ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০

ঢাকা বুধবার, ১৮ চৈত্র, ১৪২৬ , বসন্তকাল, ৭ শাবান, ১৪৪১

বিনোদন পিবিআই’র তদন্ত মেনে নিতে পারছেন না অভিনেতা-অভিনেত্রীরা

পিবিআই’র তদন্ত মেনে নিতে পারছেন না অভিনেতা-অভিনেত্রীরা

নিরাপদ নিউজ: অভিনেত্রী শাবনাজ বলেন, আমরা এই মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত চেয়েছিলাম। যে প্রতিবেদনটি এসেছে, তা নিয়ে কিছু বলার নেই আমাদের। কিন্তু এর সঙ্গে শাবনূরকে জড়ানোর বিষয়টি আমার কাছে ভালো লাগেনি। সালমান শাহর সঙ্গে শাবনূরের প্রেমের বিষয়টি আমি শুনিনি।

অভিনেতা অমিত হাসান বলেন, কেউ যদি বলে, শাবনূরকে নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে সালমান শাহ আত্মহত্যা করেছে, আমি বলব সেটা সত্য না। খামোখাই একজন শিল্পীকে এ রকম একটা ঘটনায় জড়ানো হচ্ছে। শাবনূরের সঙ্গে যদি সালমান শাহর গভীর প্রেমের সম্পর্ক থাকত, তাহলে ওই সময় শাবনূর আমার বা অন্য কারও সঙ্গে ছবি সাইন করত না। সালমান অন্য কারও সঙ্গে শাবনূরকে ছবি করতে দিত না। ইন্ডাস্ট্রির নিয়মটা এমনই।

অভিনেত্রী মৌসুমী বলেন, প্রতিবেদনে যাই বলা হোক, আমরা শিল্পীরা মেনে নিয়েছি। কিন্তু এখানে শাবনূরকে কেন জড়ানো হচ্ছে, সেটা বুঝলাম না। শাবনূর ও সালমান দুজন কলিগ ছিল। একসঙ্গে কাজ করেছে, বন্ধু ছিল। আমিও তো সালমানের বন্ধু ছিলাম। তাই বলে আমাকে নিয়ে কি টানাটানি হবে? আমরা তো আর সালমানকে ফিরে পাব না। এই প্রতিবেদন নিয়েও অনেক রহস্য থাকতে পারে। এই প্রতিবেদনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলছি, আমি নিজেও সালমানের লাশ দেখেছি। সে আত্মহত্যা করেছে, আমার সে রকম মনে হয়নি।

অভিনেতা ওমর সানী বলেন, সালমানকে নিয়ে প্রতিবেদন কতটা সত্য, কতটা মিথ্যা, এ নিয়ে আমি বিহ্বল। তবে এটুকু বুঝি, শাবনূর কখনোই চায়নি সালমানের মতো একটি ছেলে পৃথিবী ছেড়ে চলে যাক। সালমান ও শাবনূরের সম্পর্কটা আমি কাছ থেকে দেখেছি। তারা খুব ভালো বন্ধু ছিল। শাবনূরের ঘাড়ের ওপর একচেটিয়া দোষ চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে, এটা ঠিক না।

অভিনেত্রী পপি বলেন, এত বছর পর সালমান শাহর মৃত্যুর প্রতিবেদন প্রকাশিত হলো, তাও শাবনূরকে জড়িয়ে। যে সময়ে সালমান শাহ মারা যান, তার কিছু আগে আমি চলচ্চিত্রে পা রেখেছি। শাবনূর ও সালমান শাহর মধ্যে প্রেম-ভালোবাসার সম্পর্কের বিষয়টি তখন তো আমাদের কানে আসেনি।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)