সংবাদ শিরোনাম

২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং

00:00:00 শুক্রবার, ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ , বসন্তকাল, ৭ই জমাদিউস-সানি, ১৪৩৯ হিজরী
মতামত সেন্সরের কাঁচির মোলায়েম পরশ!

সেন্সরের কাঁচির মোলায়েম পরশ!

পোস্ট করেছেন: Nsc Sohag | প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭ , ৪:৪৯ অপরাহ্ণ | বিভাগ: মতামত

সেন্সরের কাঁচির মোলায়েম পরশ!

মাহফুজুর রহমান, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, নিরাপদনিউজ: পত্রিকার টন টন দিস্তা, শয়ে শয়ে নিউজ লিংক, কামড় পাল্টা কামড়, বিবৃতি উল্টো বিবৃতি, ষ্ট্যাটাস প্রতিষ্ট্যাটাস, ইন্টারন্যাশনাল মিডিয়া, গৃহপালিত মিডিয়া, সেলফি ও তার ব্যাখ্যা-অপব্যাখ্যা, সিনেমার আল্লামাগণের সকল তাফসির ও বয়ান শেষে হুজুরেআলা সেন্সর বোর্ড কসাইয়ের চেয়েও নির্মম হয়ে ‘ডুব’ ফিকশন হতে কর্তন করলেন মহামূল্যবান ২ মিনিট ২৫ সেকেন্ড। আহারে! সাগর শিবির নাকি ফারুকী শিবিরকে প্যাচায়া ধরসে। সাপের মুখে ব্যাঙ আটকানোর মতো ধরফড় করসে ‘ডুব’ টিম। রাতের ঘুম, দিনের শখ শিকেয় উঠেছিল আজিজ সাবের। সেন্সর বোর্ডের কাটিং দেখলে কিন্তু সেকথা মনে হয় না। সেন্সরের কাচির মোলায়েম পরশকে হাসপাতালের বেডে নায়িকাসমেত সেলফির সাথেই তুলনা দেবো আমি। আসুন দেখে নেই ডুবে’র কোন ৫টি দৃশ্যকে নাজায়েজ ভেবে ফেলে দিলেন বিজ্ঞ সদস্যরা । ১ নং কাটিংটির বিবরণে বোর্ড লিখেছিল- ‘সাবেরী কর্তৃক নিতুর সঙ্গে জুতা পাল্টানোর দৃশ্য ও সংলাপ কর্তন করা হয়েছে। ৫৯ সেকেন্ড। ডিস্ক নং ১। ফারুকী সাব নাকি ৪০ মিনিট কেটে সেন্সর বোর্ডে ‘ডুব’ জমা দিয়েছেন। ক্ষয়ক্ষতি নাকি সব ওখানেই হয়েছে। একথার কোনো রেকর্ড নেই। অফিসিয়ালি মাত্র ২ মিনিট ২৫ সেকেন্ডই গুনাহ মনে হয়েছে বোর্ডের। ৪০ মিনিট ফেলার পর ওই জায়গা কি ফারুকী-তিশার বিয়ের ভিডিও দিয়ে ভরাট হয়েছে? আসুন সেন্সর বোর্ডের ২য় কাটিংয়ে একটু ডুব দেই। কাটিংয়ের বিবরণে বোর্ড লিখেছিল- ‘জাবেদ হাসানের সংলাপ ‘এই গাড়ি, গাজীপুর চলো’ কর্তন করা হয়েছে। ৪ সেকেন্ড। ফ্রেম ৯। ডিস্ক নং ১। ৩নং কাটিংয়ের বিবরণ দিলাম নিচে। এই কাটিংটার কোনো আগা-মাথা বুঝলাম না! কাটিংয়ের বিবরণে বোর্ড লিখেছিল-‘জাবেদ হাসানের মরদেহের পাশে নিতুর সঙ্গে তার শিশুসন্তানের দৃশ্য কর্তন করা হয়েছে’। ২৪ সেকেন্ড। ২১ ফ্রেম। ডিস্ক নং ১। যারা বিশ্বাস করেন (যেহেতু ফারুকী সব বলেছেন), ‘ডুবে’ হুমায়ুন আহমেদের ছায়া-কায়া-মায়া কিসসু নাই তাদের জন্য সেন্সর বোর্ডের ৪নং কাটিংটা যথেষ্ট আকর্ষণীয়। শুধু ‘নয়নতারা’র জায়গায় মনে মনে নুহাশপল্লী পড়ে নিতে হবে। বোর্ড কাটিংয়ের বিবরণে লিখেছিল-‘জাবেদ হাসানের কন্যা সাবেরীর সঙ্গে তার চাচার কথোপকথন অংশে ‘এখন নিতু তো বলছে নয়নতারা’য় কবর দিতে’ শীর্ষক চাচার সংলাপসহ কবরের স্থান নির্ধারণ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দৃশ্য ও সংলাপ কর্তন করা হয়েছে।’ ৩০ সেকেন্ড। ফ্রেম নং ১৩। ডিস্ক নং ১। এবার ৫নং কাটিং। সর্বশেষ কাটিংয়ের বিবরণে বোর্ড লিখেছিল- ‘জাবেদ হাসানের মৃত্যুর পর এম্বুলেন্সে তার মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার একটি দৃশ্য পর অবশিষ্ট দৃশ্য ও সংলাপ কর্তন করা হয়েছে। সেকেন্ড ২৬। ফ্রেম ৯। ডিস্ক নং ১। কাটিং কাটিং এই খেলা থেকে তবে আমরা কী পেলাম? সত্যি আমার জানা নেই।-এফবি থেকে।

লেখক: বিনোদন সাংবাদিক- ভোরের কাগজ

Share this...
Print this pageShare on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterShare on LinkedInEmail this to someone

comments

Bangla Converter | Career | About Us