ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট মে ১৯, ২০১৯

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৪ রবিউস-সানি, ১৪৪১

বিনোদন, মতামত বাংলা চলচ্চিত্রের ‘জজ সাহেব’

বাংলা চলচ্চিত্রের ‘জজ সাহেব’

আনিস রহমান,নিরাপদ নিউজ: নব্বইয়ের দশকে যারা শৈশব-কৈশর অতিবাহিত করেছেন বিশেষ করে গ্রাম-মফস্বলে, তারা জজসাহেব, সার্জারীর ডাক্তার, পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, আর সৎ,আদর্শবান ও অভিজাত ব্যক্তিত্বের প্রতিক বলতে এই ব্যক্তিকেই চিনতেন।

সমস্ত সাক্ষ্য প্রমান আর আসামীর জবানবন্দীর ভিত্তিতে বহু আসামীকে বাংলাদেশ দন্ডবিধির ৩০২ দ্বারা মোতাবেক মৃত্যদন্ডে দন্ডিত করেছেন ইনি। আবার সিনামার শেষ দৃশ্যে বেকসুর খালাসের রায় দিয়ে বহু আসামীকে মুক্তও করেছেন সাদা চুলের এই জজসাহেব।

“ইন্সপেক্টর রাজু, আমি তোমার মতো ট্যালেন্ট অফিসারের কাছে এমনটি আশা করি নি” পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে বহুবার তিনি নায়কের ব্যর্থতায় এমন হতাশ হয়েছেন।

“I am proud of you my boy” দুর্ধর্ষ ডাকাত গ্যাং পাকড়াও করে বহু নায়ক তার কাছ থেকে এমন প্রসংসা শুনতে শুনতে পিঠে মৃদু থাপ্পড় খেয়েছেন।

“উনার এখনই অপারেশন করতে হবে। অপারেশন না করলে রোগীকে বাঁচানো যাবে না “।

এই কথা বলে প্রায় সব সিনেমাতে দর্শকদের পেরেশানি বাড়িয়ে দিতেন তিনি। ৯০ দশকের বাংলা সিনেমার প্রায় সব জটিল অপারেশন উনাকেই সারতে হয়েছে। তবে অপারেশন করতে গিয়ে উনি বেশিরভাগ সময় রক্তের সমস্যায় পড়তেন। যে গ্রুপের রক্ত দরকার তাৎক্ষণিক তা পাওয়া যেত না। অপারেশন থিয়েটারের বিশাল কালো বেলুন ফুলছে আর ছোট হচ্ছে, দর্শকের হার্টবিট বাড়ছে। এমন যখন অবস্থা ঠিক তার কিছুক্ষণ পরেই এসে “operation successful ” এই বলে দর্শকদের বিরাট দুশ্চিন্তা হতে মুক্ত করতেন তিনি।

হ্যাঁ, ইনিই বাংলা চলচ্চিত্রের জজসাহেব। তার আসল নাম আজিজুল কাদের কোরেশী।চলচ্চিত্র জগতে তিনি এ কে কোরেশী নামেই সুপরিচিত ছিলেন।
পর্দার উচ্চপদস্থ এই কর্মকর্তা বাস্তব জীবনেও সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ছিলেন। বাংলাদেশ টেলিভিশন( বিটিভি) এর জন্মলগ্ন থেকেই ফিল্ম শাখার উর্ধ্বতন কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন । বিটিভির বৈদেশিক অনুষ্ঠান বিভাগের পরিচালকের দায়িত্বও পালন করেন । এছাড়া বিএফডিসির প্রতিষ্ঠাতা সদস্যও ছিলেন তিনি।

একজন সফল অভিনেতা হিসেবে নব্বইয়ের দশকের বেশিরভাগ সিনেমাতেই তাকে দেখা যেত। তিনি শতাধিক চলচ্চিত্র ছাড়াও অসংখ্য টিভি নাটকে অভিনয় করেন। তিনিই সম্ভবত একমাত্র বাংলাদেশি অভিনেতা যিনি হলিউডে নির্মিত কোন টিভি নাটকে অভিনয় করেন।হলিউডে নির্মিত নব্বইয়ের দশকের জনপ্রিয় টিভি সিরিজ ” এক্স ফাইলস” এ অভিনয় করেন তিনি। অভিনয় ছাড়াও চলচ্চিত্রে তিনি শব্দগ্রাহক হিসেবে বেশ সুপরিচিত ছিলেন।

বাংলা চলচ্চিত্রের বরেণ্য এই অভিনেতা ১৯৩৭ সালের ৮ মে, পশ্চিমবঙ্গের চব্বিশ পরগণা জেলায় জন্মগ্রহন করেন। তিনি বাংলা পল্লীগীতি সম্রাট মরহুম আব্বাসউদ্দিনের অনুজ, গীতিকার মরহুম আবদুল করিমের বড় জামাতা ছিলেন। কর্মজীবন থেকে অবসর নিয়ে স্বপরিবারে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানকালে গত ১০ জানুয়ারি, ২০১৭ তারিখে, ৮০ বছর বয়সে তিনি পরলোক গমন করেন। তাকে যুক্তরাষ্ট্রের লস এঞ্জেলসের পামডেল কবরস্থানে স্ত্রীর কবরের পাশে সমাহিত করা হয়। মৃত্যুকালে দুই ছেলে ফয়সল কোরেশী ও ফরহাদ কোরেশী এবং একমেয়ে কান্তা কোরশী সহ আমার মত অসংখ্য ভক্ত গুনগ্রাহী রেখে যান।

(ফেসবুক পেইজ থেকে সংগৃহীত)

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)