ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট মার্চ ৮, ২০২০

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৯ চৈত্র, ১৪২৬ , বসন্তকাল, ৭ শাবান, ১৪৪১

নিসচা সংবাদ, লিড নিউজ বগুড়া থেকে ঢাকা ফেরার পথে যে কারণে হঠাৎ ফেসবুক লাইভে এলেন ইলিয়াস কাঞ্চন

বগুড়া থেকে ঢাকা ফেরার পথে যে কারণে হঠাৎ ফেসবুক লাইভে এলেন ইলিয়াস কাঞ্চন

নিরাপদ নিউজ : ফিটনেসবিহীন গাড়িতে তেল-গ্যাস-পেট্রোলসহ সব ধরনের জ্বালানি সরবরাহ বন্ধ করতে নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। হাই কোর্টের নির্দেশে বলা হয়েছে, রাস্তায় ফিটনেসহীন যত গাড়ি চলছে সেগুলোতে কোনো ফিলিং স্টেশন থেকে পেট্রোল, গ্যাস, তেলসহ জ্বালানি সরবরাহ করা যাবেনা। হাই কোর্টের এই নিদের্শ প্রদানের পর দেশের সবগুলো ফিলিং স্টেশন সচেতন না হলেও কিছু কিছু ফিলিং স্টেশন গুলোতে হাই কোর্টের নির্দেশ মানতে দেখা যাচ্ছে। গতকাল শনিবার বগুড়ায় এক অনুষ্ঠান শেষ করে রাতে ঢাকা ফেরার সময় গাড়িতে সিএনজি নিতে মহাসড়কের পার্শে এক ফিলিং ষ্টেশনে গাড়ি দাড় করান ইলিয়াস কাঞ্চন, হঠাৎ তার চোখে পড়ে একটি হাইকোর্টর নির্দেশনার সাইন বোর্ড। বিষয়টি দেখার সাথে সাথেই ইলিয়াস কাঞ্চন ফেসবুক লাইভে আসেন এবং দেশবাসীকে এই বিষয়ে সচেতন করতে কিছু কথা জানান। নিরাপদ সড়ক চাই এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন লাইভে এসেই সবাইকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আমি বগুড়া থেকে ঢাকা ফিরছিলাম রাস্তায় আমার ড্রাইভার গাড়িতে সিএনজি নিতে এক ফিলিং ষ্টেশনে গাড়ি থামান এখানে আমি দেখতে পেলাম হাই কোর্টের নির্দেশনার একটি বোর্ড যেখানে লেখা আছে,’ফিটনেসবিহীন গাড়িতে জ্বালানি দেয়া হবে না।’ বিষয়টি আমার কাছে ভালো লেগেছে কিন্তু এখন দেখার বিষয় এখানে যারা জ্বালানি দেয় তারা কি সত্যি সত্যি এই নির্দেশটি মান্য করে নাকি শুধুই এটি সাইন বোর্ডের লেখার ভেতর সীমাবদ্ধ। তিনি বাস্তব ঘটনার সত্যতা যাচাই করতে সেই ষ্টেশনের ম্যানেজারের কাছে গিয়ে জিজ্ঞাস করেন,এখানে যে লেখা আছে ‘ফিটনেসবিহীন গাড়িতে জ্বালানি দেয়া হবে না’ এটি কি আপনারা মেনে চলেন? সেখানে থাকা ষ্টাফরা জানান, জ্বী আমরা হাই কোর্টের নির্দেশ মেনে গাড়ির ফিটনেস দেখে জ্বালানি দেই। ইলিয়াস কাঞ্চন তখন আবারও তাদের জিজ্ঞাস করেন আপনারা কিভাবে বোঝেন কোন গাড়ির ফিটনেস আছে বা নেই। তাঁরা বলেন, আমরা গাড়ির কাগজ ও লাইসেন্স যাচাই বাছাই করে নেই। ইলিয়াস কাঞ্চন এটাও বলেন, কোথায় আমার গাড়িতে জ্বালানি দেবার সময়তো কোন কাগজ চাইলেন না। সেখানকার ষ্টাফরা তখন বলেন, স্যার আপনার গাড়ি দেখে খালি চোখে বোঝা যাচ্ছে গাড়ির কন্ডিসন ভালো এজন্য চাওয়া হইনি। তাঁদের কথা সুনে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন,যদি সত্যি সত্যি আপনারা এমন ভাবে কাজ করে থাকেন তাহলে আপনাদের ধন্যবাদ জানাই। সত্যিকার অর্থে এটি একটি ভালো উদ্যোগ। সড়ক দুর্ঘটনারোধে সবাইকে এভাবে এগিয়ে আসতে হবে। ইলিয়াস কাঞ্চন দেশের প্রতিটি ফিলিং ষ্টেশনগুলোতে এই নিয়ম মেনে জ্বালানি সরবরাহ করার আহবান জানান।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)