ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট মার্চ ১৭, ২০২০

ঢাকা শনিবার, ২১ চৈত্র, ১৪২৬ , বসন্তকাল, ৯ শাবান, ১৪৪১

লিড নিউজ, শিক্ষা করোনা ভাইরাস,শিক্ষার্থীরা সাবধান: বিনা কারণে বাইরে ঘোরাফেরা করলে ব্যবস্থা

করোনা ভাইরাস,শিক্ষার্থীরা সাবধান: বিনা কারণে বাইরে ঘোরাফেরা করলে ব্যবস্থা

নিরাপদ নিউজ: করোনা ভাইরাস ইস্যুতে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। স্কুল-কলেজ বন্ধের সুযোগে শিক্ষার্থীরা বাইরে অকারণে বের হলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে মন্ত্রিপ‌রিষদ স‌চিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, অভিভাবকেরা নিশ্চিত করবেন যে, তাদের ছেলেমেয়েরা একাকি যেন বাইরে ঘুরে না বেড়ায়। তাদের ছুটি দেওয়াই হচ্ছে সেফটির জন্য। বাইরে ঘোরাফেরা করলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। একা একা যেন বাইরে না যায়, অভিভাবকদের সঙ্গে যেতে পারে।

তিনি বলেন, আরেকটা জিনিস অনুরোধ করি- মসজিদ, মাদরাসা ও পেপারের মাধ্যমে বলে দেবেন- যদি কারো জ্বর এবং সর্দি-কাশি হয় তিনি যেন কোনো পাবলিক প্লেসে না আসেন। মসজিদ বা অফিসেও না। আমরাও অফিসে বলে দিয়েছি জ্বর এবং সর্দি-কাশি থাকলে সে অফিসে আসবে না। স‌চিব আরও বলেন, বিদেশ থেকে যারা আসবে। তারা সরকারি অনুষ্ঠান ও যেকোনো ট্রেনিং থেকে আসলে সকলকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকবে। এ বিষয়ে কোন ছাড় নেই। যদি কেউ এটা অমান্য করে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, শিক্ষার্থীরা যদি ঘরের বাইরে অকারণে ঘুরে বেড়ায় তাহলে স্কুল-কলেজ বন্ধের সিদ্ধান্ত কোনো কাজে আসবে না। আর তাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের পর শিক্ষার্থীদের ঘরে রাখার দায়িত্ব অভিভাবকদেরই নিতে হবে। এখনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের মতো পরিস্থিতি হয়নি, তারপরও সতর্কতামূলক ব্যবস্থার অংশ হিসেবে এ সিদ্ধান্ত।

উল্লেখ্য, দেশে এখন পর্যন্ত মোট ১০ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন দুই সহস্রাধিক। বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৬ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ভাইরাসটিতে এখনও পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন ১ লাখ ৬৯ হাজার ৫১৫ জন। আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৮৫ হাজার ২৪৭ জন। চিকিৎসাধীন ৭৯ হাজার ৩২৬ জনের অবস্থা স্থিতিশীল। আর ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছেন ৫ হাজার ৯২১ জন। এ ভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে ৭৭ হাজার ৭৫৩ জন সুস্থ হয়েছেন।

চীনে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজার ৮৫৯ জন; আর প্রাণ হারিয়েছেন ৩ হাজার ২১৩ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ হাজার ৭৪৭ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৮০৯ জন।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)