় আমার আগেও ছিল। দেশের বাইরে থাকায় সেটা সম্ভব হয়ে না ওঠায় আমাকে অপেক্ষা করতে হয়। আমিনুল ইসলাম দারুন একটু গান লিখেছে। সুর করার পর মনে হয়েছে এই গানটি নিয়ে এমন বিশেষ একটু উদ্যোগের প্রয়োজন। অবশ্যই ধন্যবাদ জানাতে চাই ইয়ামিন ইলানকে। তিনি আমাদের এই উদ্যোগকে সামগ্রিকভাবে সহায়তা করেছেন। আশাকরি সবার ভাল লাগবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)