ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট জানুয়ারী ১০, ২০২০

ঢাকা মঙ্গলবার, ৮ মাঘ, ১৪২৬ , শীতকাল, ২৫ জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১

ফুটবল, লিড নিউজ স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে অ্যাটলেটিকো

স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে অ্যাটলেটিকো

নিরাপদ নিউজ: চরম নাটকীয় ম্যাচে বার্সেলোনাকে হারিয়ে স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে উঠে গেল অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। মেসির দলকে ৩-২ গোলে ব্যবধানে হারায় সিমেওনের দল।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে সৌদি আরবের কিং আব্দুল্লাহ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে স্প্যানিশ সুপার কাপের দ্বিতীয় সেমি-ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। এই ম্যাচের শুরু থেকে প্রতিপক্ষের ওপর চাপ তৈরি করে বার্সেলোনা। ২২ মিনিটে পায় প্রথম সুযোগও। জর্দি আলবার সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করে মেসির নেওয়া শট ক্ষিপ্রতায় রুখে দেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে পিছিয়ে পড়ে বার্সা। ৪৬ মিনিটে অ্যাঙ্গেল কোরেয়ার পাস থেকে দলকে এগিয়ে দেন অ্যাটলেটিকোর মিডফিল্ডার কোকে।

গোল হজমের পর অবশ্য সমতায় ফিরতে বেশিক্ষণ সময় নেয়নি ভালভার্দের শিষ্যরা। ৫১তম মিনিটে সুয়ারেজের পাস থেকে কাতালানদের সমতায় ফেরান মেসি। এরপর ৫৯তম মিনিটে অ্যাথলেটিকোর জালে আরো একবার বল জড়িয়ে দিয়েছিলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। কিন্তু ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) সহায়তায় সেই গোল বাতিল করে দেন রেফারি।

তবে লিড নেওয়ার ক্ষেত্রে বার্সেলোনাকে বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি। ৬২তম মিনিটেই এগিয়ে যায় তারা। সুয়ারেজের ক্রস অ্যাটলেটিকো গোলরক্ষক ওবলাক ঠেকিয়ে দিলেও ফিরতি বলে নেওয়া গ্রিজম্যানের হেড ঠেকাতে পারেননি তিনি। প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠিয়ে কাতালানদের এগিয়ে দেন গ্রিজম্যান।

১২ মিনিট পর জেরার্ড পিকের গোল বাতিল না হলে জয়ের বন্দরে পৌঁছাতে পারতো বার্সেলোনা। ৭৪তম মিনিটে  আর্তুরো ভিদালের কাছ থেকে বল পেয়ে অ্যাথলেটিকোর জালে বল জড়িয়ে দিয়েছিলেন জেরার্ড পিকে। কিন্তু ভিএআরের সাহায্য নিয়ে অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল করে দেন রেফারি।

কিন্তু দুর্ভাগ্যের শিকার হতে বার্সেলোনাকে রুখতে পারেনি কেউ। ৮০ মিনিটে বল নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া অ্যাটলেটিকোর বদলি খেলোয়াড় ভিতোলোকে রুখতে গিয়ে ফাউল করে বসেন ক্যাম্প ন্যুয়ের ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক নেতো। ৮১ মিনিটে পেনাল্টি কিক থেকে অ্যাথলেটিকোকে সমতায় ফেরান আলভারো মোরাতা।

বার্সার সব হিসেবে আবারও উল্টে যায় ৮৬ মিনিটে। মোরাতার পাস থেকে বার্সার জালে বল জড়িয়ে দেন কোরেয়া। বাকি সময়ে আক্রমণের ধার বাড়ালেও আর সমতায় ফিরতে পারেনি ভালভার্দের দল। ফলে শ্বাসরুদ্ধকর জয়ে স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনাল নিশ্চিত করে অ্যাথেলেটিকো।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)