আপডেট ৪২ মিনিট ২৯ সেকেন্ড

ঢাকা রবিবার, ৮ বৈশাখ, ১৪২৬ , গ্রীষ্মকাল, ১৫ শাবান, ১৪৪০

রাজশাহী শিবগঞ্জে নাগরনদে অবৈধ মাটি ও বালু উত্তোলনের মহাৎসব: আবাদী জমি হুমকির মুখে

শিবগঞ্জে নাগরনদে অবৈধ মাটি ও বালু উত্তোলনের মহাৎসব: আবাদী জমি হুমকির মুখে

রশিদুর রহমান রানা,নিরাপদ নিউজ : প্রশাসনের নিষেধ অমান্য করে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা ইউনিয়নের হাটখোলা গ্রামে নাগর নদের তল থেকে একটি প্রভাশালী মহল ভেকু ও ড্রেজার মেশিন লাগিয়ে অভিনব কায়দায় মাটি ও বালু উত্তোলনের মহাৎসব চালাচ্ছে। ফলে এলাকার আবাদী জমি বসত বাড়ী এবং মোকামতলা শিবগঞ্জের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা, এমনকি ঈদগাহ মাঠ হুমকির মুখে পড়েছে। এদিকে শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়নে পূর্ব জাহাঙ্গীরাবাদ, গুজিয়া শ্যামপুর ও বুড়িগঞ্জ ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি স্থানে এলাকার কয়েজন ব্যক্তি দলীয় প্রভাব বিস্তার করে আবাদী জমি এবং নাগর নদের তলায় শ্রমিক লাগিয়ে পানি সেচ দিয়ে শুকিয়ে সেখান থেকে ভেকু মেশিন দিয়ে অভিনব কায়দায় মাটি এবং শ্যালো চালিত ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের মহাৎসব চালাচ্ছে। পূর্ব জাহাঙ্গীরাবাদ যত্রতত্র ও অবৈধ ভাবে গড়ে উঠা বেশ কয়েকটি ইট ভাটার মালিকরা ট্রাক যোগে এসব মাটি নিয়ে আসছে। নদের তলা থেকে গভীর পর্যন্ত মাটি খনন করায় বর্ষা মৌসুমে বাঁধের পাড় দেবে এবং ভেঙ্গে আশপাশের কয়েকটি গ্রামের বসতবাড়ী ও এলাকার শত শত জমি হুমকির মুখে পড়েছে এবং রাস্তা ফাটল ধরে ও ডেবে গিয়েছে। বেশ কিছুদিন যাবৎ প্রশাসনের অবৈধ ভাবে মাটি ও বালু উত্তোলনের ক্ষেত্রে নজরদারী না থাকায় এক শ্রেণির সুবিধাভোগী মহল অবৈধ ভাবে সুকৌশলে উক্ত ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এতে করে এলাকার পরিবেশ মারাত্বক ভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। সরেজমিনে গিয়ে আরো দেখা যায় অতি মুনফার আশায় কৃষকরা তাদের জমি থেকে মাটি ও বালু উত্তোলন করে প্রশাসনের পাশ কাটিয়ে বিক্রি করছে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর কবীর বলেন বালু উত্তোলন ও মাটি কেটে নেয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অচিরেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)