ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট মে ২৮, ২০১৫

ঢাকা মঙ্গলবার, ৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২১ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

ভ্রমন সিঙ্গাপুর পরিচ্ছন্ন একটি দেশ

সিঙ্গাপুর পরিচ্ছন্ন একটি দেশ

সিঙ্গাপুর শহরে সারলিয়ন এখানেই পর্যটকদের ভিড় লেগেই থাকে

সিঙ্গাপুর শহরে সারলিয়ন এখানেই পর্যটকদের ভিড় লেগেই থাকে

নিরাপদ নিউজ : সিঙ্গাপুর আমার দুইবার ভ্রমণ করা হয়েছে। সত্যিই ছবিরমত সুন্দর একটি পরিচ্ছন্ন দেশ। এশিয়ার একাধিক দেশে আমার ভ্রমণ করা হয়েছে। কিন্তু সিঙ্গাপুরের মত এত পরিচ্ছন্ন ও বাগিচা ঘেরা দেশ আমার দৃষ্টি কম পড়েছে। তাছাড়া সিঙ্গাপুরের নিয়ম-কানুন দেখে আমি মুগ্ধ। নিজেকে যদি প্রকৃতির সৌন্দর্য্যরে মাঝে হারিয়ে ফেলতে চান কিংবা বিনোদনের মাঝে ডুবে থাকতে চান, তাহলে সিঙ্গাপুর আর্দশ স্থান।

সিঙ্গাপুরের প্রধান আকর্ষণ সেন্টোসা সৈকত ও দ্বীপ

সিঙ্গাপুরের প্রধান আকর্ষণ সেন্টোসা সৈকত ও দ্বীপ

হাত পাঁচদিন সময় নিয়ে সিঙ্গাপুরে ভ্রমণে যাওয়া উত্তম। তাহলে কোন কিছু দেখা থেকে বঞ্চিত হবেন না। থাকা-খাওয়ার কোন সমস্যা নেই। তবে একটু ব্যয় বহুল। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার পর্যটকপ্রিয় দ্বীপরাষ্ট্র সিঙ্গাপুর। দিন পাচেক এখানে থাকলে সিঙ্গাপুরের সব দ্রষ্টব্যই ঘুরে দেখা যায়। আয়তনে নিতান্তই ক্ষুদ্র পুরো দেশটা ছবির মতো সাজানো গোছানো। আকাশ-ছোঁয়া বহুতল, চকচকে পথঘাট, রং-বেরঙ্গের ফুলে সাজানো বাগান এবং একাধিক পার্ক।

সিঙ্গাপুর শহরের বাগিচাতে সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক নাসিম রুমি

সিঙ্গাপুর শহরের বাগিচাতে সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক নাসিম রুমি

যেদিকেই তাকাবেন মুগ্ধ হবেন। বিনোদনের সেরা ঠিকানা সিঙ্গাপুরে তাই পর্যটকের ভিড় লেগেই থাকে। ঢাকা থেকে সরাসরি বিমান যাচ্ছে সিঙ্গাপুরের চাঙ্গি বিমানবন্দর। সিঙ্গাপুর শহরে দেখবেন জুরং বার্ড পার্ক।

সিঙ্গাপুর শহরের আধুনিক ও সর্বোচ্ছ বিল্ডিং

সিঙ্গাপুর শহরের আধুনিক ও সর্বোচ্ছ বিল্ডিং

বিশাল এলাকা নিয়ে বিস্তুত এই সবুজের সংসারে দেখা মেলে প্রায় ৪০০ প্রজাতির পাখি। নাইট সাফারিতে দ্রষ্টব্য রাতের অরণ্য ঘুরে বেড়ানো নানা ধরনের প্রাণী। মেরিনা বে ও সিঙ্গাপুর রিভার সংলগ্ন অঞ্চলটা চমৎকার সাজানো।

সিঙ্গাপুর শহর থেকে ৪৮কি:মি: দুরে মান্ডাবী লেকে সাংবাদিক নাসিম রুমি

সিঙ্গাপুর শহর থেকে ৪৮কি:মি: দুরে মান্ডাবী লেকে সাংবাদিক নাসিম রুমি

সিঙ্গাপুর রিভারে বামবোট রাইড ক্রুইজ রাতের আলো সাজা সিঙ্গাপুরের দৃশ্য দেখতে দারুণ লাগে। নদীর জলে সন্ধেবেলা লেজার ও মিউজিক্যাল ফাউন্টেন শো হয় প্রতিদিন। শহরে দেখবেন চায়না, লিটল ইন্ডিয়া । সিঙ্গাপুরে কেনাকাটার জন্য চলুন অর্চার্ড রোড, লিটল ইন্ডিয়া অঞ্চল। ২ দিন শহরে বেড়ানোর পরে চলুন সেন্টোসা দ্বীপে। শহর থেকে সড়কপথে সেতু পেরিয়ে অথবা কেবলকারে সিঙ্গাপুরের লাগোয়া এই দ্বীপে পৌছঁতে হবে। সারাদিন লাগবে এই দ্বীপ  বেড়াতে। সবুজ টিলায় ঘেরা দ্বীপের গায়ে ঢেউ খেলছে সিঙ্গাপুর বে-সাগর।

সিঙ্গাপুর শহরের এক অংশ

সিঙ্গাপুর শহরের এক অংশ

এখানকার সিলোসা বিচের গায়ে রয়েছে নারকেল গাছের সারি। চমৎকার সৈকত। রয়েছে ওয়াটার স্পোর্টসের ব্যবস্থা। দ্বীপে ঘোরার জন্যে বাস সার্ভিস রয়েছে। একে এক দেখবেন ওসেনারিয়াম, ডলফিন লেগুন, মারলায়নের বিশাল মুর্তি, সিঙ্গাপুর মিউজিয়াম। এই দ্বীপের সবচেয়ে আকর্যক দ্রষ্টব্য ইউনিভার্সাল ষ্টুডিও অ্যামিউজমেন্ট পার্ক। হলিউডের সিনেমা তৈরীতে কৌশল, বিস্ময়কর স্পেশ্যাল এফেক্ট এখানে চাক্ষুয করতে পারবেন।

সেন্টোসা সৈকতে বিলাস বহুল রিসোর্ট

সেন্টোসা সৈকতে বিলাস বহুল রিসোর্ট

রয়েছে নানা ধরনের জয় রাউড। সবই হলিউডের বিখ্যাত সিনেমাকে কেন্দ্র করে বানানো। প্রতিদিন নানা ধরনের অনুষ্ঠান হয় এখানে। রয়েছে শপিংমল, রেস্তোরা। মনোরেল চড়ে সেস্তোসা দ্বীপে একচক্কর ঘুরে নেওয়া যায়। সন্দেবেলা এই দ্বীপে অবশ্যই দেখবেন সং অব দি সি, মিউজিক্যাল ডান্সিং ফাউন্টেন ও লেজার শো।

সিঙ্গাপুরের বে-সৈকতে লেখক

সিঙ্গাপুরের বে-সৈকতে লেখক

১ ঘন্টার এই অনুষ্ঠান হয় সাগরতীরে। সঙ্গে কালচারাল শো। সবশেষে আতসবাজির রোশনাই ঝরে পড়ে রাতের সেস্তোসায়। সিঙ্গাপুরে গিয়ে অবশ্যই চড়বেন দুনিয়ার উচ্চতম নাগরদোলা সিঙ্গাপুর ফ্লাইয়ার। এতে চড়ে ওপর থেকে সিঙ্গাপুর দ্বীপটিকে পাখির চোখে দেখতে বেশ লাগে।

নাসিম রুমি, সাংবাদিক, লেখক ও পর্যটক
মোবাইল নং ০১৭১১২২৭৪২৭,০১৬৮৪৯৪১৪৭৭

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)