ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৫২ মিনিট ১৬ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ৪ আষাঢ়, ১৪২৫ , বর্ষাকাল, ৩ শাওয়াল, ১৪৩৯

বিনোদন সময়ের চাহিদায় গানেও এখন নাটক!

সময়ের চাহিদায় গানেও এখন নাটক!

সময়ের চাহিদায় গানেও এখন নাটক!

তারেক আনন্দ, নিরাপদ নিউজ : গান শোনার প্রধান মাধ্যম ইউটিউব। সময়ের চাহিদায় তৈরি হচ্ছে মিউজিক ভিডিও। এই মাধ্যমকে সবাই সাদরে গ্রহণ করেছেন। না করে উপায় নেই। প্রযুক্তির সঙ্গে খাপখাইয়ে চলতেই হবে। মিউজিক ভিডিও সময়ের দাবি। অনেক ভালো ভালো গান তৈরি হলেও মিউজিক ভিডিও না থাকার কারণে শ্রোতার কানে পৌঁছানো যাচ্ছে না। বর্তমান সময়ে লক্ষ করলে দেখা যায়, এই মিউজিক ভিডিও তৈরিতে নির্মাতারা নানা গল্পের মাধ্যমে গানকে উপস্থাপন করছেন। মিউজিক ভিডিওকে আরও বেশি আকর্ষণীয় করার লক্ষে গানে যে একটা গল্প থাকে তারও বাইরে চলে যাচ্ছেন ভিডিও নির্মাতারা। শ্রোতাদের গান শোনাতে নয়, যেন দেখাতেই ব্যস্ত তারা। এখন শুধু গান আর গান নেই অর্ধেক নাটক বাকি অর্ধেক গান! গান শুরুর আগে ৩০ সেকেন্ড থেকে শুরু করে পাঁচ মিনিট পর্যন্ত জুড়ে দেওয়া হচ্ছে গল্প! কোনোটা মানানসই হলেও কিছু কিছু মিউজিক ভিডিও দেখে শ্রোতারা বিরক্তিই প্রকাশ করছেন। এ বছরের জুনে প্রকাশ হয়েছে প্রীতম হাসানের ‘জাদুকর’ গান। এই গানে রয়েছে ৫ মিনিট ২০ সেকেন্ডের একটি গল্প। গানটি প্রকাশ করেছে গানচিল মিউজিক। প্রীতমের সংগীতে মমতাজের গাওয়া ‘লোকাল বাস’-এ ছিল ৩ মিনিটের গল্প। একই সংগীত পরিচালকের ‘বিয়াইন সাব’ গানে ছিল ৪৫ মিনেটের গল্প। গানচিলের ব্যানারে প্রকাশ হওয়া তিনটি মিউজিক ভিডিওই নির্মাণ করেছেন তানিম রহমান অংশু।
২০১৫ সালে সেই তানিম রহমান অংশুই নির্মাণ করেন লিজার ‘পাগলি সুরাইয়া’ গান। ‘পাগলি সুরাইয়া’তে ছিল ১ মিনিট ১৫ সেকেন্ডের গল্প।
গানকে এভাবে উপস্থাপন করাটা কতটা যুক্তিসঙ্গত? সংগীতপ্রেমিরা কি গানে নাটক চান নাকি শুধু গানই শুনতে চান?
তানিম রহমান অংশু পর্যন্তই সীমাবদ্ধ নেই। আরও অনেক ভিডিও নির্মাতাই এখন জুড়ে দিচ্ছেন গল্প। এ বছর আগস্টে সিডি চয়েজের ব্যানারে প্রকাশ হয় ইমরানের ‘নিশি রাতে চান্দের আলো’ গানটি। ভিডিও নির্মাণ করেন সৈকত রেজা। এখানেও আছে ৩০ সেকেন্ডের গল্প। একই নির্মাতার বানানো ইমরানের ঠিক বেঠিক গানেও আছে দেড় মিনিটের গল্প।
সংগীতের যুবরাজ আসিফ আকবর। ঈদ উপলক্ষে প্রকাশ হয়েছে তার গাওয়া ‘সাদা আর লাল’ শিরোনামের গান। এই গানটিও প্রকাশ করেছে গানচিল মিউজিক। এ গানে রয়েছে ১ মিনিটের গল্প। স্বয়ং আসিফ আকবরও গানে দীর্ঘ সময়ের গল্প রাখা নিয়ে বিরক্ত। আসিফ আকবর বলেন, আমি এটা অপছন্দ করি। গানে যদি গল্প রাখতেই হয় তাহলে দুটি ভার্সন করা উচিত। অনেক শ্রোতা আছেন গানটি শুধু শুনতে চান। যারা গান শুনতে চায় তারা ভিডিওর উপদ্রব পছন্দ করবে না। তাদের জন্য লিরিক ভিডিও প্রকাশ করা উচিত। ‘সাদা আর লাল’-এর ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে। গানটা ভিডিওর জন্য থেমে যাচ্ছে। এটা একটা গতিশীল গান। ব্যক্তিগতভাবে পছন্দ করি না গানের মধ্যে কোনো কথাবার্থা ঢোকানো হোক। যদি করতেই হয় তাহলে আলাদা করে সিকোয়েন্স তৈরি করে মিউজিক ভিডিও বানানো হোক। এই গান ভেঙে গানের রিদম নষ্ট করে তৈরি করার পক্ষপাতি আমি নই। এভাবে তৈরি করা মানে গানটাকে নষ্ট করা।
সম্প্রতি প্রকাশ হয়েছে ইলিয়াস ‘হোসাইনের না বলা কথা-৪’। এটি নির্মাণ করেছেন সৌমিত্র ঘোষ ইমন। এই গানেও রাখা হয়েছে ২ মিনিটের গল্প।
এ বিষয়ে জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী বাপ্পা মজুমদার বলেন, গানে যদি গল্প রাখতেই হয় তা যেন সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়। গান শুনতে শ্রোতাদের কোনো প্রকার বিরক্তির সৃষ্টি করা যাবে না। আর যদি রাখতেই হয় সেটা ২০, ৩০ সেকেন্ডের হতে পারে। তবে সেটা গানের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ হতে হবে। কিন্তু অযাচিতভাবে, অকারণে যদি দুই তিন মিনিটের নাটক রাখা হয়, সেটার পক্ষপাতিত্ব আমি করব না। শ্রোতারা প্রথমত গানই শুনতে চায়। আর কি দরকার বাড়তি গল্প রাখা। একজন গীতিকবি যখন গানটি লিখেন সেখানেই তো সুন্দর একটি গল্প থাকে। ভিডিও নির্মাণের আগে যিনি গানটি লিখেছেন তার পরামর্শ নিয়ে মিউজিক ভিডিও নির্মাণ করা যেতে পারে। গানের কথার ভেতর যে গল্পটি লুকিয়ে আছে সেটি সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে যিনি পারবেন সেই হলেন মেধাবী ভিডিও নির্মাতা।
জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ফাহমিদা নবী বলেন, মানুষ নতুন কিছু চায়। নতুনত্বের কারণে হয়তো এটা করছেন অনেকে। গল্প নির্ভর একটা মিউজিক ভিডিও গানের সঙ্গে যদি মানানসই হয় তাহলে ঠিক আছে। কিছু গানের মিউজিক ভিডিও দেখলে মনে হয়, গানের কথা এক তার সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে ভিন্ন একটা গল্প। এটা খুবই দৃষ্টিকটু। আপনার কি প্রতিদিন পোলাও খেতে ইচ্ছে করবে? না। গল্পের সঙ্গে যায় না, এ রকম যদি সবাই করে তাহলে তো কিছু হলো না। গানের প্রতি আমাদের মনোযোগ দিতে হবে আগে। সারাজনম মানুষ অডিও গানই শুনে আসছে। পুরনোদিনের অডিও গানগুলি শুনলে চোখে দৃশ্য ভাসে। গানের শক্তি কিন্তু এটাই। শ্রোতারা গানটাই শুনতে চায়।
জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আঁখি আলমগীর বলেন, আমার কথা হলো যদি সামঞ্জস্যপূর্ণ হয় তাহলে খারাপ লাগে না। এই ট্রেন্ডটা আজকের নয়, বাংলাদেশে হয়তো নতুন। আপনি যদি মাইকেল জ্যাকসনের কিছু গান খেয়াল করেন, তাহলে দেখবেন গান শুরু হওয়ার আগে কয়েক মিনিটের গল্প আছে। এখন কথা হলো সেটা কতটা সামঞ্জস্যপূর্ণ। যদি গানের সঙ্গে যায় তাহলে মনে হয় করা যেতে পারে। আপনি তো গানের জন্যই মিউজিক ভিডিও বানাচ্ছেন। গানটা যাতে করে শ্রোতার কানে পৌঁছে। গানে এমনকিছু করা যাবে না যাতে করে শ্রোতারা অপছন্দ করেন। বিপরীতে কি দাঁড়াল? ভালো করতে গিয়ে কিন্তু মন্দই হলো।

সব সময় করলে মানুষ সেটা নেবে না
তানিম রহমান অংশু, নির্মাতা
বর্তমান সময়ের কিছু মিউজিক ভিডিওতে আমি গল্প রেখেছি। আমি আসলে অনেক টিভি ফিকশন করেছি। যখন আমি গান করা শুরু করলাম। তখন এই দুইটার সমন্বয়ে ভালো কিছু করা যায় কিনা সেই চিন্তা থেকেই গানে গল্প রাখা। ছোট গল্পও থাকল, মানুষ এনজয় করলো। অনেকেই আমাকে এই ধরনের কাজে উৎসাহ দিয়েছেন। কিন্তু আমি সবক্ষেত্রে এটা করতে চাই না। অনেকের রিকোয়েস্টও থাকে তাই করতে হয়। আর একটা বিষয় হলো, মিউজিক ভিডিও যখন দেখছেন তখন কিন্তু দেখারই বিষয়। শোনার হলে তো তাহলে মানুষ এফএমই শুনত। অনেকে গানটা দেখার জন্যই বসে। আবার এটাও সত্যি অনেকে বিরক্তও হচ্ছে। প্রীতমের জাদুকর গানটাকে আমরা সর্ট ফিল্ম বানাতে চেয়েছিলাম। পরবর্তীতে যে গানগুলো আসছে তার বেশিরভাগই কিন্তু গল্প ছাড়া, সেই গানগুলোতে গল্প নেই। এটা যে সব সময় করতে চাই তা নয়, সব সময় করলে মানুষ সেটা নেবে না। আবার ডিফারেন্ট যদি গল্প আসে তাহলে করতেও পারি।

সত্যিকার অর্থে গানে প্রভাব ফেলে
সৈকত রেজা, নির্মাতা
গল্পের স্বার্থেই গানে গল্প রাখা। শ্রোতা-দর্শকদের গানটি সহজে বোঝানোর জন্যই করা। যেটাতে দরকার হয় সেটাতে করি, দরকার না হলে করি না। তবে আমার যেটা মনে হয় গল্প থাকার কারণে সত্যিকার অর্থেই গানে প্রভাব ফেলে, সমস্যা হয়।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)