ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট জুন ৩, ২০১৫

ঢাকা রবিবার, ৩০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৭ রবিউস-সানি, ১৪৪১

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন, সড়ক সংবাদ পঞ্চগড়ের বোদা-দেবীগঞ্জ মহাসড়ক যেন কৃষকের চাতাল

পঞ্চগড়ের বোদা-দেবীগঞ্জ মহাসড়ক যেন কৃষকের চাতাল

পঞ্চগড়ের বোদা-দেবীগঞ্জ মহাসড়ক যেন কৃষকের চাতাল

পঞ্চগড়ের বোদা-দেবীগঞ্জ মহাসড়ক যেন কৃষকের চাতাল

পঞ্চগড়, ০৩ জুন ২০১৫, নিরাপদনিউজ : পঞ্চগড়ের বোদা-দেবীগঞ্জ মহাসড়ক যেন কৃষকের চাতালে পরিণত হয়েছে। এতে যে কোন সময় বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে বলে ভুক্তভুগীরা জানিয়েছেন।
বোদা-দেবীগঞ্জ এশিয়ান হাইওয়ের ২৫ কিলোমিটার রাস্তা কৃষকেরা ধান মাড়াই ও খড় শুকানোর চাতাল হিসেবে ব্যবহার করছে। সরজমিনে দেখা যায়, বোদা পৌর শহরের সর্দারপাড়া, জমাদারপাড়া, সিপাইপাড়া, চন্দনবাড়ি ইউনিয়নের সরকার পাড়া, শিমুলতলী, সাকোয়া ইউনিয়নের নগর সাকোয়াসহ বেশি কিছু গ্রামের কৃষকেরা তাদের জমির ধান, মরিচ, বাদাম ও ভুট্রা গ্রামের পার্শ্ববর্তী এই সড়কের ওপর মাড়াই করছেন।
আজ বুধবার দুপুরে দেখা যায়, প্রায় সড়কটি কৃষকদের দখলে। দেখে মনে হচ্ছে যেন সড়ক তো নয়, ধান শুকার চাতালে পরিণত হয়েছে। দল বেধে কৃষকেরা সড়কের ওপর যন্ত্র দিয়ে ধান মাড়াই করছেন, অনেকে সড়ক জুড়ে ধান ও খড় বিছিয়ে রেখেছেন। আবার অনেকে ধান কেটে এনে সড়কের ধারে স্তুপ করে রাখছেন। এর মধ্যে সড়ক দিয়ে ঝুকি নিয়ে চলছে যানবাহন গুলো।
চন্দনবাড়ি কাজিপাড়া কৃষক জয়নাল সড়কের ওপর ধান স্তুপ করে রাখছিলেন। তিনি জানান, আগের মতো বাড়ির সামনে মানুষজন আর ফাঁকা জায়গা ফেলে রাখে না। ঘরবাড়ি করে ফেলেছে। ধান মাড়াইয়ের জায়গায় অভাব। তাই মানুষ নিরুপায় হয়ে সড়কই ব্যবহার করছেন। তিনি একাই নন, তার মতো এলাকার সব কৃষক এখন সড়কের ওপর ধান মাড়াই করেন।
জমাদার পাড়া গ্রামের কৃষক নুর ইসলাম, সর্দারপাড়া গ্রামের কৃষক বাবুল ও রহমান বলেন, মানুষের উপকারের জন্য সরকার সড়ক তৈরী করে দিয়েছেন। সারা বছর সড়ক দিয়ে গাড়ি-ঘোড়া চলে, আর কৃষকেরা মাস খানেক ধান মাড়াই করেন এটাই দোষের। বাস, মাইক্রোবাস ও সিএনজি চালক মিন্টু, সোলেমান ও ইয়াসিন অভিযোগ করেন বলেন, এ অঞ্চলের সবচেয়ে সুন্দর ও প্রশস্ত রাস্তা এই এশিয়ান হাইওয়ে সড়কটি।
কিন্তু ধানকাটা মৌসুমে এ সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল করা মারাত্মক ঝুকিপুর্ণ। কৃষকেরা সড়ক জুড়ে ধান ও খড় বিছিয়ে রাখেন। নিষেধ করলে উল্টো তারাই মেজাজ দেখান।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, রাস্তায় কৃষকরা যেন ধান সহ যে কোন ফসল না শুকান সে জন্য ম্যাইকিং করে কৃষকদের জানানো হয়েছে। তার পরেও কৃষকেরা রাস্তায় তাদের ফসল শুকাতে দিচ্ছেন। আমাদের নিদের্শনা না মানলে তাদের উপর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)