ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট জুলাই ১৯, ২০১৬

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ৭ রবিউস-সানি, ১৪৪১

অন্যান্য খেলা, লিড নিউজ ওয়াইল্ড কার্ড মেজবাহ-শিরিনের হাতে

ওয়াইল্ড কার্ড মেজবাহ-শিরিনের হাতে

বাংলাদেশের দ্রুততম মানব মেজবাহ আহমেদ ও দ্রুততম মানবী শিরিন আক্তার

বাংলাদেশের দ্রুততম মানব মেজবাহ আহমেদ ও দ্রুততম মানবী শিরিন আক্তার

১৯ জুলাই, ২০১৬, নিরাপদনিউজ : অবশেষে রিও ডি জেনিরো অলিম্পিকে খেলার জন্য ওয়াইল্ড কার্ড পেয়েছেন বাংলাদেশের দ্রুততম মানব মেজবাহ আহমেদ ও দ্রুততম মানবী শিরিন আক্তার। গত ১৫ ‍জুলাই ছিল মেজবাহ ও শিরিনের জন্য ওয়াইল্ড কার্ড পাওয়ার শেষ সময়। কিন্তু সোমবার রাতে হঠাৎ করেই আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি) ওয়াইল্ড কার্ড দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায়।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) মহাপরিচালক ফখরুদ্দিন হায়দার বলেন, ‘আজ রাতে তারা আমাদের মেজবাহ ও শিরিনের ওয়াইল্ড কার্ড দেয়ার কথা জানিয়েছে।’

অবশ্য চূড়ান্ত সময়সীমা পেরুলেও ওয়াইল্ড কার্ড পাওয়ার আশায় ছিল বিওএ। এ কারণে কদিন আগে সংস্থাটির সভাপতির সঙ্গে অলিম্পিকগামী অ্যাথলেটদের মতবিনিময় সভায় ছিলেন মেজবাহ ও শিরিন। রিও ডি জেনিরো অলিম্পিকে যাওয়ার জন্য দুজনের ব্লেজারের মাপও নেওয়া হয়েছিল সেসময়।

জাতীয় অ্যাথলেটিক্সে মেজবাহ ও শিরিন টানা দ্বিতীয়বারের মতো ১০০ মিটার স্প্রিন্টে সেরা। গত আসরে ১২.২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেরা হন শিরিন; আগের বার ১২.২৪ সেকেন্ড টাইমিং করে সোনা জিতেছিলেন তিনি।

ছেলেদের ১০০ মিটারে সেরা হতে মেজবাহ সময় নেন ১০.৬০ সেকেন্ড। আগের সামার মিটে ১০.৪৩ সেকেন্ড টাইমিং করে সেরা হয়েছিলেন তিনি।

১৯৮৪ সালে লস অ্যাঞ্জেলস অলিম্পিকে বাংলাদেশের প্রথম স্প্রিন্টার হিসেবে অংশ নেন সেসময়ের দ্রুততম মানব সাইদুর রহমান ডন। এরপর থেকে প্রতি আসরে ওয়াইল্ড কার্ড নিয়ে বাংলাদেশের স্প্রিন্টাররা অলিম্পিকে অংশ নিচ্ছে। এবার সে ধারায় ছেদ পড়ার আশঙ্কা জেগেছিল। সোমবার রাতে তা দূর হলো। বিডি নিউজ।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)