আপডেট অগাস্ট ৯, ২০১৯

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১২ রবিউস-সানি, ১৪৪১

এক্সক্লুসিভ সবাইকে তাক লাগিয়ে দিতে মুখে অক্টোপাস নিয়ে ছবি তোলার চেষ্টা, অতঃপর…

সবাইকে তাক লাগিয়ে দিতে মুখে অক্টোপাস নিয়ে ছবি তোলার চেষ্টা, অতঃপর…

নিরাপদনিউজ: সবাইকে তাক লাগিয়ে দিতে মুখে অক্টোপাস নিয়ে ছবি তুলছিলেন। কিন্তু, সেটাই কাল হয়ে দাঁড়াল জেমি বিসেগ্লিয়া নামে এক মার্কিন নারীর জীবনে। অক্টোপাসের কামড়ে গুরুতর জখম হয়ে এখন হাসপাতালে ভর্তি তিনি। কয়েকদিন আগে ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন শহরে।

জানা গেছ, গত শুক্রবার ওয়াশিংটনের টাকোমা ন্যারো ব্রিজের কাছে একটি মাছ ধরার প্রতিযোগিতা চলছিল। তাতে অংশগ্রহণ করেন ৪৫ বছরের জেমি। প্রতিযোগিতা চলার সময় কিছুটা দূরে কয়েকজন মৎস্যজীবীকে মাছ ধরতে দেখেন তিনি। কিছুক্ষণ বাদে দেখতে পান তাদের মাছধরার জালে একটি ছোট অক্টোপাস ধরা পড়েছে। সেটা দেখেই জেমি সিদ্ধান্ত নেন, অক্টোপাসটি মুখে নিয়ে একটা ছবি তুলবেন। সবাইকে তাক লাগিয়ে দেবেন। সেই মতো একগাল হাসি নিয়ে অক্টোপাসকে মুখে বসিয়ে ছবি তুলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু, ছবি তোলার বদলে অক্টোপাসের কামড় খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হল ওই মার্কিন নারীকে।

জেমি জানান, একটি প্রতিযোগিতা হওয়ার কথা ছিল। তাই অক্টোপাস মুখে নিয়ে ব্যতিক্রমী ছবি তুলে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু, ছবি তোলার সময় সেটি তাকে দু’বার কামড়ে দেয়। সে অবস্থাতেই ছবির জন্য পোজ দিচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু, এরপর হঠাৎ করেই অক্টোপাসের শুঁড় তাঁর চিবুকের মধ্যে ঢুকে যায়। নিমিষে যন্ত্রণায় চোখগুলো বড় বড় হয়ে যায় তার। সঙ্গে সঙ্গেই পালা সাঙ্গ হয় ছবি তোলার। এরপর মুখের একপাশ দিয়ে আধঘণ্টা ধরে রক্তক্ষরণ হতে থাকে। কিন্তু, তারপরও হাসপাতালে যাননি ওই মার্কিন নারী। তবে দুদিন পর মুখের অবস্থার আরও অবনতি হলে হাসপাতালে ভর্তি হতেই হয়।

পরে এ প্রসঙ্গে জেমি বলেন, ‘ওই ঘটনার পর থেকে ঠিক মতো খাবার খেতে পারছিলাম না। মুখের বাঁদিক, গলা ও পেশিগুলো ফুলে গিয়েছিল। বুঝতে পারছিলাম আমার মুখের বাঁদিকটি অবশ হয়ে গিয়েছে। এখন বুঝতে পারছি ওইভাবে ছবি তোলার আইডিয়াটা ভাল ছিল না। আর কোনওদিন এই ধরনের চেষ্টা করব না আমি।’

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)