ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট নভেম্বর ২৭, ২০১৯

ঢাকা রবিবার, ৩০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৭ রবিউস-সানি, ১৪৪১

ক্রিকেট ‘আমি আদর্শ স্বামী; স্ত্রী যা বলে তাই শুনি’

‘আমি আদর্শ স্বামী; স্ত্রী যা বলে তাই শুনি’

নিরাপদ নিউজ : দুর্দান্ত ক্যারিয়ারের পাশাপাশি সুখী দাম্পত্য জীবন। ক্রিকেট মাঠের মতো দাম্পত্য জীবনেও ‘ক্যাপ্টেন কুল’ হয়ে থাকেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক এবার নিজেই ঘরের কথা গর্বিত ভাবে ঘোষণা করলেন। কীভাবে সংসার পর্বেও ঠান্ডা মাথায় একের পর এক ‘সেঞ্চুরি’ করে চলেছেন তিনি, সেটাও জানা গেল ধোনির মুখে। ধোনির ওই অনুষ্ঠানের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পরে স্বাভাবিক ভাবেই তা ভাইরাল হয়ে যায়। সেই অনুষ্ঠানে ধোনির স্ত্রী সাক্ষী ছিলেন কি না, তা অবশ্য জানা যায়নি।

চেন্নাইয়ে এক অনুষ্ঠানে ভারতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক বলেছেন, ‘আমি কিন্তু এক জন আদর্শ স্বামীর চেয়েও ভালো। কারণ, আমার স্ত্রী যাই বলে, আমি তাতেই সায় দিয়ে চলি। স্বামীরা তখনই খুশি হয়, যখন স্ত্রীরা খুশি থাকে। আমার স্ত্রী খুশি থাকে, কারণ ও যাই বলুক না কেন, আমি তাতেই হ্যাঁ বলে দিই।’

ধোনির কথা শুনে হাসিতে ফেটে পড়েন দর্শকরা। এখানেই শেষ নয়। ধোনি বহুল প্রচলিত এক প্রবাদ সামনে এনে বলেন, পুরুষ মাত্রেই সিংহ। পাশাপাশি যোগ করেন, ‘সব পুরুষের ক্ষেত্রেই ব্যাপারটা এক। বিয়ের আগে ছেলেরা সবাই সিংহ থাকে। তার পরে বদলে যায়।’ যা শুনে আবার হাসির রোল ওঠে। আর মাইক হাতে ধোনি বলতে থাকেন, ‘এই দেখুন। আবার আপনারা হাসছেন। কিন্তু এটাই হলো আসল ঘটনা!’

এখানেই শেষ নয়। দাম্পত্য জীবন নিয়ে আরও কথা বলেছেন ধোনি। ভারতের প্রাক্তন অধিনায়কের মতে, বিবাহ পর্বের প্রেম পূর্ণতা পায় যখন স্বামী-স্ত্রীর বয়স ৫০-৫৫ বছর হয়ে যায়। ধোনি বলেছেন, ‘আমার মতে, দাম্পত্য জীবনে আদর্শ প্রেমের সময় হলো যখন আপনার বয়স পঞ্চাশ পার হয়ে যাবে। এই ধরুন ৫৫ বছরে পৌঁছবেন। আসলে এই সময়টা আমরা কর্মজীবন থেকে ধীরে ধীরে দূরে সরে আসি। এত দিন আমাদের যা দৈনন্দিন জীবন হতো, যে রুটিন মেনে আমরা চলতাম, তা থেকে ফুরসত পাই। আমাদের হাতে সময় বাড়তে থাকে। তাই আমরা পরস্পরের কাছে আরও বেশি করে চলে আসি। অন্যদিকে, বিয়ে হওয়ার সময় আমাদের দাম্পত্য জীবনের পাশাপাশি অন্য কাজেও ব্যস্ত থাকতে হয়।’

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)