ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১৭ মিনিট ১৮ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ১৬ চৈত্র, ১৪২৬ , বসন্তকাল, ৫ শাবান, ১৪৪১

ভ্রমন তথ্যচিত্রে খাদিমনগর জাতীয় উদ্যান ও বুরজান চা-বাগান

তথ্যচিত্রে খাদিমনগর জাতীয় উদ্যান ও বুরজান চা-বাগান

সিলেট থেকে ফিরে নাসিম রুমি
নিরাপদ নিউজ: গত ১৯ ফেব্রুয়ারি সিলেটের খাদিমনগর জাতীয় উদ্যান ও বুরজান চা-বাগান সফরে করি। আমার সফরসঙ্গী ছিলেন নিসচার সিলেট মহানগর শাখা সভাপতি এম ইকবাল হোসেন। সিলেট শহর থেকে ১৩.০০ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে সিলেট সদর উপজেলায় অবস্থিত। নতুন এই পর্যটন স্থানটি খুবই নিরিবিল ও মনোরম।

বুরজান চা-বাগানে লেখকের সাথে এম ইকবাল হোসেন

সিলেট জেলা সদর থেকে সিলেট-তামাবিল সড়কে সিএনজি, অটো-রিকশা অথবা বাসযোগে ৮.০০ কিলোমিটার দূরত্বে হযরত শাহ্‌ পরাণ (রাঃ) এর মাজার পার্শ্ববর্তী খাদিম চৌমোহনা হতে সোজা উত্তরে ৫.০০ কিলোমিটার সড়ক পথে খাদিমনগর জাতীয় উদ্যানে যাওয়া যায়।
আকর্ষণীয় বাঁশ-বেত সহ বিভিন্ন উদ্ভিত এবং বিরল প্রজাতির বন্যপ্রাণীর আবাস স্থল খাদিমনগর জাতীয় উদ্যান প্রকৃতি ভ্রমন ও শিক্ষা-গবেষণার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এই উদ্যানটি ৬ টি নয়নাভিরাম চা বাগান দ্বারা পরিবেষ্টিত।

বুরজান চা-বাগানের ভিউ পয়েন্ট

খাদিমনগর জাতীয় উদ্যানের চারদিকে এবং বনের মধ্যে বিভিন্ন স্থানে বেশ কিছু প্রাকৃতিক ছড়া রয়েছে, যেগুলোতে সারা বছরই পানি প্রবাহমান থাকে। বনের ভেতরে দুইটি পায়ে হাঁটা পথ বা ট্রেইল আছে। উভয় ট্রেইলে প্রাকৃতিক ছড়া দৃশ্যমান। এছাড়া আছে সৌন্দর্যমণ্ডিত সবুজ পাহাড়ি টিলা, বিভিন্ন প্রজাতির আকর্ষণীয় বন্যপ্রাণীসহ দৃষ্টিনন্দন বৃক্ষরাজি। ২ ঘণ্টার ট্রেইলে দেখা মিলবে ঐতিহাসিক বোমা ঘর (কথিত আছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এখানে সমরাস্ত্র রাখা হতো)।

খাদিমনগর বন বিভাগ

আধুনিক পর্যটন সুবিধার অংশ হিসেবে রয়েছে-রেস্টিং বেঞ্চ ও শেড, গাড়ি পার্কিং, পিকনিক স্পট, টয়লেট সুবিধা, ট্যুরিস্ট শপ এবং আগে থেকে বুকিং সাপেক্ষে রয়েছে সিলেটের ঐতিহ্যবাহী খাবার সরবরাহের ব্যবস্থা।
খাদিমনগর জাতীয় উদ্যান ভ্রমন শেষে বুরজান চা বাগান হয়ে মাত্র ২০ মিনিট এর দূরত্বে আরো ভ্রমন করতে পারেন রাতারগুল বিশেষ জীববৈচিত্র্য সংরক্ষন এলাকা।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)