ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ফেব্রুয়ারী ৫, ২০১৫

ঢাকা রবিবার, ৬ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ২২ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১

মতামত টেলিভিশন সংবাদ উপস্থাপনা

টেলিভিশন সংবাদ উপস্থাপনা

শামীম আল আমিন

শামীম আল আমিন

ঢাকা, ০৫ জানুয়ারি ২০১৫, নিরাপদনিউজ : একযুগের সময়ের রিপোর্টার শামীম আল আমিনের অন্য পরিচয় সংবাদ উপস্থাপক। মানুষের খবর জানান, সঞ্চালন করেন টকশো একাত্তর জার্লাল। সংবাদভিত্তিক জনপ্রিয় টেলিভশন ‘একাত্তর’র এসাইনমেন্ট এডিটর। শিক্ষানবিস হিসাবে কাজ করেছেন বিবিসি বাংলা বিভাগে। এরপর একাধারে নানা দায়িত্বে ছিলেন দৈনিক প্রথম আলো, চ্যানেল ওয়ান, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এবং ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনে।
সঞ্চালক ছিলেন চ্যানেল ওয়ানের টকশো ‘নির্বাচিত খবর’র। দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ নানা দেখেছেন চোখের সামনে। দেশের দু’টি সংবাদ নির্বাচনসহ স্থানীয় পর্যায়ের অনেক নির্বাচন কাভার করেছেন। যুক্তরাজ্যের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন এবং ভারতের ১৬তম লোকসভা নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহের মধ্য দিয়ে প্রত্যক্ষ করেছেন দুটি গণতন্ত্রের স্বরূপ। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ, ডেনমার্কের জলবায়ু সম্মেলন কিংবা ভুটানের সার্ক র্শীষ সম্মেলনে যোগ দিয়ে দেখেছেন আন্তর্জাতিক রাজনীতি নানাদিক। কাজের কারণে আরও ঘুরেছেন- শ্রীলংকা, নেপাল, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, জাপান, যুক্তরাজ্য, গ্রিস, ইতালি, ফ্রান্স, সুইডেন এবং জার্মানি। পড়াশোনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে। এমএসএস পরীক্ষায় হন প্রথম শ্রেণীতে প্রথম। একই বিভাগ থেকে অর্জন করেন স্নাতক ডিগ্রিও। সাংবাদিকতার জন্য বেশ কয়েকটা পুরস্কারও পেয়েছেন। গণমাধ্যম নিয়ে লেখালেখি করেন নিয়মিত। এছাড়া লেখেন গল্প-উপন্যাস। বিতার্কিক হিসেবেও খ্যাতি আছে তার। জন্ম ১৯৭৯ সালের ১ জানুয়ারি ঢাকার শান্তিবাগে।
গণমাধ্যমের বিভিন্ন দিক নিয়েই বাংলা ভাষায় প্রচুর বই দরকার। এবিষয়ে গবেষণার পাশাপাশি, যারা এসব মাধ্যমে কাজ করেছেন তাদের অভিজ্ঞাতা নিয়েও লেখা প্রয়োজন। যেহেতু বিষটি নিত্য পরিবর্তনশীল, সেহেতু যিনি কাজের মধ্যে আছেন, তার মত ও অভিজ্ঞাতার একটি বিশেষ কারণ আছে। অনুজপ্রতিম শামীম আল আমিন বিষয়গুলো নিয়ে ধারাবাহিকভাবে লিখেছেন, এটি আমাদের জন্য আনন্দের বিষয়। গণমাধ্যমের কাজের মধ্যে তিনি ভীষণভাবেই আছেন; ক্যামেরার সামনে ও পেছনে- দুদিকেই। এটি গুরুত্বপূর্ণ, কারণ সাংবাদিক শামীম আর উপস্থাপক শামীমের মধ্যে অন্তত কোন পার্থক্য দেখি না। দুক্ষেত্রেই তার সফল উপস্থিতি লক্ষ্য করি। এই একটি ভেদাভেদে কিন্তু বাংলাদেশের টেলিভিশনগুলোতে বরাবর চলে আসছে। তার ঐতিহাসিক কারণ থাকলেও বর্তমানে শামীম ও তার সমসাময়িকদের পক্ষে ভালো সাংবাদিক না হয়ে- ভালো উপস্থাপক হওয়া আর সম্ভব নয়। কেন নয়; তা নিয়ে বইটিতে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। উপস্থাপক একাধারে সংবাদমাধ্যমের; আবার দর্শকেরও প্রতিনিধি। পর্দার আড়ালে সংবাদসংগ্রহের একটি বিশাল কর্মযজ্ঞের প্রকাশ্য অংশ জুড়ে থাকেন উপস্থাপক।
তারকাখ্যাতির সম্ভাবনা আছে ঠিকই, দায়িত্ব সম্পাদনে শারীরিক ও মানসিক চাও অনেক; যা সবার পক্ষে নেয়া সম্ভব হয় না। আর উপস্থাপনার ব্যবহারিক দিকগুলো প্রশিক্ষণ চর্চার মাধ্যমে আয়াত্ত করা সম্ভাব হলেও ভাল উপস্থাপকের যে ব্যক্তিত্ব ও বুদ্ধিমত্তা থাকা প্রয়োজন; অন্তত থাকবে বলে আশা কা হয়- তা দীর্ঘদিনে প্রস্তুতি ও মানসিক বিকাশ ছাড়া গঠিত হয় না। উপস্থাপনার বিষয়টি যে কেবল মেকআপ নিয়ে ক্যামেরার সামনে বসে যাওয়া নয়, তা জানলেও অনেকে মানেন না। শামীমের এই বইটি তাই সংবাদ উপস্থাপনার বিষয়ে পাঠকের সাধারণ কৌতুহল মিটিয়েও, অতিরিক্ত কিছু দেবে বলে আশা করছি।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)