ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ২২ মিনিট ২৮ সেকেন্ড

ঢাকা শুক্রবার, ১১ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ২৮ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১

ধর্মকর্ম আল কোরআন ও আল হাদিস

আল কোরআন ও আল হাদিস

আল কোরআন

আল কোরআন

আল কোরআন

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম:সূরা আনআম,মক্কায় অবতীর্ণ

৫২. আর যে সব লোক সকাল সন্ধ্যায় তাদের রবকে ডাকে তাঁর সন্তুষ্টি কামনার উদ্দেশ্যে, তাদেরকে তুমি দূরে সরিয়ে দিয়ো না, তাদের হিসাব-নিকাশের কোন কিছুর দায়িত্ব তোমার উপর নয় এবং তোমার হিসাব-নিকাশের কোন কিছুর দায়িত্বও তাদের উপর নয়। এরপরও যদি তুমি তাদেরকে দূরে সরিয়ে দাও, তাহলে তুমি জালিমদের মধ্যে শামিল হয়ে যাবে।

৫৩. এমনিভাবেই আমি কিছু লোককে কিছু লোক দ্বারা পরীক্ষায় ফেলেছি, যাতে তারা বলে যে, ‘এরাই কি ঐ সব
লোক, আমাদের মধ্য থেকে যাদের প্রতি আল্লাহ অনুগ্রহ করেছেন?’ আল্লাহ কি কৃতজ্ঞদের সম্পর্কে ভালোভাবে অবগত নন?

আল হাদিস
৫ নং পরিচ্ছেদ
আল্লাহ, আল্লাহর রাসূল ও দীনের বিধি-বিধানের উপর ঈমান আনার নির্দেশ
১০। আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা)-এর দরবারে আবদুল কায়স গোত্রের একটি প্রতিনিধিদল উপস্থিত হলে তিনি জিজ্ঞেস করলেন, “তোমরা কোন গোত্রের লোক কিংবা কোন গোত্রের প্রতিনিধি? তারা জবাব দিল, ‘‘আমরা রাবী‘য়া গোত্রের লোক।” রাসূলুল্লাহ (সা) তাদের স্বাগতম জানিয়ে বললেন, “তোমাদের আগমন শুভ হোক; তোমরা লাঞ্ছনা এবং অনুতাপ ছাড়াই সহী-সালামতে উপস্থিত হয়েছো।’’ অতঃপর তারা বললো, “হে আল্লাহর রাসূল! আমাদের ও আপনার মাঝখানের এলাকায় আমাদের দুশমন কাফের মুদার গোত্রের আবাসস্থল বিধায় আমরা সম্মানিত মাসে ছাড়া অন্য সময় আপনার খেদমতে আসতে পারি না। সুতরাং আমাদেরকে সত্য ও মিথ্যার মধ্যে পার্থক্য সৃষ্টিকারী এমন কতিপয় বিষয় জানিয়ে দিন, যা আমরা নিজেরাও অনুসরণ করবো এবং যারা আমাদের সাথে আসতে পারেনি, তাদেরকে জানিয়ে আমরা জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবো।” তারা রাসূলল্লাহ (সা)-এর নিকট পানীয় দ্রব্যাদি
সম্পর্কেও জানতে চাইলো। তিনি তাদের চারটি বিষয়ের আদেশ দিলেন এবং চারটি বিষয়ে নিষেধ করলেন। তিনি তাদেরকে আল্লাহর একত্বের প্রতি ঈমান রাখার আদেশ দিলেন। তিনি তাদের জিজ্ঞেস করলেন, “তোমরা কি জান আল্লাহর একত্ব্রে প্রতি ঈমান আনার অর্থ কি? তারা বললো, এ বিষয়ে আল্লাহ ও তাঁর রাসূলই ভাল জানেন। তিনি বললেন, এ সাক্ষ্য দেয়া যে, আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ নেই এবং মুহাম্মদ (সা) আল্লাহর রাসূল। আর সালাত কায়েম করা, সম্পদের যাকাত দেয়া, রমযান মাসে রোযা রাখা আর তোমরা গনিমতের মালের এক-পঞ্চমাংশ দান করবে। আর তিনি সবুজ কলম, লাউয়ের শুকনা খোল, খেজুরগাছের কাণ্ডের পাত্র এবং আলকাতরা মাখানো বাসন, এই চারটি পান পাত্র ব্যবহার করতে নিষেধ করেছেন। তারপর তিনি বললেন, এ কথাগুলো মনে রেখো এবং অন্য লোকদের জানিয়ে দিয়ো।
(বুখারী-কিতাবুল ঈমান)

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)