ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট নভেম্বর ২০, ২০১৯

ঢাকা শনিবার, ২৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৬ রবিউস-সানি, ১৪৪১

বিলিভ ইট অর নট, লিড নিউজ আজিমপুর করবস্থানে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় তরুণ-তরুণী! ভাইরাল ছবি নিয়ে প্রশ্ন…

আজিমপুর করবস্থানে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় তরুণ-তরুণী! ভাইরাল ছবি নিয়ে প্রশ্ন…

নিরাপদ নিউজ : সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কয়েকজন তরুণ-তরুণীর ছবি ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দাবি করা হচ্ছে, এতদিন গার্ডেন, উদ্যান কিংবা পার্কের মধ্যে প্রেম করতে দেখা গেলেও এবার আজিমপুর কবরস্থানেও এমন দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপে এসব ছবি পোস্ট করে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন নেটিজেনরা। তবে কেউ কেউ এই ছবির মন্তব্য নিয়ে উল্টো কথাও বলছেন।

ছবি তোলার ধরণ দেখে মনে হচ্ছে, কবরস্থানের পাশের কোনো এক বাড়ি থেকে ছবিগুলো তোলা হয়েছে। পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করতেই তা ভাইরাল হয়ে পড়ে।

নেটিজেনদের অভিমত, ছড়িয়ে পড়া ছবিতে তরুণী-তরুণী ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় দেখা যাচ্ছে। এজন্য ছবির ওই তরুণ-তরুণীদের তুলোধোনা করার পাশাপাশি ক্ষোভ প্রকাশ করছেন কবরস্থানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও। নেটিজেনদের ভাষ্য, কবরস্থানে নিশ্চই নিরাপত্তার জন্য লোক নিযুক্ত রয়েছে। তাহলে এরা ঢুকলো কীভাবে? আর ঢুকলেও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা লোকজন কী করছে।

তবে, সবাই যে বিষয়টা একইভাবে দেখছেন তা কিন্তু নয়। অনেকে এটাকে কবরস্থানের স্বাভাবিক ঘটনা বলে মনে করছেন। তাদের অভিমত, প্রিয়জন হারানোর কষ্টে তারা এভাবে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়তে পারে। যে কারণে একজন আগেরজনকে সান্ত্বনা দিচ্ছেন। তাই, ছবির অন্তনিহিত অর্থ না জেনে খারাপভাবে দেখা কিংবা মন্তব্য করা ঠিক হবে বলে মনে করছেন নেটিজেনদের এই অংশটি।

এ রকম চিন্তার একজন আবু আল বাশার। তিনি বলেন, ঘটনা সত্যি হলে খুবই দুঃখজনক ব্যাপার। তবে, আবার এমনও হতে পারে তাদের আত্মীয়স্বজন মারা গেছে, তাই আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েছেন। তার এই মন্তব্যের সঙ্গে অনেকেই সহমত জানান।

যদিও, বেশিরভাগ নেটিজেনই তরুণ-তরুণীদের অবাদ মেলামেশা হিসেবে দেখছেন। উম্মে কুলসুম নামের এক নেটিজেন লিখেছেন, ”এইরকম একটা সেন্সিটিভ জায়গায় মানুষই বা কিভাবে এত ‘জঘন্য’ কাজ করতে পারে! কবরস্থান এর পাশ দিয়ে গেলেও তো মানুষের মধ্যে ভয় কাজ করে। আর এরা কবরস্থান এর ভিতরে কি করে এইসব কাজ করে? আল্লাহ তুমি হেদায়েত দান করো আমাদের।”

একজন অবশ্য এর ভেতরে ধূমপানের দৃশ্য দেখেছেন বলে জানান। তিনি বলেন, কবরস্থানের ভিতরে যারা লেভার কাজ করে, আমি নিজে দেখেছি তারা ভিতরেই ধূমপান করছে, অশ্লীল গালাগালি করছে এদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা দরকার।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)