সংবাদ শিরোনাম

২৬শে জুন, ২০১৭ ইং

00:00:00 মঙ্গলবার, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ , বর্ষাকাল, ৩রা শাওয়াল, ১৪৩৮ হিজরী
অপরাধ, লিড নিউজ সীমান্ত দিয়ে নানাভাবে ঢুকছে মাদক : ছড়িয়ে পড়ছে সারাদেশে

সীমান্ত দিয়ে নানাভাবে ঢুকছে মাদক : ছড়িয়ে পড়ছে সারাদেশে

পোস্ট করেছেন: মোবারক হোসেন | প্রকাশিত হয়েছে: এপ্রিল ২০, ২০১৭ , ১১:৩৯ পূর্বাহ্ণ | বিভাগ: অপরাধ,লিড নিউজ

গণপরিবহনের শ্রমিক, বেকার যুবক, রিকসাচালক এমনকি নারী ও শিশুরাও মাদক পরিবহন কাজে জড়িয়ে পড়ছে।

২০ এপ্রিল ২০১৭, নিরাপদ নিউজ : বাংলাদেশের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে নানাভাবে- নানা কৌশলে ঢুকছে বিভিন্ন প্রকারের মাদক দ্রব্য। তারপর দেশের বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে এ মরণ নেশা। গণপরিবহনে, প্রাইভেট গাড়িতে, পণ্যবাহী ট্রাকে, মোটর সাইকেলে পরিবহন করা হচ্ছে এসব মাদক দ্রব্য। গণপরিবহনের শ্রমিক, বেকার যুবক, রিকসাচালক এমনকি নারী ও শিশুরাও মাদক পরিবহন কাজে জড়িয়ে পড়ছে।

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, মিয়ানমার থেকে টেকনাফ, কক্সবাজার হয়ে আসছে ইয়াবা। কখনও কখনও বেনাপোল সীমান্ত দিয়েও ইয়াবা প্রবেশ করছে। আর ফেন্সিডিলসহ অন্যান্য মাদক আসছে যশোর, মেহেরপুর, খুলনা, সাতক্ষীরা, বেনাপোল, কুষ্টিয়া, মাগুরা, দিনাজপুর সীমান্ত দিয়ে। কুমিল্লা, চাঁপাই নবাবগঞ্জ, শেরপুর, জয়পুরহাট দিয়ে গাঁজা ও ফেন্সিডিল আসছে।

কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সুন্দরী ছাত্রী, মডেলকন্যা ও ফিগার সচেতনদের স্লিম হওয়ার প্রলোভনসহ নানা কৌশলে ইয়াবা সেবনে আসক্ত করা হয়। এরপর তাদের ফ্রি সেবন করানোর বিনিময়ে বানানো হয় বিক্রেতা।

মহানগর পুলিশের কাছে তথ্য রয়েছে,রাজধানীর কাওরানবাজার, নিউমার্কেট, পলাশী, চাঁনখার পুল, গুলিস্তান, মীরপুর মাজার এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে শিশুদের দিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে মাদক।তাছাড়া, বিভিন্ন জেলা শহর, উপজেলা ও গ্রামের হাটে বাজারে ও ছড়িয়ে পড়েছে এদের বিস্তৃত নেটওয়ার্ক।

এ প্রসঙ্গে জনস্বাস্থ্য আন্দোলন সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক ডাক্তার ফায়জুল হাকিম বলেন, মাদকের ব্যাপক বিস্তারের সাথে প্রশাসনের লোকজন জড়িত থাকতে পারে। হতাশা থেকে বা দায়িত্বহীন সুখের অনুভূতি পেতে মাদক গ্রহণ করে তরুণ প্রজন্ম নিজের ও সমাজের জন্য বিপর্যয় ডেকে আনছে। এর সাথে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র জড়িত থাকতে পারে।

মাদক প্রতিরোধে প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, পুলিশ, বিজিবি, র‍্যাব ও কোস্টগার্ড। তবু মাদকের লাগাম টানা সম্ভব হচ্ছে না।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ খোরশিদ আলম (ঢাকা, উত্তর) গণমাধ্যমকে বলেছেন, প্রায়ই বিভিন্ন রুটে মাদক জব্দ এবং বহনকারীকে আটক করা হলেও মাদক পাচার প্রতিরোধ করা যাচ্ছে না কিছুতেই। মাদক পরিবহন ও বাজারজাত করতে নিত্যনতুন কৌশল অবলম্বন করছে মাদক ব্যবসায়ীরা।-রেডিও তেহরান

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn1Digg thisShare on Tumblr0Email this to someonePin on Pinterest0Print this page

comments

Bangla Converter | Career | About Us