ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৪৯ মিনিট ১৩ সেকেন্ড

ঢাকা শুক্রবার, ২৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৫ রবিউস-সানি, ১৪৪১

ভ্রমন নির্জন সৈকত মুম্বাইয়ের আলিবাগ 

নির্জন সৈকত মুম্বাইয়ের আলিবাগ 

নাসিম রুমি, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, নিরাপদ নিউজ : মুম্বাই থেকে সমুদ্র পথে ৬০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত আলিবাগ নির্জন সৈকত। এই সৈকত দুই ভাবে যাওয়া যায় স্থল পথ ও জল পথে। আমি মুম্বাইয়ের ইন্ডিয়াগেট থেকে অভিজাত ষ্টিমার চেপে সমুদ্র পথ অতিক্রম করে আলিবাগ সৈকতে পৌচ্ছে ছিলাম। মাঝে সমদ্র থেকে পাখির চোখে মুম্বাই শহরকে দেখতে অর্পূব সুন্দর লাগে। আলিবাগ যারা সমুদ্র ভালবাসেন, শান্ত পরিবেশে অবসর যাপন করতে চান, তাঁদের জন্য আলিবাগ আর্দশ হলিডে ডেস্টিনেশন। আকাশে রঙের উৎসব, নারকেল গাছে ঘেরা সোনালি সৈকত, শান্ত, সুন্দর পরিবেশ, পাখির ডাক সঙ্গে নানা ধরনের সুস্বাদু খাবার ছুটি কাটানোর জন্য আর কী চাই?। মুম্বাই থেকে ১০৮ কিমি দূরে কোস্কন উপত্যকার অন্যতম শহর আলিবাগ। আলিবাগে রয়েছে অসংখ্য বিচ। এক একটা বিচের শোভা এক এক রকম।

আলিবাগ সৈকতে সাংবাদিক লেখক ও পর্যটক নাসিম রুমি

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের দৌলতে আলিবাগকে মহারাষ্ট্রের কিং অফ বিচেস বলা হয়। তবে বিচগুলোর মধ্যে অন্যতম হল আলিবাগ বিচ। সমুদ্রের পাড় ধরে অনেকদূর পর্যন্ত হেঁটে যাওয়া যায় এই বিচে। এখানে গেলে সূর্যাস্ত অবশ্যই দেখবেন। সূর্যান্তের সময় এই বিচের শোভা নয়নাভিরাম। বিচে বেঞ্চে বসে সমুদ্রের অপরূপ শোভা উপভোগ করতে পারেন। কীভাবে যে সময় কেটে যাবে বুঝতেই পারবেন না বার্ড ওয়াচিং-এর শখ থাকলে ১২ কিলোমিটার দূরে কিহিম বিচে।

মুম্বাইয়ের আলিবাগ নির্জন সৈকত

অর্পূব সুন্দর এই বিচে যদিও এই বিচে পর্যটকদের ভিড় অপেক্ষকৃত কম। একানকার শান্ত পরিবেশে নিজের মতো সময় কাটাতে মন্দ লাগবে না।এখানে পরিযায়ী পাখিরা আসে। এছাড়াও আছে নাগাঁও বিচ, মাগুওয়া বিচ, সহজেই ভ্রমণ করা যায়।
কোথায় থাকবেন:
আলিবাগের সৈকতে থাকার অসংখ্যা হোটেল রয়েছে ভাড়া ১০০০/৭০০০টাকা পর্যন্ত।
কিভাবে যাবেন :
মুম্বাই ইন্ডিয়ানগেইট থেকে সমুদ্র পথে ষ্টিমারে চেপে মাত্র দেড়ঘন্টায় আলিবাগ সৈকতে যাওয়া যায়।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)