সংবাদ শিরোনাম

২৮শে মার্চ, ২০১৭ ইং

00:00:00 বুধবার, ১৫ই চৈত্র, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ , বসন্তকাল, ১লা রজব, ১৪৩৮ হিজরী
নিসচা এক্সক্লুসিভ, নিসচা সংবাদ, লিড নিউজ নিয়ম মানছেন না মালিক-চালক, বাড়ছে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি: জয় (ভিডিও)

নিয়ম মানছেন না মালিক-চালক, বাড়ছে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি: জয় (ভিডিও)

পোস্ট করেছেন: Nsc Sohag | প্রকাশিত হয়েছে: ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৭ , ৩:১১ অপরাহ্ণ | বিভাগ: নিসচা এক্সক্লুসিভ,নিসচা সংবাদ,লিড নিউজ

নিয়ম মানছেন না মালিক-চালক, বাড়ছে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি

নিরাপদনিউজ : মোটরযান আইন অনুযায়ী মহাসড়কে যানবাহনের সর্বোচ্চ গতিসীমা ৮০ কিলোমিটার নির্ধারণ করে দিয়েছে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিল। শহর ও লোকালয়ের সড়কগুলোতে এ গতিসীমা সর্বোচ্চ ৪০ কিলোমিটার। এজন্য যানবাহনগুলোতে গতি নিয়ন্ত্রক যন্ত্র (স্পিড গভর্নর) রাখাও বাধ্যতামূলক করা হয়েছে এবং এ যন্ত্রের ওপর নির্ভর করেই মোটরযানের ফিটনেস সনদ দেওয়া হয়। চালকদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে ২৪৩টি ব্ল্যাকস্পটে। চালকদের প্রশিক্ষণ দিতে বলা হয়েছে। এমনকি দুর্ঘটনার জন্য শাস্তিরও বিধান রয়েছে। কিন্তু এসব নিয়মকানুনের কিছুই মানছেন না যান মালিক ও চালকরা। পরিবহন মালিকরাও নির্বিঘ্নে ফিটনেসবিহীন গাড়ি নামাচ্ছেন পথে। অনভিজ্ঞ চালককে নিয়োগ দিচ্ছেন। অন্য বাসের সঙ্গে পাল্লা দিতে গিয়ে এবং দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছাতে ৮০ কিলোমিটার গতির জায়গায় ১২০ কিলোমিটার পর্যন্ত গতিতে চলছে গাড়ি। সড়কের বাঁক সোজাকারণ ও সক্ষমতা অনুযায়ী সড়ক সম্প্রসারণেও সরকারের কার্যকর কোনো উদ্যোগ নেই। এমনকি যাত্রী-পথচারীরাও চলাচলে অসতর্ক। ফলে সড়কপথে দুর্ঘটনা কমানো যাচ্ছে না। থামছে না মৃত্যুর মিছিল। এমনটিই জানালেন, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মিরাজুল মইন জয়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গবেষণা অনুযায়ী, সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির দিক থেকে এশিয়ায় বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম। বাংলাদেশের ওপরে আছে চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনাম। কিন্তু এই দেশগুলোর প্রতিটিতে যানবাহনের সংখ্যা বাংলাদেশের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি। আর সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির দিক থেকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান ১৩তম।

বিআরটিএর তথ্য অনুযায়ী, দেশে ভারী যানবাহনের প্রায় আড়াই লাখ চালক রয়েছেন। এর মধ্যে ১ লাখ ৯০ হাজার লাইসেন্স পেয়েছেন পরীক্ষায় অংশ না নিয়ে। একইভাবে বাংলাদেশে নিবন্ধিত প্রায় ২৭ লাখ যানবাহনের মধ্যে অন্তত ৪ লাখের ফিটনেস সনদ নেই। আর সনদভুক্ত যানগুলোও সনদ পেয়েছে পরিদর্শণ বা পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই। আর পারিপার্শ্বিক অবস্থার মধ্যে রয়েছে অসম গতির যান ও গ্রামীণ সড়ক হঠাৎ করে মহাসড়কের সঙ্গে যুক্ত করে দেওয়াও দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ।

 

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Digg thisShare on Tumblr0Email this to someonePin on Pinterest0Print this page

comments

Bangla Converter | Career | About Us