সংবাদ শিরোনাম

২৯শে মার্চ, ২০১৭ ইং

00:00:00 বুধবার, ১৫ই চৈত্র, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ , বসন্তকাল, ২রা রজব, ১৪৩৮ হিজরী
বহির্বিশ্ব ট্রাম্পের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করলেন জার্মান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী

ট্রাম্পের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করলেন জার্মান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী

পোস্ট করেছেন: Nsc Sohag | প্রকাশিত হয়েছে: মার্চ ২০, ২০১৭ , ৮:২১ অপরাহ্ণ | বিভাগ: বহির্বিশ্ব

ট্রাম্পের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করলেন জার্মান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী

২০ মার্চ ২০১৭, নিরাপদ নিউজ : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন জার্মান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী উরসুলা ভন ডার লিয়েন। তিনি বললেন, তার দেশ ন্যাটোর কাছে অনেক বেশি দেনা এমন অভিযোগ ঠিক নয়। ন্যাটোতে কোনো ডেবট একাউন্ট বা ঋণ সংক্রান্ত একাউন্ট নেই। তবে প্রতিরক্ষা ব্যয় বৃদ্ধির প্রতি প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছেন তিনি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন সিএনএন। এতে বলা হয়, ডনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি বলেছেন, প্রতিরক্ষা খাতে ব্যয় সামাল দেয়া যাচ্ছে না। ন্যাটোর অনেক সদস্যই তার প্রতিশ্রুত অর্থ দিচ্ছে না। অনেক দেশই দেনা হয়ে আছে। তিনি দাবি করেছেন ন্যাটোর কাছে জার্মানি প্রচুর অর্থ দেনা আছে (ভ্যাস্ট সামস অব মানি)। এর জবাবে রোববার জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রী একটি বিবৃতি দিয়েছেন। এতে তিনি বলেছেন, ন্যাটোতে কোনো ডেবট একাউন্ট নেই। ন্যাটোর প্রতিরক্ষা খাতে যে ব্যয় হয় সে অর্থ যায় জাতিসংঘ শান্তি মিশনে, ইউরোপিয়ান মিশনে এবং আইসিসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে। উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে ওয়াশিংটন সফর করেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেল। এ সময় যৌথ সংবাদ সম্মেলন করেন তারা। তখন ট্রাম্প বলেছেন, তিনি ন্যাটোর প্রতি কড়া সমর্থন জানান। তবে এক্ষেত্রে ন্যাটোভুক্ত মিত্রদের প্রতিরক্ষা খাতে ন্যায্য অর্থ দেয়া উচিত। তিনি বলেন, কয়েক বছর ধরে অনেক সদস্য দেশই প্রচুর অর্থের দেনা হয়ে আছে। তাই এভাবে অর্থ দেয়া যুক্তরাষ্ট্রের জন্য অত্যন্ত অন্যায্য। এসব দেশকে অবশ্যই তাদের প্রতিশ্রুত অর্থ পরিশোধ করতে হবে। উল্লেখ্য, চুক্তি অনুযায়ী ন্যাটো সদস্যরা তাদের যার যার জাতীয় প্রবৃদ্ধির শতকরা ২ ভাগ ন্যাটোতে খরচ করতে সম্মত হয়েছে। কিন্তু সেই অর্থ কাঙ্খিত মাত্রায় আসছে না। ন্যাটোর বার্ষিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২৮ সদস্যের এ সংগঠনে মাত্র পাঁচটি দেশ- যুক্তরাষ্ট্র, গ্রিস, পোল্যান্ড, এস্তোনিয়া ও বৃটেন তাদের টার্গেট পূরণ করেছে। তবে অন্যরা ২০২৪ সালের মধ্যে শতকরা ২ ভাগে পৌঁছনোর পরিকল্পনা করছে। এক্ষেত্রে প্রতিরক্ষা খাতে ব্যয় বৃদ্ধির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মারকেল। এ জন্য তাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ট্রাম্প।

Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterShare on LinkedIn0Digg thisShare on Tumblr0Email this to someonePin on Pinterest0Print this page

comments

Bangla Converter | Career | About Us