ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট নভেম্বর ২০, ২০১৯

ঢাকা শুক্রবার, ২৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৪ রবিউস-সানি, ১৪৪১

বরিশাল বাউফলে ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যের মধ্যে মারামাারি: চেয়ারম্যানের হাত ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ

বাউফলে ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যের মধ্যে মারামাারি: চেয়ারম্যানের হাত ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ

কামরুল হাসান, নিরাপদ নিউজ : পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কনকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহিন হাওলাদার ওই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রফিক মীরের বিরুদ্ধে হামলা চালিয়ে তাঁর হাত ভেঙে দেয়ার অভিযোগ করেছেন। এদিকে শাহিন হাওলাদারের বিরুদ্ধে উল্টো মারধরের অভিযোগ করেছেন ইউপি সদস্য রফিক মীর। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কনকদিয়া ইউনিয়নের হোগলা ব্রীজ এলাকায় কনকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার এবং ইউপি সদস্য রফিক মীরের মধ্যে পূর্ব বিরোধের জের ধরে মারামারির ঘটনা ঘটেছে বলে জানায় স্থানীয়রা।

কনকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার অভিযোগ করেন, তিনি বাড়ি থেকে কনকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের দিকে যাচ্ছিলেন। এসময়ে ইউপি সদস্য রফিক মীর ও তাঁর ছেলে হাসানসহ অন্তত আরো তিনজন তাঁর উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে তাঁর বাম হাত ভেঙে যায় বলেও দাবী করেন তিনি। স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, বর্তমানে তিনি পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

এ বিষয়ে রফিক মীরের কাছে জানতে চাইলে তিনি এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সকালে শাহিন হাওলাদার একটি মটরসাইকেলযোগে হোগলা ব্রীজ এলাকায় আসেন। এ সময় তার সাথে অপর একটি মটর সাইকেলে আরো দুই জন লোক ছিল। তাঁরা এসে আমাকে মারধর শুরু করে।

এসময় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাঁকে প্রতিহত করে। পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে প্রথমে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এরপর চিকিৎসার জন্য আমাকে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ বিষয়ে বাউফল থানার ওসি(তদন্ত) মাকসুদ মুরাদ বলেন, বিষয়টি শুনেছি কিন্তু এ বিষয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)