ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ১ মিনিট ১২ সেকেন্ড

ঢাকা শনিবার, ২৯ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১৬ রবিউস-সানি, ১৪৪১

টেনিস ‘সেরেনা আবার ওর স্বমূর্তিতে ফিরে আসবে’

‘সেরেনা আবার ওর স্বমূর্তিতে ফিরে আসবে’

সেরেনা উইলিয়ামস -ফাইল ফটো

সেরেনা উইলিয়ামস -ফাইল ফটো

স্পোর্টস ডেস্ক, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫, নিরাপদনিউজ : সেরেনা উইলিয়ামসের মহাকীর্তি বিশেষ একটা গ্র্যান্ড স্ল্যাম পাওয়া-না পাওয়ার গণ্ডিতে আটকে নেই!
ক্যালেন্ডার গ্র্যান্ড স্ল্যাম করার মাত্র দু’ধাপ আগে সেরেনার স্বপ্নের দৌড় আচম্বিত থেমে যাওয়ার পর মার্কিন টেনিসমহলের এখন এটাই মূল্যায়ন।
জন ম্যাকেনরো মতো ঠোঁট কাটা টেনিস কিংবদন্তিও বলছেন, আমার দেখা ছেলে-মেয়ে মিলিয়ে সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রীড়াবিদ সেরেনা। যেটা ওর চরম অপ্রত্যাশিত হারেও বদলাবে না। বরং গত আড়াই দশক ধরে নিজের শ্রেষ্ঠত্ব সেরেনা প্রমাণ করে চলেছে। আমার এখনই ভেবে খারাপ লাগছে যে, বছর দুই বাদে সেরেনার অবসরের পর মেয়েদের টেনিসের কী হাল হবে? কে দেখবে? ভাবুন তো, ইউএস ওপেন সেমিফাইনালে সেরেনা না থাকলে কী অবস্থা হত টুর্নামেন্টের? আমি বাজি ধরতে পারি, আমেরিকার আটানব্বই শতাংশ মানুষ সেমিফাইনাল শুরুর সময় বলতে পারত না, বাকি তিন সেমিফাইনালিস্ট কারা!
ম্যাকেনরোর দুশ্চিন্তা অমূলকও নয়। সেরেনার হারে মেয়েদের সিঙ্গলস ফাইনালের টিকিটের চাহিদা কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই হু-হু করে পড়ে যায়। সেমিফাইনালে রবার্তা ভিঞ্চির পক্ষে বাজির দর ছিল ৩০০-১। এমন এক জনের কাছে সেরেনার হারের পরেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা টুইট করেছেন, ‘তোমার জন্য আমরা গর্বিত। এ বছর তুমি গ্র্যান্ড স্ল্যামে যা করেছ তা অসাধারণ!’
বছর কয়েক আগে সেরেনাকেই হারিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ওপেন চ্যাম্পিয়ন হওয়া সামান্থা স্তোসুর বলেছেন, ক্যালেন্ডার স্ল্যাম সেরেনার না হোক, ও এক জন গ্রেট অ্যাথলিট। ছেলে-মেয়ে মিলিয়েই এত বড় কথাটা আমি বলছি।’’ এবারই ফ্লাশিং মেডোয় সেরেনার কাছে গোড়ার দিকের রাউন্ডে হারা বেথানি মাটেকের মন্তব্য, ‘‘টেনিসে লিঙ্গ-সংক্রান্ত বিষয়ে সেরেনা অনেক বাঁধাই অতিক্রম করেছে প্রথম মেয়ে প্লেয়ার হিসেবে। ওর পাওয়ারফুল টেনিস ছেলেদের সার্কিটে অনেকের সঙ্গেই তুলনায় আসবে।
কিন্তু এক জন যেন সেরেনার মূল্যায়ন শুক্রবারের মহা অপ্রত্যাশিত হারেই করতে চাইছেন। তিনি রিচার্ড উইলিয়ামস- সেরেনা-ভেনাসের বাবা গত কাল দ্বিতীয় সেটে ছোট মেয়ে হারতেই টিভির সুইচ অফ করে দিয়েছিলেন। ‘‘ও ভালো খেলছিল না। সমস্যায় দেখাচ্ছিল ওকে। ওর ইতিহাসের দিকে এগোনোটাকেও সমস্যায় দেখাচ্ছিল,’’ এ দিন বলেছেন রিচার্ড। যিনি গ্র্যান্ড স্ল্যামে সেরেনার খেলা কোর্টে বসে শেষ বার দেখেছেন দু’বছর আগে, উইম্বলডনে।
যদিও এর পরেই রিচার্ড এটাও বলেছেন, আমি আর কখনও কোনো টেনিস টুর্নামেন্ট দেখতে যাব না। পুরোপুরি অবসর নিয়ে ফেলেছি। কিন্তু এখনও ভেবে ভালো লাগে যে, আমার মেয়েদের নিয়ে, বিশেষ করে সেরেনাকে নিয়ে আমি সবাইকে ভুল প্রমাণ করতে পেরেছি। বছর পনেরো আগে প্রথম যখন ভেনাস-সেরেনার বিশাল সম্ভাবনা, প্রতিভার কথা টেনিসমহলকে বলেছিলাম, কেউ বিশ্বাস করতেই চায়নি। তার পর কী হয়েছে সেটা সবাই জানে। সবটাই ইতিহাস। তাই এখনও বলছি, সেরেনা আবার ওর স্বমূর্তিতে ফিরে আসবে এই বিশ্বাস আমার আছে।-ওয়েবসাইট।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)