আপডেট ২৪ মিনিট ৩০ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ৯ আশ্বিন, ১৪২৬ , শরৎকাল, ২৪ মুহাররম, ১৪৪১

ভ্রমন শ্রীমঙ্গলের লেমন গার্ডেন রির্সোটটি সত্যিই অতুলনীয়

শ্রীমঙ্গলের লেমন গার্ডেন রির্সোটটি সত্যিই অতুলনীয়

শ্রীমঙ্গলের লেমন গার্ডেন রিসোর্টে সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক নাসিম রুমি

শ্রীমঙ্গলের লেমন গার্ডেন রিসোর্টে সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক নাসিম রুমি

শ্রীমঙ্গল থেকে ফিরে—নাসিমরুমি
নিরাপদনিউঝ : চা বাগান আমাদের দেশের অমূল্য সম্পদ। এপ্রিল মাস থেকেই চা বাগানগুলোতে শুরু হয়ে যায়, কুঁড়ি সংগ্রহের মৌসুম। দেশের সবচেয়ে বেশী চা বাগানের এলাকা হচ্ছে শ্রীমঙ্গলে। এমনিতেই চা বাগানের সৌন্দর্য্য নজর কড়া, তার অপর অপরূপ সৌন্দর্য্য ভরা কয়েকটি রির্সোট শ্রীমঙ্গলে রয়েছে।

লেমন গার্ডেন রিসোর্টের কর্ণধার মোঃ সেলিম মিয়া

লেমন গার্ডেন রিসোর্টের কর্ণধার মোঃ সেলিম মিয়া

এর মধ্যে গ্রান্ড সুলতান এবং লেমন গার্ডেন রির্সোট অন্যতম। শ্রীমঙ্গলে এই ২টি অভিজাত ও বিলাসবহুল রির্সোট, পর্যটকদের শতভাগ আকৃষ্ঠ করে, এবং মুগ্ধতো অবশ্যই করে। হামিমুনের জন্য শ্রীমঙ্গলের লাউয়াছড়া লেমন গার্ডেন রির্সোটটি মনোমুগ্ধকর। পরিবারের সদস্যদের নিয়েও এ পাহাড়ের টিলায় বাগিচা ঘেরা লেমন গার্ডেন রির্সোটটিতে ২/৩দিন অনাসেই রাত্রিযাপন করা যায়। শ্রীমঙ্গলের লেমন গার্ডেন রির্সোটটি সত্যিই অতুলনীয়। নির্জনতা যারা পছন্দ করেন, তাদের জন্য এই রির্সোটটি স্বর্গরাজ্য। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি,২০১৫ শ্রীমঙ্গলের লাউয়াছড়াতে অবস্থিত লেমন গার্ডেন রির্সোটে সফরে গেলাম। আমার সফরসঙ্গী ছিলেন শ্রীমঙ্গল উপজেলার নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) আহবায়ক কমিটির সদস্য স্থানীয় জাতীয় পাটির নেতা মো: হায়দার আহমেদ। রির্সোটটি দেখেই হৃদয়টা উৎফুল্ল হয়ে গেল। ক্ষণিকের জন্য সুখ-আনন্দ উপভোগ করলাম। পাহাড়ের টিলায় বাগিচায় মাঝখানে, নির্জন লেমন গার্ডেন রির্সোটটি সত্যিই আমাকে মুগ্ধ করলো। প্রাণ ভরে উপভোগ করলাম, আর ভাবলাম হামিমুন করার জন্য এই রির্সোটটি আর্দশ এবং নিরাপদ। নির্জনতা তো রয়েছেই। লেমন গার্ডেন রির্সোটটিতে ১৪টি কক্ষ রয়েছে। ডবল বেড দুই হাজার টাকা থেকে চার হাজার টাকা। কক্ষের ভিতরে অবস্থান করলাম।

রিসোর্টের একাংশে লেখক নাসিম রুমি

রিসোর্টের একাংশে লেখক নাসিম রুমি

সত্যিই চমৎকার এর পরিচ্ছন্ন। যে কোন অভিজাত পর্যটককে লেমন গার্ডেন রির্সোটের কক্ষগুলি মুগ্ধ করবেই। এই রির্সোটেই খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থাও রয়েছে। তবে অন্তত এক ঘন্টা আগে খাবারের অর্ডার দিতে হবে সবধরনের খাবারের আয়োজন আছে বলে। লেমন গার্ডেন রির্সোটের ম্যানেজার মুকিত আনোয়ার জানালেন। এই ম্যানেজারই আন্তরিকভাবে আমাকে লেমন গার্ডেনের সবকিছু ঘুরিয়ে দেখিয়েছেন। প্রসঙ্গক্রমে উল্লেখ্য লেমন গার্ডেন রির্সোট এর কর্ণধার হচ্ছেন মো সেলিম মিয়া। তিনি প্রভাবশালী শিল্পপতি ও সাবেক এমপি আহাদ মিয়ার ভাতিজা। বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যায় মো: সেলিম মিয়া একজন হৃদয়বান মানুষ। এবং ভদ্র ও মার্জিত।

লেমন গার্ডেন রিসোর্টে সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক নাসিম রুমি

লেমন গার্ডেন রিসোর্টে সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক নাসিম রুমি

বছরের অধিক সময় তিনি লন্ডনে বসবাস করেন। আমি যখন গিয়েছিলাম তার রির্সোটে তখন তিনি লন্ডনে ছিলেন। আজ ১৬ মার্চ উনার সঙ্গে সেলফোনে কথা হলো। তিনি বর্তমানে শ্রীমঙ্গলে অবস্থান করছেন। আমরা বিদেশ-বিদেশ করি, কিন্তু আমাদের বাংলাদেশেই মহান সৃষ্টি কর্তা অপরূপ অসংখ্য পর্যটন স্থান দিয়েছেন। কিন্তু আমরা তা চক্ষু মিলিয়ে দেখিনা। লেমন গার্ডেন রির্সোটে জীবন চলার পথে, পুনরায় আমার যাওয়ার বাসনা রয়েছে। কেননা গ্রান্ড সুলতান রির্সোটটি আমাকে যতটুকু মুগ্ধ করেছে, তেমনিভাবে লেমন গার্ডেন রির্সোটটিও।

সাংবাদিক নাসিম রুমির সাথে লেমন গার্ডেন রিসোর্টের ম্যানেজার আনোয়ার হোসেন মুকিত

সাংবাদিক নাসিম রুমির সাথে লেমন গার্ডেন রিসোর্টের ম্যানেজার আনোয়ার হোসেন মুকিত

শ্রীমঙ্গলের লেমন গার্ডেন রির্সোটটি সত্যিই অতুলনীয়। রির্সোট থেকে  অতি নিকটে এই লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান। প্রায় ১২৫০ হেক্টও জায়গা নিয়ে এই উদ্যানে রয়েছে ১৭৮ প্রজাতির উদ্ভিদ। লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের অন্যতম আকর্ষন হলো, উল্লুক, বানর, মুখেপোড়া হনুমান অন্যতম। উল্লেখ্য উদ্যানের ভিতরে একটি খাসিয়া পল্লীও রয়েছে।

লেমন গার্ডেন রিসোর্টের অভিজাত কক্ষে নিরাপদ নিউজের সিনিয়র রিপোর্টার নাসিম রুমি

লেমন গার্ডেন রিসোর্টের অভিজাত কক্ষে নিরাপদ নিউজের সিনিয়র রিপোর্টার নাসিম রুমি

জঙ্গলে আর হাজার-হাজার লেবুগাছ লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানটির সৌন্দর্য্য আরও বৃদ্ধি করেছে। ট্রেনে কিংবা বাসে শ্রীমঙ্গল নেমে অটো কিংবা প্রাইভেটকারে মাত্র ৩০ মিনিট সময় লাগবে লেমন গার্ডেন রির্সোটে পৌছতে।
নাসিমরুমি
সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক
মোবাইল : ০১৬৮৪৯৪১৪৭৭,০১৭১১২২৭৪২৭

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)