আপডেট ৫১ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১২ রবিউস-সানি, ১৪৪১

নিসচা সংবাদ, লিড নিউজ নতুন আইনে কর্মকর্তাদের দুর্নীতি, অবহেলায় দুর্ঘটনা ঘটলে তাদেরও বিচার হবে: ইলিয়াস কাঞ্চন

নতুন আইনে কর্মকর্তাদের দুর্নীতি, অবহেলায় দুর্ঘটনা ঘটলে তাদেরও বিচার হবে: ইলিয়াস কাঞ্চন

নিরাপদ নিউজ : নতুন আইনে কর্মকর্তাদের দুর্নীতি, অবহেলায় দুর্ঘটনা ঘটলে তাদেরও বিচারের আওতায় আনা হবে ,এই আইনে শুধু যে চালকদের জন্য জরিমানার ব্যবস্থা করা হয়েছে তা কিন্তু নয়। এখানে চালক,মালিক,যাত্রী/পথচারী সকলের জন্য আইনে নিয়ম ভঙ্গকারির জন্য জেল জরিমানার কথা উল্লেখ রয়েছে। আজ রবিবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে সমকাল কার্যালয়ে ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্টদের করণীয়’ শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এসিআই মোটরস এর সহযোগিতায় সমকাল ও নিরাপদ সড়ক চাই’র (নিসচা) আয়োজনে এ গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্যে এসব কথা বলেন,নিসচা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আড়াই দশক আন্দোলনের স্বীকৃতি হিসেবে একুশে পদকপ্রাপ্ত ইলিয়াস কাঞ্চন প্রারম্ভিক বক্তব্যে ২০১৬ সালে পাশ হওয়া সড়ক পরিবহন আইন এর খসড়ার পূর্বের পেক্ষাপট তুলে ধরেন। ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮’ এর গেজেট জারি করা হলেও তার কার্যকারিতা ঝুলে ছিল। গত বছর অগাস্টে আইনের খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় সরকার। জাতীয় সংসদে পাস হওয়ার পর গত বছরের ৮ অক্টোবর ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮’ এর গেজেট প্রকাশ হয়। এরপর বহুল আলোচিত সড়ক পরিবহন আইন ১ নভেম্বর থেকে কার্যকর শুরু হয়।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন এই আইনে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনায় সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের বিধান রয়েছে বলা হয়েছে কিন্তু সর্বনিম্ন শাস্তি কি তা তুলে ধরা হয়নি। তিনি এমন অনেক গুলো আইনের ধারা উল্লেখ করে তার সঙ্গতি অসঙ্গতি গুলো তুলে ধরেন। সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের পরও ১৪ দিন সময় দেওয়া হয়েছে গাড়ির কাগজপত্র হালনাগাদে। বারবার ছাড় দেওয়া হলে মানুষের মধ্যে আইন মানার মানসিকতা থাকে না বলেও উল্লেখ করেন ইলিয়াস কাঞ্চন।

ইলিয়াস কাঞ্চন আরও বলেন, একটি বাস রাস্তায় চললে দিনে ১০ হাজার টাকা আয় হয়। ৫০০ টাকা জরিমানা দিয়ে তাই ফিটনেসবিহীন গাড়ি সড়কে চলত। এখন আর সেইসব সুযোগ এখানে নেই। নতুন আইনে কর্মকর্তাদের দুর্নীতি, অবহেলা দুর্ঘটনা ঘটলে তাদেরও বিচারের আওতায় আনা হয়েছে। এছাড়াও ইলিয়াস কাঞ্চন আরো বলেন নতুন এই আইনে শুধু যে চালকদের জন্য জরীমানার ব্যবস্থা করা হেয়েছে তা কিন্তু নয়। এখানে চালক,মালিক,যাত্রী/পথচারী সকলের জন্য আইনে নিয়ম ভঙ্গকারির জন্য জেল জরিমানার কথা উল্লেখ রয়েছে। আইন না মানা এই সংস্কৃতি থেকে সকলকে বেরিয়ে আসতে হবে। নতুবা শাস্তির আওতায় আসা অবধারিত। ইলিয়াস কাঞ্চন সড়কে চলাচলে সকলকে সচেতন হতে আহবান জানান।নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) এর চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন , সড়ক নিরাপত্তা আইন-২০১৮ বাস্তবায়নের মদ্ধদিয়ে সড়কে দুর্ঘটনা কমবে বলে আমরা আশাবাদী।

সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফির সঞ্চলনায় গোলটেবিলে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, নিসচা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন, হাইওয়ে পুলিশের প্রধান ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান, সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ড. কামরুল আহসান, সাবেক চেয়ারম্যান আইয়ুবুর রহমান, ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দুর্ঘটনা গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান, ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মফিজ উদ্দীন আহম্মেদ, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ, সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী, ঢাকা মহানগর পুলিশের উত্তর ট্রাফিকের উপ-কমিশনার প্রবীর কুমার রায়, ট্রাক কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন মজুমদার, সড়ক দুর্ঘটনায় প্রয়াত সাংবাদিক মিশুক মুনীরের স্ত্রী মঞ্জুলী কাজী, এসিআই মোটরস এর বিজনেস ম্যানেজার রবিউল হক। ধন্যবাদ বক্তব্য দেন নিসচা’র মহাসচিব সৈয়দ এহসানুল হক কামাল।

গোলটেবিল আলোচনায় আরও উপস্থিত ছিলেন নিসচা’র যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদ, সাদেক হোসেন বাবুল,বেলায়াত হোসেন খান, গণি মিয়া বাবুল,সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম আজাদ হোসেন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহমান,আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মিরাজুল মইন জয়,দপ্তর সম্পাদক ফিরোজ আলম মিলন,কার্যনির্বাহী সদস্য কামাল হোসেন খান ও শিক্ষার্থী ইউনিটের সাকিব হোসেন।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)