ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট অক্টোবর ১৭, ২০১৯

ঢাকা শুক্রবার, ৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২৪ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস, নিসচা সংবাদ, লিড নিউজ সড়কের শৃংখলা ফেরাতে আজও রাজপথে নেমেছিলেন ইলিয়াস কাঞ্চন

সড়কের শৃংখলা ফেরাতে আজও রাজপথে নেমেছিলেন ইলিয়াস কাঞ্চন

নিরাপদনিউজ : ‘জীবনের আগে জীবিকা নয়, সড়ক দুর্ঘটনা আর নয়’ এই প্রতিপাদ্য সামনে রেখে চলছে নিরাপদ সড়ক চাই কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে মাসব্যাপী সচেতনতামুলক কর্মসূচি।

২২ অক্টোবর জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস ২০১৯ এবং জাহানারা কাঞ্চনের ২৬তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে শুরু হওয়া নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের মাসব্যাপী কর্মসূচির আজ ছিলো ১৭তম দিন।

১৭তম দিনেও ট্রাফিক আইন নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য নিসচার একটি টিম নিয়ে মাঠে নেমেছিলেন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। নিরাপদ সড়ক চাই এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান চিত্র নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন এর নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দদের নিয়ে নিসচার এই টিম কাকরাইল মোড়ে বিকেলে প্রায় দুই ঘন্টা ব্যাপী সচেতন মুলক কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

ক্যাম্পেইন চলাকালে কাকরাইল মোড়ে নিসচা কর্মিরা পথচারী/যাত্রীদের সাথে কথা বলেন। সচেতনমুলক দিক নির্দেশনা প্রদান করেন। নিসচার পক্ষ্য থেকে আজ জানানো হয়েছে কাকরাইল মোড়ে আজ পথচারীদের মাঝে যে বিষয়গুলো বেশী চোখে পড়ার মতো ছিলো তা হলো জেব্রা ক্রসিং ব্যবহারে অনিহা। যত্রতত্র রাস্তা পারাপার।

সেই সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে পথ চলা। আমরা আজ এমন অসচেতন পথচারীদের হাত ধরে ধরে রাস্তা পারাপারের নিয়মগুলো বুঝিয়ে দেই এবং ফোনে কথা বলে রাস্তা পারাপারে নিষেধ করি।

ক্যাম্পেইন চলাকালে ইলিয়াস কাঞ্চন নিজেও পথচারীদের নিয়ম মেনে পথ চলতে বাধ্য করান। যত্রতত্র রাস্তা পার হওয়া মানুষগুলোকে ডেকে এনে জেব্রাক্রোসিং ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করেন।

কাকরাইল মোড়ে ক্যাম্পেইন চলাকালে সেখানকার ডিউটিরত ট্রাফিক সার্জেন্ট নিসচা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চনকে ধন্যবাদ জানান এবং সার্জেন্ট বলেন আমরা প্রতিদিন সড়কে কাজ করে যাচ্ছি পথচারীদের বুঝাচ্ছি এরপরও এনারা কথা মেনে চলেন না। আপনি ইলিয়াস কাঞ্চন সড়কে যতক্ষন থাকবেন আপনি যতক্ষন জোর করে তাদের বাধ্য করবেন ওনারা ঠিক ততক্ষনি নিয়ম মেনে চলবে এরপর আপনিও চলে যাবেন ঠিক আগের মতোই যেমন অবস্থা সড়কে তেমনই থাকবে। তিনি দাবি কলেন শুধু মুখে বলে সচেতন নয় এর জন্য কঠিন আইন প্রয়োগের ব্যবস্থা করতে হবে যাতে করে জনসাধারন সবসময় নিয়ম মানতে বাধ্য হন। এই বিষয়ে তিনি নিসচা চেয়ারম্যানের কাছে অনুরোধ করেন আপনি উর্ধতন কর্মকর্তা এবং উপর মহলে এবিষয়ে আলোচনা করে এর একটি ব্যবস্থা বাস্তবায়নের পদক্ষেপ গ্রহন করবেন।

নিসচার আজকের কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপন কমিটির আহবায়ক ও যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদ, যুগ্ম মহাসচিব বেলায়েত হোসেন খান নান্টু, যুগ্ম মহাসচিব লায়ন গনি মিয়া বাবুল, অর্থ সম্পাদক নাসিম রুমি, জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ও সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম আজাদ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুর রহমান।

আরো অংশগ্রহণ করেন আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মিরাজুল মইন জয়, তপন কুমার নাথ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক আসাদুর রহমান আসাদ, কার্যনির্বাহী সদস্য কামাল হোসেন খান, সাধারণ সদস্য আলী আকবর, আবদুল মান্নান, রাইসিন গাজী, আবদুর রাজ্জাক, আরিফুর তারেক, মোঃ মোহসিন খান, রাইসিন গাজী, আনজুমান আরা তন্বি, নুরুল আজিম, মোঃ সাকিব হোসেন, সোহেল বিশ্বাস, আনোয়ার হোসেন শাকিল, আল হাসান রাজীব, মিথিলা আমিন স্নিগ্ধা।

মোহাম্মদ সাইজুদ্দিন আহমেদ, হুমায়ূন আহমেদ, মাহমুদা আক্তার মালা, মোঃ জালাল, এডভোকেট রাবেয়া সুলতানা বেবী, মাহবুব, নবাব সালেহ আহমেদ, হাফেজ মোঃ মিরাজুল ইসলাম, সাবিনা পারভিন মুন্না, আবদুর রাজ্জাক, মনির, মোয়াজ্জেম, নিশি, নুসরাত, আনিস আহমেদ, সোহের বিশ্বাস, এনএসসি হিমু, ফখরুল ইসলাম, আবদুল আলীম, মনির, ফজলুর রহমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, সাকিব হোসেন, আসাদুল ইসলাম আসাদ, জাহিদুল ইসলাম, সাবান্তা, কাউসার প্রমুখ।

উল্লেখ্য,গত মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা আকরম খাঁ মিলনায়তনে আগামী ২২ অক্টোবর জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস ২০১৯ এবং জাহানারা কাঞ্চনের ২৬তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে প্রেসব্রিফিং এর মাধ্যমে অক্টোবরের এক মাস ব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির ঘোষণা করেন নিসচার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান চিত্র নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

নিসচার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ট্রাফিক আইন মানতে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ কিছু মোড়ে ক্যাম্পেইন ও পালিত কর্মসূচির আলোকে সমস্যা চিহ্নিত করে সরকারের কাছে তুলে ধরা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান ও শিক্ষার্থীদের স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে কি কি সমস্যা বিদ্যমান রয়েছে তা চিহ্নিত করা এবং স্কুলের সামনের সমস্যা চিহ্নিত করে তা প্রতিকারে ব্যবস্থা নিতে উদ্যোগী হওয়া, বিদ্যমান চালকদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণ প্রদান, পিটিআইয়ের মাধ্যমে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক প্রশিক্ষণ প্রদান, সেমিনারের আয়োজন, র‌্যালী এবং বাস টার্মিনালসমূহে সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক বিশেষ ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা। সেইসাথে দেশব্যাপী বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে ও বাস টার্মিনাল ছাত্রীদের মাঝে সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক বিশেষ ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা হবে।

উল্লেখ্য, সড়ক দুর্ঘটনায় স্ত্রীর মৃত্যুর পর ১৯৯৩ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে সামাজিক আন্দোলন করে যাচ্ছেন এই অভিনেতা।গড়ে তুলেছেন নিরাপদ সড়ক চাই-নিসচা নামে সংগঠন। আর এই সামাজিক কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৭ সালে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্বীকৃতি ‘একুশে পদক’ও পান তিনি।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)