সংবাদ শিরোনাম

২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং

00:00:00 শুক্রবার, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ , বসন্তকাল, ৭ই জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী
নিসচা সংবাদ, বিনোদন, লিড নিউজ সকলের প্রতি কৃতঞ্জতা প্রকাশ করলেন ভালবাসার শুভেচ্ছায় সিক্ত ইলিয়াস কাঞ্চন

সকলের প্রতি কৃতঞ্জতা প্রকাশ করলেন ভালবাসার শুভেচ্ছায় সিক্ত ইলিয়াস কাঞ্চন

পোস্ট করেছেন: Nsc Sohag | প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৮ , ৫:৫৪ অপরাহ্ণ | বিভাগ: নিসচা সংবাদ,বিনোদন,লিড নিউজ

সকলের প্রতি কৃতঞ্জতা প্রকাশ করলেন ভালবাসার শুভেচ্ছায় সিক্ত ইলিয়াস কাঞ্চন

ফারজানা ইয়াসমিন রুম্পা, নিরাপদনিউজ : ২০১৮ সালের জন্য একুশে পদক পাচ্ছেন অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন। তিনি সমাজকর্মে অবদানের স্বীকৃতিসরূপ এই পদক পাচ্ছেন। গত বৃহস্পতিবার একুশে পদক জয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। সেখানে রাষ্ট্রীয় সম্মানে ভূষিত হওয়ার এই খবর প্রকাশ হয়। তার এই অর্জনে উচ্ছ্বসিত তার সহকর্মী, অগনীত ভক্ত দেশে/বিদেশের সকল নিসচা কর্মিসহ সাধারন জনতা। ‘ইলিয়াস কাঞ্চন আমাদের গর্বিত করেছেন’ বলে উচ্ছ্বসিত প্রকাশ করেছেন তার সহকর্মী তারকা অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। দেশ/বিদেশে সামাজিক আন্দোলন নিরাপদ সড়ক চাই এর কর্মিরা প্রিয় নেতা নিসচা চেয়ারম্যানের এমন কৃতিত্তে গর্ব প্রকাশ করে গত বৃহস্পতিবার থেকেই বিভিন্ন আয়োজনের মদ্ধদিয়ে শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে মিষ্টি বিতরণ কর্মসূচীসহ অানন্দ সোভাযাত্রা করতে দেখা গেছে এবং সারা দেশে নিসচা কমিটির কর্মিদের ভেতর এই অভিনন্দন কর্মসূচী এখনো অব্যহত রয়েছে। এদিকে প্রিয় তারকার একুশে পদক প্রাপ্তিতে যেন পূরণ হলো কোটি ভক্তের স্বপ্ন। দীঘ্যদিন ধরে ইলিয়াস কাঞ্চনের ভক্তরা প্রিয় তারকাকে একুশে পদক প্রদানের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। এবার তাদের কাংখিত সেই স্বপ্নটি পূরণ হওয়ায় তাদের যেন বাধ ভাঙ্গা আনন্দ। গত দুদিনে প্রিয় তারকার এই প্রাপ্তিতে উচ্ছ্বসিত ভক্তদের প্রাণঢালা অভিনন্দন বার্তায় ভরে গেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের পাতা। ফেসবুক খুললেই এখন শুধুই প্রিয় তারকাকে নিয়ে ভক্তদের হাজারো পোস্ট । অন্যদিকে ইলিয়াস কাঞ্চনের একুশে পদক প্রাপ্তির সংবাদ নিরাপদ নিউজসহ বিভিন্ন অনলাইন নিউজপোর্টাল/গণমাধ্যম এবং টিভিতে প্রচার হওয়ার পর দেশের জনসাধারন এর মাঝেও দেখা গেছে দারুণ উৎসাহ উদ্দিপনা। দেশ/বিদেশ থেকে ইতিমদ্ধে ইলিয়াস কাঞ্চনকে শুভেচ্ছা জানিয়ে অসংখ্য বার্তা নিসচা প্রধান কার্যালয়ের ঠিকানা এবং ইলিয়াস কাঞ্চনের ফেসবুক আইডি ও পেইজের ইনবক্স ভরে উঠেছে। অন্য দিকে শুভেচ্ছার ফুলে ভরে উঠেছে নিসচা অফিস ও প্রিয় তারকার বাসা।

একুশে পদক প্রাপ্তিতে সহকর্মী তারকা অভিনেতা-অভিনেত্রী, দেশ/বিদেশের নিসচার নেতৃবৃন্দ, ভক্ত থেকে শুরু করে জনসাধারন ও শুভাকাংখিদের ফুলেল ভালবাসায় সিক্ত নিরাপদ সড়ক চাই- আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা, সারাবিশ্বের রোল মডেল, জনবান্ধব সমাজ উন্নয়ণ তারকা, শিক্ষাবান্ধব ব্যক্তিত্ব, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন। সকলের শুভেচ্ছা অভিনন্দনে অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, ‘এ পদক আমার নয়, এটা কর্মের ফল। আর ফল দৃশ্যমান। যা এ আন্দোলনকে আরও বেগবান করবে। রাষ্ট্র আমাকে এ পদক দিয়ে নিসচার আন্দোলনকে এগিয়ে নেওয়ার সংগ্রামে সামিল হলো।’ একুশে পদক প্রাপ্তিতে ইলিয়াস কাঞ্চনকে যারা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাদের সকলের প্রতি কৃতঞ্জতা প্রকাশ করে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চন। তিনি গতকাল রাতে সংক্ষিপ্ত সফরে লন্ডনের উদ্দেশ্যে রওনা হবার আগে তার সহকর্মী তারকা অভিনেতা-অভিনেত্রী, দেশ/বিদেশের নিসচার সকল নেতৃবৃন্দ, ভক্ত, জনসাধারন ও শুভাকাংখিদের ধন্যবাদ জানিয়ে এক বার্তা দিয়ে গেছেন।  নিরাপদ নিউজকে তিনি বলেন, প্রথমত আমি মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি সেই সাথে সমগ্র নিসচা কর্মিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই এবং ধন্যবাদ জানাই মানননীয় প্রধানমন্ত্রীকে। রাষ্ট্রের কাছে আমি কৃতজ্ঞ আমার কর্মকে মূল্যায়ন করায়। এ প্রাপ্তি আমৃত্যু নিরাপদ সড়কের দাবিতে এবং দেশের জন্য কাজ করতে অনুপ্রেরণা যোগাবে। তিনি বলেন, একুশে পদক প্রাপ্তিতে নিজেকে সৌভাগ্যবান ও গৌরবান্বিত মনে করছি এবং আমার এই পদক আমার প্রয়াত স্ত্রী জাহানারা কাঞ্চনসহ সকল নিসচা কর্মিদের উৎসর্গ করছি। তিনি বলেন, মানুষ যেকোনো অর্জনে খুশি হয়। আমিও খুশি হয়েছি। এর সঙ্গে যখন রাষ্ট্রীয় ব্যাপার যুক্ত হয়, তখন এটা বড় ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। ছোটবেলা থেকে একুশে ফেব্রুয়ারি লালন করছি। তখন আশপাশের বাগান থেকে ফুল সংগ্রহ করে মালা তৈরি করেছি। প্রভাতফেরিতে অংশ নিয়েছি। শহীদ মিনারে গিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছি। একুশে পদক অর্জন তো নিঃসন্দেহে ভীষণ আনন্দের। সমাজসেবার জন্য কখনো পুরস্কার পাব, ভাবতেও পারিনি। আমি শুরু করেছিলাম দায়িত্ব থেকে। আমার স্ত্রী আমাকে ভালোবাসতেন, তিনি দুর্ঘটনায় মারা যান। ভক্তরা আমাকে ভালোবাসেন। এই ভক্তদের জন্য আমি ইলিয়াস কাঞ্চন হয়েছি। প্রতিদিন সারা দেশে অনেক মানুষ সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাচ্ছেন। এ ক্ষেত্রে একজনকেও যদি সচেতন করতে পারি—সেটাই বড় ব্যাপার। অনেককেই বলতে শুনি, দেশ আমাকে কী দিয়েছে। আমি তাদের বলতে চাই, এই দেশ আমাকে ভাষা দিয়েছে, স্বাধীনতা দিয়েছে, এই দেশ আমাকে ইলিয়াস কাঞ্চন বানিয়েছে। এই দেশ না থাকলে আমি ইলিয়াস কাঞ্চন হতে পারতাম না। এ কারণে আমার দায়িত্ব দেশ ও দেশের মানুষের জন্য কাজ করা।

ইলিয়াস কাঞ্চন আরো বলেন,ইতিমদ্ধে আপনারা অসংখ্য মানুষ আমার একুশে পদক প্রাপ্তিতে খুশী হয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আপনাদের সকলের প্রতি আমি কৃতঞ্জ। আপনাদের ভালোবাসায় আমি ইলিয়াস কাঞ্চন আপনাদের ভালোবাসা যে এখনও আমার প্রতি অব্যহত আছে তা আপনারা আবারও প্রমাণ করলেন আপনাদের সকলের আন্তরিকতায় সত্যি আমি মুগ্ধ। ইলিয়াস কাঞ্চন লন্ডনের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়ারকালে সকল ভক্ত নিসচা কর্মিসহ দেশবাসী সকলের জন্য দোয়া করেন এবং সবার চলার পথ যেন নিরাপদ হয়,সকলে যেন সুখে শান্তিতে থাকেন এই কামনা করেন এবং নিজের জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

ব্যক্তিগত কাজ এবং নিসচা যুক্তরাজ্যের সাংগঠনিক কর্মসূচিতে অংশগ্রহনসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও বিশিষ্ট জনদের সাথে মতবিনিময় করার উদ্দেশ্যে তিনি এবার সংক্ষিপ্ত সফরে লন্ডনে গেছেন সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারী রাতে তিনি রওনা দেবেন এবং ১৯তারিখ সকালে বাংলাদেশে এসে পৌছবেন বলে জানিয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চন।

Share this...
Print this pageShare on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedInEmail this to someone

comments

Bangla Converter | Career | About Us