ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট মার্চ ৩১, ২০১৫

ঢাকা শনিবার, ৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২৫ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

সাক্ষাৎকার সিটি নির্বাচন নিয়ে জনগণের সামনে মূলা ঝুলিয়েছে সরকার: কাদের সিদ্দিকী

সিটি নির্বাচন নিয়ে জনগণের সামনে মূলা ঝুলিয়েছে সরকার: কাদের সিদ্দিকী

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী-ফাইল ফটো

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী-ফাইল ফটো

ঢাকা, ৩১ মার্চ ২০১৫, নিরাপদনিউজ : কেউ কেউ বলছেন দেশের বর্তমান পরিস্থিতি বঙ্গপসাগরের নিম্ন চাপের মত কখন কোন দিকে যায় বলা যায়না। ২০ দলীয় জোটের টানা হরতাল অবরোধ ও ক্ষমতাসীন দলের প্রতিরোধের প্রেক্ষিতে দেশের সার্বিক অস্থিতিশীল পরিস্থিতি নিরসনে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অনেক প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। দুই মাস ধরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আসছেন তিনি। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন তিনি…
প্রশ্ন: কেমন আছেন?
কাদের সিদ্দিকী: দেশ ভাল থাকলেই ভাল থাকব।
প্রশ্ন: আপনি দেশের স্বাধীনতার জন্য একবার যুদ্ধ করেছেন এখন আবার রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার জন্য মাঠে নেমেছেন এর শেষ কোথায়?
কাদের সিদ্দিকী: এতদিন লেখালেখি করে বাইরে বের না হয়ে এর সমাধান করতে চেয়ে ছিলাম। কিন্তু হয়নি তাই বাধ্য হয়ে মাঠে নামতে হল।
প্রশ্ন: আপনার অবস্থান কর্মসূচির দুই মাস হতে চলল তার পরও দুই দলের মধ্যে কোন নমনীয়তা দেখা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে আপনি কি বলবেন?
কাদের সিদ্দিকী: সেটা তো দেখতেই পাচ্ছি। আমরা দুই দলকে একত্রিত করার জন্য কর্মসূচি দেইনি। দেশের শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য মাঠে নেমেছি। হয়তবা তারা জনগণের রাস্তায় নামার অপেক্ষায় আছে। জনরোসেই এর শেষ সমাধান হবে।
প্রশ্ন: আসন্ন সিটি নির্বাচন নিয়ে আজকে সংবাদ সম্মেলনে সরকারের সমালোচনা করেছেন। এবিষয়ে একটু বলবেন।
কাদের সিদ্দিকী: আসলে আমরা সংবাদ সম্মেলন নয়, সাংবাদিক সম্মেলন ডেকেছি। সাংবাদিক এবং গনমাধ্যম এখন পক্ষপাত মূলক হয়ে গেছে। এক দিক জনগণের সামনে দেখায় অন্য দিক অন্ধকারে রাখে। সিটি নির্বাচন দিয়ে সরকার জনগণের সামনে মূলা ঝুলিয়েছে। বিরোধীদল নির্বাচনে আসলে তারাই এটা ভণ্ডুল করবে। এখন আবার ক্রিকেট খেলা ইস্যু নিয়ে ভারতকে হীন করার অপচেষ্টা চলছে। ভারতের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।
প্রশ্ন: ভারত তো এ বিষয়ে কোন প্রতিক্রিয়া জানায়নি। সাড়া বিশ্ব দেখেছে সেখানে কি হয়েছে।
কাদের সিদ্দিকী: ভারত কেন জানাবে। ভারত এরকম কিছুই করেনি। ফেসবুক হল সকল নষ্টের মূল। এখানে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।
প্রশ্ন: আইসিসির সভাপতি তো বাংলাদেশেরই একজন। তিনিও তো এর নিন্দা জানিয়েছেন।
কাদের সিদ্দিকী: আইসিসির সভাপতি আর বাংলাদেশরে রাষ্ট্রপতি দুজনই অনেক বড় কিন্তু কোন কিছুই করতে পারেননা।
প্রশ্ন: আপনাদের পরবর্তী কর্মসূচি কি?
কাদের সিদ্দিকী: আমার কর্মসূচি অগ্রীম আমার বৌ-কেও জানাইনা। আগামী ২৮ তারিখ আমাদের কর্মসূচির ৬০ দিন পূর্ন হবে। তখন সাংগঠনিক মতবিনময় সভা হবে। তার পর পরবর্তী কর্মসূচি দেওয়া হবে।
প্রশ্ন: আপনাকে ধন্যবাদ।
কাদের সিদ্দিকী: আপনাকেও
-সংগৃহিত

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)