ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড

ঢাকা শুক্রবার, ৪ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ২১ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি ‘গবেষণা, শিল্পায়ন ও জাতীয় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে ডিআরআইসিএম’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

‘গবেষণা, শিল্পায়ন ও জাতীয় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে ডিআরআইসিএম’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

বিশ্ব পরিমাপ দিবস ২০১৬ উপলক্ষ্যে 'গবেষণা, শিল্পায়ন ও জাতীয় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে ডিআরআইসিএম' শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

বিশ্ব পরিমাপ দিবস ২০১৬ উপলক্ষ্যে ‘গবেষণা, শিল্পায়ন ও জাতীয় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে ডিআরআইসিএম’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

২৪ মে, ২০১৬, নিরাপদনিউজ : বিশ্ব পরিমাপ দিবস ২০১৬ উপলক্ষ্যে সপ্তাহব্যাপী আয়োজনের চূড়ান্ত পর্যায়ে বিসিএসআইআর-এর ডেজিগনেটেড রেফারেন্স ইনস্টিটিউট ফর কেমিক্যাল মেজারমেন্টস্ (ডিআরআইসিএম)-এ ২৪ মে ২০১৬, মঙ্গলবার “গবেষণা, শিল্পায়ন ও জাতীয় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে ডিআরআইসিএম” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা জনাব ইকবাল সোবহান চৌধুরী এবং বাংলাদেশ এটমিক এনার্জি রেগুলেটরি অথরিটি’র চেয়ারম্যান, অধ্যাপক নঈম চৌধুরী।

সন্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মীর মশাররফ হোসেইন, দি ডেইলি অবজার্ভার পরিচালক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, মোহাম্মদী গ্রুপ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জনাব মো: নজরুল ইসলাম, চেয়ারম্যান, বিসিএসআইআর।

শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিএসআইআর-এর সদস্য (প্রশাসন) জনাব মো: আলেফ উদ্দিন।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির প্রকল্প পরিচালক ও ইনচার্জ ড. মালা খান। তিনি তার বক্তব্যে সূচনালগ্ন থেকে সরকারের আন্তরিক পৃষ্ঠপোষকতার ডিআরআইসিএম-এর অগ্রযাত্রা, সাফল্য ও অর্জন তুলে ধরেন।

তিনি জানান ডিআরআইসিএম কেমিক্যাল মেট্রোলজি সংক্রান্ত বাংলাদেশের সর্বপ্রথম ও একমাত্র ইনস্টিটিউট, যা গত ১০ জুন ২০১২ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ডিআরআইসিএম-এর শুভ উদ্বোধন করেন।

তিনি উল্লেখ করেন, কেমিক্যাল মেট্রোলজি সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক কর্মকান্ডে বাংলাদেশের প্রথম উপস্থিতি এবং অবদান একটি যুগপৎ বৈজ্ঞানিক-কারিগরী ও কুটনৈতিক বিজয় যা এ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক ফোরামে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে। বাংলাদেশের পণ্য রপ্তানী বাণিজ্যে কারিগরী বাধাসমূহ (Technical Barriers to Trade TBT & Sanitary and Phyto Sanitary Measures SPS) দূরীকরণের ক্ষেত্রে এটি একটি মাইল ফলক অর্জন।

ড. মালা খান আরও জানান, ডিআরআইসিএম নিয়মিতভাবে আমদানী, রপ্তানী, শিল্পোৎপাদন ও শিক্ষা-গবেষণায় নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিশ্লেষণ সেবা প্রদান করে। সেবা গ্রহীতা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে আমেরিকার ঔষধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান Occucare, জার্মানির কেমিক্যাল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান BASF, ফ্রান্স ভিত্তিক ইন্সপেকশন ও সার্টিফিকেশন বডি ব্যুরো ভ্যারিতাস, আমেরিকার গবেষণা প্রতিষ্ঠান এলগাসোল লিমিটেড, ইউরোপিয়ন কমিশন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের টিসিবি, প্রাণ আরএফএল গ্রুপ, আকিজ ফুড এন্ড বেভারেজ লি:, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড, ম্যারিকো ইন্টারন্যাশনাল, এসিআই, স্কয়ার কনজুমার প্রোডাক্ট, ইস্পাহানী, এলিট কসমেটিকস, জিএসবি, সিআইডি, প্রভাতি ইন্সপেকশন, কার্বন মাইনিং বাংলাদেশ লিমিটেড, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় অন্যতম।

ডিআরআইসিএম-এর প্রকল্প পরিচালক ও ইনচার্জ ড. মালা খান তার উপস্থাপনায় আর্থসামাজিক উন্নয়নে ডিআরআইসিএম-এর তাৎপর্যের কথা উল্লেখ করেন।

তিনি ডিআরআইসিএম-এর সাফল্যের পেছনে সরকারের নিরবচ্ছিন্ন উৎসাহ, প্রেরণা ও পৃষ্ঠপোষকতার কথা উল্লেখ করেন। ডিআরআইসিএম কেবল আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জন করেছে তাই নয়, সাথে সাথে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন ও দেশীয় শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোকে আন্তর্জাতিক সেবা প্রদানের মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয়ের সুযোগ সৃষ্টি করেছে। (ইত:পূর্বে এ সকল অধিকাংশ সেবার জন্য বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় করে বিদেশের উপর নির্ভরশীল থাকতে হতো)।

প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বায়নে সেবার মান সমুন্নত রেখে ডিআরআইসিএম ইতো:মধ্যে ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড, ব্যুরো ভেরিতাস, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ, আকিজ ফুড এন্ড বেভারেজ লিমিটেড, কিউটেক্স সল্যুইশান এবং এলগাসল বাংলাদেশ লিমিটেড এর সাথে সেবা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

এছাড়াও ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, রাহমানিয়া অর্গানিক এগ্রো লি: এন্ড আপডেট ফিশারস্ ,  ডিপার্টমেন্ট অব এন্ডোক্রাইনোলজি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় এবং টেকনো-ইকোনমিক ইন্ডাষ্ট্রিয়াল এন্ড এগ্রিকালচারাল রিসার্চ ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ ডিআরআইসিএম-এর সাথে সেবা চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য আগ্রহ ব্যক্ত করে বিসিএসআইআর কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেছে।

কেমিক্যাল মেট্রোলজিতে দক্ষ মানব সম্পদ উন্নয়নের লক্ষ্যে ডিআরআইসিএম নিয়মিতভাবে বিশ্ববিদ্যালয়, গবেষণাগার, শিল্প প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞানী/কর্মকর্তাদের জন্য বিশেষায়িত প্রশিক্ষণ আয়োজন করে থাকে।

এর ধারাবাহিকতায় আধুনিক বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতিতে ২২০ জন, ক্যালিব্রেশন পদ্ধতিতে ২২ জন ও গবেষণাগারের মান আইএসও ১৭০২৫-তে ৩৪ জনসহ মোট ২৭৬ জনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করেছে।

ইতমধ্যে এখানে ১৮ ধরনের ক্যালিব্রেশন সেবা সৃষ্টি করা হয়েছে। বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান ও গবেষণাগারগুলোতে নিয়মিতভাবে এ সেবা প্রদাণ করা হচ্ছে।

বাংলাদেশে কেমিক্যাল মেট্রোলজি অবকাঠামো প্রতিষ্ঠায় অসামান্য অবদানের জন্য সম্প্রতি মেট্রোলজি সংক্রান্ত প্রশান্ত মহাসাগরীয় সর্বোচ্চ আঞ্চলিক সংস্থা (APMP) ডিআরআইসিএম-এর প্রকল্প পরিচালক ড. মালা খান-কে “2015 APMP DEN Award”-এ ভূষিত করেছে।

সর্বোপরি দেশে এবং বিদেশে ডিআরআইসিএম ইনস্টিটিউট কর্তৃক প্রদত্ত সেবা ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছে।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা জনাব ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন বর্তমান সরকার জ্ঞান বিজ্ঞানের একনিষ্ঠ  পৃষ্ঠপোষক। তিনি এ বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রত্যক্ষ উদ্যোগের কথা উল্লেখ করেন। তিনি ডিআরআইসিএম-এর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ড. মালা খানের গৃহীত উদ্যোগের প্রশংসা করে তার আগামী দিনগুলো প্রতিবন্ধকতা মুক্ত রাখতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি জাতির জনকের স্বপ্নের বাংলাদেশ গঠনে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এছাড়া তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত সদিচ্ছার কথা উল্লেখ করে বর্তমান সরকারের বিজ্ঞান মনোভাবের পরিচয় তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ এটমিক এনার্জি রেগুলেটরি অথরিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক নঈম চৌধুরী দেশের আর্থসামাজিক ও শিল্প উন্নয়নে বিসিএসআইআর-এর ভূমিকার প্রশংসা করেন। অতি অল্প সময়ের ব্যবধানে ডিআরআইসিএম-এর সাফল্য, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পরিচিতির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন ডিআরআইসিএম-এর কার্যক্রমে তিনি অত্যন্ত আশাবাদী।

ডিআরআইসিএম-কে আরও প্রতিভাবান প্রতিযোগী হিসেবে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার মাধ্যমে দেশ ও জাতির সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। কেমিক্যাল মেট্রোলজির ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় করিগরী যোগ্যতা প্রমাণ করে ডিআরআইসিএম মেট্রোলজি সংক্রান্ত সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক সংস্থা Bureau International des Poids et Measures (BIPM) ও এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় সর্বোচ্চ আঞ্চলিক সংস্থা Asia Pacific Metrology Program (APMP)-র সদস্যপদ অর্জনকে দেশের গৌরব হিসেবে উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান ও গবেষণাগারের প্রতিনিধিগণ সরকারের যুগোপযোগী উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত ডিআরআইসিএম-এর সেবা ও অবদানের ভূয়ষী প্রশংসা করে The Water Tech-এর প্রতিনিধি জনাব এএএম সাইফুল ইসলাম,  DPHE-এর চীফ কেমিষ্ট জনাব আব্দুস সাত্তার মিয়া, আকিজ ফুড এন্ড ব্যাভারেজ লি:-এর প্রতিনিধি জনাব সানোয়ার পারভেজ, ইস্পাহানি ফুডস লিমিটেড এর প্রতিনিধি জনাব মো: আসিফুর রহমান চৌধুরী,  রহমানিয়া অরগানিক এগ্রো ইন্ডাষ্ট্রিজ এর চেয়ারম্যান, জনাব প্রফেসর মো: ফকরুল ইসলাম শিকদার,  Beacon Pharmaceuticals-এর প্রতিনিধি জনাব এনামূল হাসান এবং OSS-এর প্রতিনিধি ইঞ্জিনিয়ার রোমান বক্তব্য রাখেন।

এ পর্যায়ে সেমিনারের সম্মানিত অতিথি দি ডেইলি অবজার্ভার-এর পরিচালক ও মোহাম্মদী গ্রুপ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মীর মোশাররফ হোসেইন বলেন ডিআরআইসিএম তার স্বল্প দিনের যাত্রায় অত্যন্ত সফলভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি ভিশন ২০২১ অর্জনের লক্ষ্যে সরকারের বলিষ্ঠ ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন এবং সকলকে বিশ্ব প্রতিযোগিতায় নিজেদের আবস্থান দৃঢ়করণের প্রতি গুরুত্ব প্রদান করেন।

এ পর্যায়ে সেমিনারের সভাপতি ও বিসিএসআইআর-এর সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব মো: নজরুল ইসলাম তার বক্তব্যে রূপকল্প ২০২১ অর্জনে বিসিএসআইআর এবং ডিআরআইসিএম-এর অগ্রনী ভূমিকা পালনের আশাবাদ ব্যক্ত করে সকলকে ধন্যবাদ জানান।

সেমিনারের প্রধান অতিথি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান তার বক্তব্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার শাসন ব্যবস্থার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে মাননীয় প্রধনমন্ত্রীর ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন। সাধারন মানুষের হাতে প্রযুক্তি পৌঁছে দেওয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সাধারন মানুষ প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারলেই সময় ও অর্থের অপচয় রোধ করা সম্ভব হবে।

তিনি ছন্দের মাধ্যমে সবাইকে উৎসাহিত ও উজ্জীবিত করণের মাধ্যমে বলেন, বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে যাবে। মেট্রোলজি নিয়ে ডিআরআইসিএম-এর উদ্যোগের কথা উল্লেখ করে তিনি জ্ঞান বিজ্ঞানের পথে নবীনদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ নবীনদের উচ্ছাসকে এগিয়ে নিতে ও তাদের কর্মজীবনের পথ সুগম করতে সকলের প্রতি অনুরোধ জানান। প্রবীনদের অভিজ্ঞতা ও নবীনদের উদ্যোমে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে এই আশা ব্যক্ত করে তিনি তার মূল্যবান বক্তব্য শেষ করেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)