ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ফেব্রুয়ারী ১২, ২০২০

ঢাকা রবিবার, ১১ ফাল্গুন, ১৪২৬ , বসন্তকাল, ২৮ জমাদিউস-সানি, ১৪৪১

রাজশাহী বগুড়ার ধুনটে বেলুন ফোলানোর গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আহত পাঁচ, ৭ ছাগলের মৃত্যু

বগুড়ার ধুনটে বেলুন ফোলানোর গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আহত পাঁচ, ৭ ছাগলের মৃত্যু

নিরাপদ নিউজ: বগুড়ার ধুনট উপজেলায় আকাশে উড়ানোর রঙ্গিন বেলুনে গ্যাস ভরার সময় সিলিন্ডার বিস্ফোরণে মা, ছেলে ও বিক্রয় কর্মীসহ ৫ জন আহত হয়েছে। বিস্ফোরিত সিলিন্ডারের আঘাতে ৭টি ছাগল মারা গেছে। এ সময় ৫টি ঘরসহ আসবাবপত্র লণ্ডভণ্ড হয়েছে।

আহতরা হলেন, উপজেলার চিকাশি ইউনিয়নের ঝিনাই গ্রামের আব্দুল্লাহর ছেলে আসাদুর রহমান (৩০), তার মা ছানোয়ারা খাতুন (৫৫), ফদির উদ্দিনের ছেলে সোহাগ উদ্দিন (২৫), ফজলুল হকের ছেলে মিজানুর রহমান (২২) ও আবুল কালামের ছেলে নজরুল ইসলাম (৩০)।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার শুরু হয় বগুড়ার গাবতলী উপজেলায় ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলা। এই মেলা উপলক্ষে মঙ্গলবার রাতে ধুনট উপজেলার ঝিনাই গ্রামের আসাদুর রহমান তার বাড়ির আঙ্গিনায় শিশুদের খেলনা বেলুনে গ্যাস ভরানোর প্রস্তুতি নেয়। তিনি সিলিন্ডারে পরিমাণ মতো পানি মিশিয়ে কস্টিক সোডা আর অ্যালুমিনিয়াম পাউডার দিয়ে তৈরি করেন বিপজ্জনক হাউড্রোজেন গ্যাস। সেই গ্যাস বিভিন্ন কার্টুনের অবয়বে বানানো বাহারি ডিজাইনের খেলনা বেলুন ভরছিলেন।

এ সময় গ্যাসের সিলিন্ডার বিকট শব্দে বিস্ফোরণে ৫ জন আহত হয়। বিস্ফোরিত সিলেন্ডারের আঘাতে ঘটনাস্থলেই ৭টি ছাগল মারা যায়। এ সময় ওই বাড়ির ৫টি ঘরসহ আসবাবপত্র লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়। আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বগুড়ার ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. সাদিয়া সুলতানা বলেন, গ্যাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আহত ব্যক্তিদের শরীরের প্রায় ৫০ শতাংশ ক্ষতবিক্ষত হয়েছে। এখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

বগুড়ার ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। আহতদের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে। বেলুনে ভরানোর জন্য নিরাপদ হিলিয়ামের পরিবর্তে নিষিদ্ধ হাইড্রোজেন ব্যবহারের কারণে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। এতে প্রায় ৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)