ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৫৪ মিনিট ৪ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ৮ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ২৪ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১

বহির্বিশ্ব, লিড নিউজ গুজরাট দাঙ্গায় মোদি সরকারকে ক্লিনচিট

গুজরাট দাঙ্গায় মোদি সরকারকে ক্লিনচিট

নিরাপদ নিউজ: ২০০২ সালের গুজরাট দাঙ্গায় রাজ্যটির তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকারকে ক্লিনচিট (দোষ থেকে মুক্তি) দিয়েছে নানাবতী কমিশন। মোদি ছাড়াও সেসময় অন্য মন্ত্রীরা ও সচিবদেরও ক্লিনচিট দিয়েছে কমিশন।

বুধবার গুজরাট বিধানসভায় কমিশনের চুড়ান্ত রিপোর্ট পেশ করা হয়। রিপোর্ট পেশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রদীপ সিং জাদেজা। ১৫০০ পৃষ্টার ওই রিপোর্টে কমিশন জানায়, ‘গোধরা পরবর্তী পরিস্থিতিতে গুজরাট জুড়ে যে দাঙ্গা হয়েছিল পরিকল্পনামাফিক করা হয়নি। তাতে রাজ্যের কোনো মন্ত্রীর অনুপ্রেরণা, প্ররোচনা ছিল না।’

রিপোর্টে আরও জানানো হয়, ‘দাঙ্গার সময়কালে পুলিশ খুবই নিষ্ক্রিয় ছিল, তার কারণ অত সংখ্যক উন্মত্ত জনতাকে নিয়ন্ত্রণ করার মতো পুলিশের কাছে পর্যাপ্ত সদস্য ছিল না এবং প্রশিক্ষিতও ছিল না।’
উল্লেখ্য, ২০০২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে গোধরার কাছে সবরমতি এক্সপ্রেসে অগ্নিসংযোগ ঘটানো হয়। তাতে আগুনে পুড়ে মৃত্যু হয় ৫৯ জন হিন্দু কর সেবকের। আর ওই ঘটনার পরই রাজ্য জুড়ে দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে।

পরিসংখ্যানে জানা যায়, ওই দাঙ্গায় ১০৪৪ জন মানুষের মৃত্যু হয়। এর মধ্যে অধিকাংশই ছিলেন মুসলিম। যদিও বেসরকারি হিসাবে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ২ হাজারেরও বেশি। আহতের সংখ্যা প্রায় আড়াই হাজারেরও বেশি। সেসময় বহু নারীর ওপরও অত্যাচার ও ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে।

ওই দাঙ্গার পর ২০০২ সালেই তদন্তের জন্য নানাবতী কমিশন গঠন করেন নরেন্দ্র মোদি। পাঁচ বছর আগে ২০১৪ সালে গুজরাট সরকারের তৎকালনীন মুখ্যমন্ত্রী আনন্দী বেন প্যাটেলের কাছে এই রিপোর্ট জমা দেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জি.টি. নানাবতী ও অক্ষয় মেহতা গঠিত নানাবতী কমিশন। এরপর বুধবার বিধানসভায় অধিবেশনে ওই রিপোর্ট সামনে আসে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)