আপডেট ২ মিনিট ৩০ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ৭ কার্তিক, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২২ সফর, ১৪৪১

কিডস সোনাতলায় ধর্ষিত হয়ে মানষিক ভারসাম্য হারাতে বসেছে আড়াই বছরের শিশু

সোনাতলায় ধর্ষিত হয়ে মানষিক ভারসাম্য হারাতে বসেছে আড়াই বছরের শিশু

bogra
নিরাপদ নিউজ,মামুনুর রশিদ মামুন, সোনাতলাঃ বগুড়ার সোনাতলা উপজেলায় ধর্ষিত হয়ে মানষিক ভারসাম্য হারাতে বসেছে আড়াই বছরের শিশু জয়তুন আক্তার বিপাশা। শিশুটি মানুষ দেখলেই ভয়ে কাতর হয়ে পরছে। মায়ের কোল থেকে সে আর নামছেনা। শিশুটির আচরণে মানসিক ভারসাম্য হারাতে পারে বলে আশংকা করছে তার পরিবার। এই পৈশাচিক ঘটনায় ধর্ষক স্কুল ছাত্র সুমন মন্ডল (১৫) কে আসামী করে মামলা দায়ের হলেও পুলিশ ওই ধর্ষককে এক মাসেও গ্রেফতার করতে পারেনি। এমনকি মামলা তুলে নিতে ধর্ষকের পরিবার হুমকি দিচ্ছে বলে জানিয়েছে ধর্ষিত শিশুর মা রিমা বেগম।
জানাগেছে, উপজেলার পাকুল্লা ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের ছলিম উদ্দিন মন্ডলের ছেলে ও বয়রা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছাত্র সুমন মন্ডল (১৫) পাশ্ববর্তী একই গ্রামের কৃষক বাহার আলীর আড়াই বছরের মেয়ে জয়তুন আক্তার বিপাশাকে গত ৫ জানুয়ারী সকাল ১০ টার দিকে কোলে নিয়ে নিজ বাড়ির শয়ন ঘরে ধর্ষন করে। এসময় শিশুটির চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় শিশুর মা রিমা বেগম বাদী হয়ে ধর্ষককে অভিযুক্ত করে সোনাতলা থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১। মামলা দায়েরের এক মাসেও পুলিশ ধর্ষককে গ্রেফতার করতে পারেনি।
ধর্ষিত শিশুর মা রিমা বেগম বলেন, শিশু মেয়েটি তার কোল থেকে নামেনা। লোকজনের মধ্যে নিয়ে গেলে কান্না করে। মানুষ দেখলেই ভয় পায়। একা নিয়ে বসে থাকলে ভাল থাকে। তবে শিশুটিকে নির্যাতনের পর মেয়েটি আস্তে আস্তে ওজন কমে কঙ্কাল হয়ে যাচ্ছে । তিনি বলেন, ধর্ষক সুমন মন্ডলের পরিবার মামলা তুলে নিতে বার বার হুমকি দিচ্ছে। মামলা না তুললে এলাকাছাড়া করা হবে।
মামলা দায়েরের একমাসেও ধর্ষক গ্রেফতার না হওয়া প্রসঙ্গে তদন্তকারী কর্মকর্তা সোনাতলা থানার এসআই (সাব ইন্সপেক্টর) খোকন বলেন, আসামী পলাতক আছে। তাকে গ্রেফতারে ইতোমধ্যে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হয়েছে। খুব অল্প সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করা হবে বলে জানান তিনি।
সোনাতলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম হোসেন বলেন, আসামীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। সে এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল কিন্তু পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)