ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১ মিনিট ১ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ১২ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ২৯ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১

ফিচার শীতে কাঁপছে সারাদেশ

শীতে কাঁপছে সারাদেশ

Cool-

দিনাজপুর, ডিসেম্বর ০৮ ২০১৪, নিরাপদনিউজ : শীতে কাঁপছে সারাদেশ। রাজধানীর মানুষ রবিবার তীব্র শীত অনুভব করেছেন। শীতের পোশাক নিয়ে যারা নগরীতে বের হননি, তারা অনুভব করেছেন শীতের কাপুনি।
তবে গ্রামে গত কয়েক দিন ধরে শীতের হিমেল হাওয়ায় চলছে রোদের লুকোচুরি খেলা। দিন-দুপুরের আগে সূর্যের দেখা মেলে না। আবার কিছুক্ষণ থাকার পরই কুয়াশার চাদরে ঢেকে যায়। শীত জেকে বসতে শুরু করায় দূর্ভোগে পড়েছেন সহায়-সম্বলহীন সাধারন মানুষ। তাদের অনেকেরেই নেই শীতে পোশাক।
এমন অবস্থায় মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে হালকা থেকে মাঝারী ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে বলে জানিয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তর।
সংস্থাটি জানিয়েছে, আজ সোমবারও দেশের আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।
সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।
রবিবার আবহাওয়া অধিদপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আজ সোমবার ঢাকায় সূর্যোদয় ৬টা ২৯ মিনিটে।
আগামী ৭২ ঘন্টার আবহাওয়ার অবস্থা সম্পর্কে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ সময়ে আবহাওয়ার সামান্য পরিবর্তন হতে পারে।
আবহওয়ার সিনপটিক অবস্থা সম্পর্কে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ এবং তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত। স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। যার বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত।
এদিকে আরনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের দিনাজপুর সংবাদদাতা বিপুল সরকার সানি জানিয়েছেন, হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত দিনাজপুরে জেকে বসতে শুরু করেছে শীত। গত ২ দিন ধরে হালকা হিমেল বাতাসের ঝাপ্টায় দূর্ভোগে পড়েছেন ছিন্নমূল ও খেটে খাওয়া মানুষেরা।
দিনাজপুরে কয়েকদিন ধরেই তাপমাত্রা নিচে নামলেও তেমনি শীত অনুভূত হয়নি এই জেলায়। কিন্তু গত ২ দিন থেকে হিমেল বাতাস বইতে শুরু করায় বেড়ে গেছে শীতের মাত্রা।
কুয়াশার প্রভাব তেমনটি না থাকলেও হিমেল বাতাসের ঝাপ্টায় দূর্ভোগে পড়েছেন সাধারন মানুষেরা। পাশাপাশি গত ২ দিন ধরে সূর্য্য খেলছে লুকোচুরি খেলা। দিনের মাত্র ২/৩ ঘন্টা সূর্য্যরে মুখ দেখা গেলেও গরমের উষ্ণতা মাত্র নেই।
শীতের হাত থেকে রক্ষা পেতে ছিন্নমূল মানুষেরা খরকুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছেন। পাশাপাশি তারা সরকারীভাবে গরম কাপড় সাহায্য দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।
দিনাজপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, রোববার দিনাজপুরে সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ১৫ দশমিক ৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এদিকে কমতে শুরু করেছে বাতাসের আদ্রতা।
গত ২ দিন ধরে শীতের কারণে সাধারন মানুষ তাদের দৈনন্দিন কাজ করতে পারছে না। পৌষ মাস না আসলেও এবং কুয়াশার প্রভাব না থাকলেও হিমেল বাতাসের ঝাপ্টা শীতেরর মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে।
দিনাজপুর সদর উপজেলার জিয়ানগর এলাকার কৃষক হাসেম আলী জানান, প্রতি বছরই এই সময়ে শীত আসে। কিন্তু এবারে শীতের সাথে সাথে এসেছে হিমেল হাওয়া। এতে করে শীতের তীব্রতা বাড়ছে বলে জানান তিনি।
একই এলাকার কৃষক ইয়াকুব আলী জানান, আলুর জমিতে পানি সেচ দিতে হবে। কিন্তু শীতে শরীর জড়োসড়ো হয়ে গেছে। কোন কাজ করতে ইচ্ছে করছে না।
এদিকে শীত অনুভূত হওয়ার সাথে সাথে কষ্ট দেখা দিয়েছে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে। শীতবস্ত্র না পাওয়ায় এসব মানুষেরা বহু কষ্টে দিনাতিপাত করছেন। খরকুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছেন।
দিনাজপুর রেলঘুন্টি বস্তির এলাকার মোসলেমা খাতুন জানান, আমাদের ঘরবাড়ি নেই। বস্তি এলাকায় ঝুপড়ি করে কোন রকমে খেয়ে দিনাতিপাত করি। শীতের কাপড় ক্রয় করার ক্ষমতা নেই। কিন্তু ঠান্ডা তো আর গরীব দেখে আসে না। তাদের ঠান্ডা দুর করতে সরকারীভাবে গরম কাপড় সহযোগিতা চাইলেন তিনি।
জেলা আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ইনচার্জ আশিকুর রহমান জানান, গত ২ দিন ধরে যে আবহাওয়া বিরাজ করছে তা কিছুদিন থাকবে এবং রাতের সময় শীতের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।-সংগৃহীত

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)