আপডেট ১৭ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ৩ ভাদ্র, ১৪২৬ , শরৎকাল, ১৬ জিলহজ্জ, ১৪৪০

খুলনা ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পালালো ১০ম শ্রেণির ছাত্র!

৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পালালো ১০ম শ্রেণির ছাত্র!

নিরাপদ নিউজ: ‘প্রেম একবার এসেছিল জীবনে…’, এমন গান হয়তো আমরা অনেকেই শুনেছি। মানুষের জীবনে প্রেম আসতেই পারে। কিন্তু সেটা যদি হয় স্বাভাবিক সময়ের আগে বা ধরুন- সেটা এমন কোনো সময় যখন প্রেম জিনিসটাকে জীবনে স্থান দেয়ার সময়টাই হয়নি। কিন্তু প্রেম তো আর এতো ভেবে হয় না। কিন্তু এর ফলাফল কি? ফলাফল আর যাই হোক- একটি স্কুলের ১০ম শ্রেণির এক ছাত্র তারই স্কুলের ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে নিয়ে অজানার উদ্দেশে পাড়ি জমিয়েছে। আর এই ঘটনাটি ঘটেছে বরগুনা জেলার তালতলী উপজেলায়।

এদিকে জেলার তালতলীতে ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে নিয়ে ১০ম শ্রেণির এক ছাত্রের পলায়নের ঘটনায় অভিযুক্ত প্রেমিক-প্রেমিকাকে (ছাত্র-ছাত্রীকে) স্কুল থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করেছে কতৃপক্ষ। শুধু কি তাই, তাদের পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় সহযোগিতা করায় একই স্কুলের ৪ ছাত্রকে শাস্তি স্বরূপ করা হয়েছে শতাধিক বেত্রাঘাত। সোমবার বিকেলে বিদ্যালয় মাঠে এক বৈঠকে প্রকাশ্যে এ বিচার কার্যকর করা হয়।

জানা গেছে, উপজেলার বগীরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ গত ১১ এপ্রিল সফলতা বার্ষিকী উদযাপন করছিল। সেই সুযোগে ওই বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে নিয়ে একই বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্র পালিয়ে যায়। অভিযুক্ত ছাত্রের নাম সোহাগ। সে পার্শ্ববর্তী চন্দনতলা গ্রামের কদম হাওলাদারের ছেলে বলে জানা যায়।

তাৎক্ষনিক ঘটনাটি জানাজানি হলে এলাকার লোকজন সাড়াশি অভিযানে নেমে ওইদিন বিকেলেই তাদেরকে তালতলী থেকে আটক করে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি, শিক্ষক ও অভিভাবক মিলে সোমবার এক বিচার বৈঠকের আয়োজন করে।

বিচারে পালিয়ে যাওয়া ছাত্র-ছাত্রীকে বিদ্যালয় থেকে স্থায়ী বহিষ্কার ও তাদের ৪ সহযোগী ছাত্র জসিম, সাকিব, কামরুল ও আউয়ালকে শতাধিক বেত্রাঘাত করা হয়। পালিয়ে যাওয়া ওই ছাত্র-ছাত্রী অনেক আগে থেকেই প্রেমের সম্পর্কে জড়িত বলে জানা যায়।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)