ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট নভেম্বর ২৩, ২০১৯

ঢাকা রবিবার, ৬ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ২৩ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১

বিনোদন ইলিয়াস কাঞ্চনের ছবি বিকৃতি: ক্ষুব্ধ পরিচালক সমিতি

ইলিয়াস কাঞ্চনের ছবি বিকৃতি: ক্ষুব্ধ পরিচালক সমিতি

নিরাপদ নিউজ : জনপ্রিয় নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন ‘নিরাপদ সড়ক আন্দোলন’-এর প্রধান। ১৯৯৩ সালে মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রিয়তম স্ত্রী জাহানারা কাঞ্চনকে হারানোর পর থেকেই দুর্ঘটনামুক্ত ও নিরাপদ সড়কের জন্য আন্দোলন করতে দেশের একপ্রাপ্ত থেকে অন্যপ্রান্তে ছুটে বেরিয়েছেন। এর পরই বাংলাদেশের সড়কে ফোরলেন, সড়কে ডিভাইডার তৈরি, মহাসড়ক থেকে নছিমন-করিমন উঠিয়ে নেওয়া, প্রতিবছর নিরাপদ সড়ক দিবস পালন করা হচ্ছে।

এদিকে,পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা সারা দেশে পরিবহন ধর্মঘট ডেকে বিভিন্ন স্থানে শ্রমিকরা ‘নতুন সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮’ আইনটি তৈরির পেছনে ভূমিকা রাখার জন্য চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনকে ‘দায়ী’ করে তাঁর বিচারও দাবি করেছে। বিভিন্ন স্থানেই ঢাকাই চলচ্চিত্রের এই নায়কের ছবি ও ব্যানারও টানিয়ে সড়ক অবরোধ করেছে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সদস্যরা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম খোকন বলেন, ‘আমরা কাঞ্চন ভাইয়ের পাশে আছি। তিনি আমার অভিভাবক আমাদের পরিচালক সমিতির উপদেষ্টা।তিনি যেভাবে চাইবেন, আমরা তাঁর সঙ্গে আছি। যারা নোংরামি করছে, তারা দেশের ও সমাজের শত্রু। পরিচালক  সমিতির পক্ষ থেকে তীব্র প্রতিবাদ ও ধিক্কার জানাই।

চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক কবীরুল ইসলাম রানা(অপূর্ব-রানা) বলেন, কিশোরগঞ্জের কৃতি সন্তান, বাংলাদেশি চলচ্চিত্রের জীবন্ত কিংবদন্তি চিত্রনায়ক ও পরিচালক সমিতির উপদেষ্টা পরিষদের সন্মানিত সদস্য,’নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলনের মহানায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। যিনি কেরিয়ারের সর্বোচ্চ শিখরে থেকেও রাজপথে নেমে এসেছিলেন আমাদের দেশের সাধারণ মানুষকে সচেতন করে নিরাপদ সড়ক উপহার দেয়ার জন্য।

কখনো তিনি ছুটে চলেছেন বাংলাদেশের। আনাচে-কানাচে,কখনো মাইক হাতে দাড়িয়েছেন পথে-প্রান্তরে।যার ফলশ্রুতিতে দেশে সময়োপযোগী মোটরযান নিতিমালা হয়েছে।সচেতন হয়েছে অনেক মানুষ।

কিন্তুু কিছু মানুষ সারাদেশের মানুষকে জিম্মি করে তাদের স্বার্থ হাসিল করে যাচ্ছে বার বার।সেইসব অমানুষরা কাঞ্চন ভাইয়ের সাড়া জীবনের গড়ে তোলা মানসম্মান কে নষ্ট করার পায়তারায় নেমেছে,যা আমাদের দেশের সচেতন মানুষ কখনো হতে দেবেনা। কাঞ্চন ভাইয়ের সাথে আগেও ছিলাম, এখনও আছি,ভবিষ্যতেও থাকবো ইনশাআল্লাহ্‌।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)