ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১ মিনিট ১৫ সেকেন্ড

ঢাকা বুধবার, ১৬ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ৩ জমাদিউস-সানি, ১৪৪১

রংপুর, সংগঠন সংবাদ শাজাহান খানের মিথ্যাচারে নিসচা ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার মানববন্ধন

শাজাহান খানের মিথ্যাচারে নিসচা ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার মানববন্ধন

ননী গোপাল, নিরাপদ নিউজ: নিরাপদ সড়ক চাই নিসচা’র চেয়ারম্যান, মহানাকয়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের বিরুদ্ধে শাজাহান খানের মিথ্যাচারের প্রতিবাদে নিসচা ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার আয়োজনে আজ মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৩ টায় ঠাকুরগাঁও চৌরাস্তায় ঘণ্টাব্যাপী এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে আবু মহী উদ্দীনের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক ননী গোপাল বর্মন, সহ-সাধারন সম্পাদক সাইদুর রহমান, প্রদীপ গুপ্ত, দূর্ঘটনা ও গবেষনা সম্পাদক ড. গোলাম সারোয়ার স¤্রাট, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ফারজানা আকতার পাখি, আখতার ফেরদৌস, সদস্য মাসুদ আহম্মদ সুবর্ণ। আরো উপস্থিত ছিলেন সহ-সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার গুপ্ত, অর্থ সম্পাদক ধীরেন চন্দ্র শাহ, দপ্তর সম্পাদক কামাল হোসেন মামুন, আনিসুর রহমান, আলম সরকার, চঞ্চল রায়সহ সর্বস্তরের জনসাধারণ।

বক্তারা বলেন, মহানায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন নিরাপদ সড়ক চাই এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ছাড়াও তিনি একটি প্রতিষ্ঠান। বিগত ২৬ বছর যাবত তিনি সড়ককে নিরাপদ করার লক্ষ্যে যে আন্দোলন করে যাচ্ছেন যা আজ সারা বিশ্বে স্বীকৃত। সরকার এই নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনকে জাতীয় দিবস ঘোষণা করে ইলিয়াস কাঞ্চনকে একুশে পদকে ভূষিত করেছেন।

তার মত একজন চিরসবুজ নায়কের বিরুদ্ধে শাহজাহান খানের মিথ্যাচারে আমরা বিস্মিত হতবাক এবং এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আমরা মনে করি শাহজাহান খান নিরাপদ সড়ক চাই এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন সম্পর্কে জঘন্যতম মিথ্যাচার করেছেন। আমরা মনে করি সমাজের একজন সৎ, নিষ্ঠাবান, জাতীয় পুরস্কার ও একুশে পদক প্রাপ্ত সম্মানিত মানুষের বিরুদ্ধে শাহজাহান খানের এমন মিথ্যাচার শুধুমাত্র নিজের দুর্বলতা ঢাকার জন্যই বলেছেন। তিনি জাতিকে বিভ্রান্ত করার জন্য এই মানহানিকর কথা বলেছেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যখন সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে যুগোপযোগী সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ বাস্তবায়নের নির্দেশ দিলেন তখন কি করে শাহজাহান খান সরকারের থেকে এই আইনের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। সেই প্রশ্ন জাতির কাছে রাখছি আমরা। শাজাহান খান অনতিবিলম্বে যদি তার বক্তব্যের প্রমাণ দিতে না পারেন তাহলে জাতির কাছে তাকে প্রকাশে ক্ষমা চাইতে হবে। নইলে এ আন্দোলন অব্যহত থাকবে।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)