ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ডিসেম্বর ১১, ২০১৪

ঢাকা রবিবার, ৬ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ২২ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১

চট্টগ্রাম, পাঁচ মিশালী নোয়াখালীতে বিজয় মেলা শুরু

নোয়াখালীতে বিজয় মেলা শুরু

নোয়াখালীতে বিজয় মেলা উেদ্বোধন করছেন মমতাজুল করিম বাচ্চু ও শিহাবউদ্দিন শাহীনসহ অন্যান্যরা

নোয়াখালীতে বিজয় মেলা উেদ্বোধন করছেন মমতাজুল করিম বাচ্চু ও শিহাবউদ্দিন শাহীনসহ অন্যান্যরা

নোয়াখালী, ১০ ডিসেম্বর ২০১৪, নিরাপদনিউজ : মুক্তিযুদ্ধের বিজয় বিদ্রোহী বাঙালির জয়’ স্লোগানে নোয়াখালীতে ১১ দিনব্যাপী বিজয় মেলা-২০১৪ উদ্বোধন করা হয়েছে।
বুধবার (১০ ডিসেম্বর) বিকেল ৫টার দিকে জেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণের বিজয়মঞ্চে মেলার উদ্বোধন করেন বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ রুহুল আমিনের বড় মেয়ে নূরজাহান বেগম।
মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিজয় মেলা পরিষদের সভাপতি ও নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিনের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- সাবেক সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা ফজলে এলাহী, অ্যাডভোকেট মমিন উল্লাহ, অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন, ইমরান মোহাম্মদ আলী, জি এস কাশেম, মিজানুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট কমান্ডার মোজাম্মেল হক মিলন, যুদ্ধকালীন সি-জোন কমান্ডার মোশারেফ হোসেন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বিমলেন্দু মজুমদার, আনম জাহের উদ্দিন, কাজী মানছুরুল হক খসরু, আ’লীগ নেতা আবু তাহের, আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু, বিজয় মেলা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা ইউনিট ডেপুটি কমান্ডার মমতাজুল করিম বাচ্চু প্রমুখ।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের শিল্পীদের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পর শান্তির প্রতীক পায়রা উড্ডয়নের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধান অতিথি।
মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন জানান, মূলত নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে অম্লান করে রাখার জন্য প্রতি বছর নোয়াখালী বিজয় মেলার আয়োজন করা হয়।
এবারের মেলা ১১ দিন ধরে চলবে। এতে তিন শতাধিক স্টল থাকবে। বাংলাদেশের তথা মুক্তিযুদ্ধের গৌরবোজ্জল ইতিহাস সমৃদ্ধ নানা বই থাকবে স্টলগুলোতে।
তাছাড়া দেশিয় কুটির শিল্প, গ্রামীণ খাওয়ার স্টলসহ বিভিন্ন দেশিয় পণ্যের স্টল স্থান পাবে বলেও তিনি জানান। এছাড়া শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে বিজয় মঞ্চে প্রতিদিন মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক আলোচনা সভা, মুক্তিযোদ্ধাদের অংশগ্রহণে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ।
বিভিন্ন সংগঠনের কবিতা আবৃত্তি, দেশাত্মবোধক গান, মুক্তিযুদ্ধের ছোট নাটিকা ও নাটক সহ নানা আয়োজনও থাকবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)