আপডেট ১৫ মিনিট ৫৯ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ১ আশ্বিন, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৬ মুহাররম, ১৪৪১

লিড নিউজ, সিলেট সিলেটে ডাকাতি নিয়ে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ, ২ জন নিহত

সিলেটে ডাকাতি নিয়ে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ, ২ জন নিহত

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ডাকাতের হামলায় এক ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয়দের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে আরো একজন নিহত ও অর্ধশতাধিক হয়েছেন।

০৪ মার্চ ২০১৭, নিরাপদ নিউজ : সিলেটে ডাকাতি নিয়ে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ, নিহত ২ সংঘর্ষে আহতদের চিকিৎসার জন্য দ্রুত হাসপাতালে আনা হয় সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ডাকাতের হামলায় এক ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয়দের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে আরো একজন নিহত ও অর্ধশতাধিক হয়েছেন। শনিবার ভোরে উপজেলার আনোয়ারপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- জিলু মিয়া (৭০) ও মফিজ আলী (৬০)। এদের মধ্যে জিলু মিয়া ডাকাতের হামলায় আর মফিজ পুলিশের গুলিতে মারা গেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, কুখ্যাত ডাকাত সর্দার সোনাই মিয়াকে আটকের সময় ডাকাতদের বল্লমের আঘাতে জিলু মিয়ার মৃত্যু হয়। তিন মোস্তাফা নগরের বাসিন্দা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ জনতার হাতে আটক ডাকাতকে নিয়ে যেতে চাইলে গ্রামবাসী বাধা দেয়। এ নিয়ে গ্রামবাসীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে পুলিশ। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ গুলি চালালে রাজানগর গ্রামের মফিজ আলী মারা যান।

সংঘর্ষে পুলিশের বেশ কয়েকজন সদস্যসহ প্রায় অর্ধশতাধিক গ্রামবাসী আহত হয়েছেন। সিলেট জেলা পুলিশের মুখপাত্র সুজ্ঞান চাকমা জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন জাহান জানান, ভোরে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার আনোয়ারপুর গ্রামে ডাকাতিকালে বল্লমের আঘাতে গৃহকর্তা জিলু মিয়া মারা যান। এ সময় গ্রামবাসীরা ধাওয়া করে ডাকাতকে ধরে ফেলে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আটক ডাকাতকে থানায় নিয়ে যেতে চাইলে গ্রামবাসীরা বাধা দেয়। পরে গ্রামবাসীদের সঙ্গে পুলিশের ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে পুলিশের গুলিতে মফিজ মিয়া ঘটনাস্থলেই মারা যান। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল লেইছ জানান, এ ঘটনায় পুলিশসহ আরো অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)