ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ডিসেম্বর ২, ২০১৪

ঢাকা সোমবার, ৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ২০ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১

জাতীয়, দুর্ঘটনা সংবাদ, রাজধানী সংবাদ সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে : ওবায়দুল কাদের

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে : ওবায়দুল কাদের

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, ডিসেম্বর ০২ ২০১৪, নিরাপদনিউজ : সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সকলের সহযোগিতা কামনা করে বলেছেন, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে পরিবহন যাত্রী, মালিক, শ্রমিক এবং সরকারকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।
তিনি বলেন, ১৯৯৩ সালের মোটরযান অধ্যাদেশকে আইনে পরিণত করার কাজ প্রায় চূড়ান্ত হয়েছে। শিগগিরই মোটরযান আইন সংসদে উপস্থাপন করা হবে। এই আইন পাস হলে শৃংখলা ফিরে আসবে।
আজ রাজধানীর এলেনবাড়ি বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) ভবনে পরিবহন মালিক, শ্রমিক ও বিআরটিএ কর্মকর্তাদের সাথে দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা ও সাম্প্রতিক ঘটনাবলী নিয়ে এক জরুরী সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, অন্যায়কারীকে শাস্তি না দেয়া না হলে সে অপরাধ করতেই থাকে। সাংবাদিক জগলুল আহমদ চৌধুরীর মৃত্যুর ঘটনার জন্য যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে তার রিপোর্ট পাওয়ার পর সব ব্যবস্থা নেয়া হবে।
সাংবাদিক জগলুল আহমদ চৌধুরীর মৃত্যুর ঘটনার জন্য দায়ী বাসটি দ্রুত ধরিয়ে দিতে সকলের সহযোগিতা কামনা করে মন্ত্রী আরো বলেন, এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী নিজেই তার পরিবারের সদস্যদের সাথে যোগাযোগ রাখছেন এবং প্রয়োজনীয় সব ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছেন।
মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, সড়ক-মহাসড়কে মোবাইল টিমের অভিযান আছে এবং থাকবে। পরিবহণ কমে যাওয়ায় সাধারণ যাত্রীদের অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। কিন্তু এই খাতে শৃংখলা ফিরিয়ে আনতে যাত্রী, মালিক, শ্রমিক সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।
তিনি বলেন, গত ১০ থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত ১০ হাজার ৯৫৬টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। জরিমানা করা হয়েছে ৭৮ লাখ ৩২ হাজার টাকা এবং ৪৫ জনকে দন্ড দেয়া হয়েছে। গত ২১ দিনে ৩৮ হাজার গাড়ি তাদের গাড়ির ফিটনেস সনদ সংগ্রহ এবং ২৯৬টি গাড়ি ডাম্পিং করা হয়েছে।
মন্ত্রী আরো বলেন, রাজধানীতে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। পুরানো গাড়ি বাদ দিয়ে নতুন গাড়ি আমদানি করতে হবে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনে আমরা অর্থমন্ত্রী ও ব্যাংকগুলির সাথে আলোচনা করতে পারি।
চালকদের আরো বেশি প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ করে গড়ে তোলার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, দেশে আইন আছে কিন্তু আইনের প্রয়োগ হয় না । বর্তমানে যে অভিযান চলছে তাতে তাগিদ দিয়ে সচেতন করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, দেশের রাজনীতির কারণে অনেক সমস্যার সমাধান হয় না। ফুটপাত থেকে দোকান উঠানো যায় না। তবে এখন থেকে জনপ্রতিনিধিরা যাতে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয় তার জন্য বিশেষ সচেতন হওয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে। সরকার এই খাতের উন্নয়ন কাজের জন্য ১৬৫ কোটি টাকার বিশেষ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।
পরিবহণ শ্রমিক-মালিকরা ঢাকায় বাস টার্মিনাল নির্মাণ করার দাবি জানিয়ে বলেন, টার্মিনাল না থাকায় চালকরা সময়মত বিশ্রাম নিতে পারে না । ফলে তারা যানবাহন চালাতে গিয়ে ক্লান্ত হয়ে পড়েন এবং দুর্ঘটনার কবলে পড়েন।
সভায় বিআরটিএর চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, পরিবহণ মালিক সমিতির চেয়ারম্যান ফারুক তালুকদার সোহেল, সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমাণ আলী, মালিক সমিতির নেতা রমেশ চন্দঘোষ, মো.আব্বাস আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।-বাসস

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)