ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট নভেম্বর ২, ২০১৯

ঢাকা সোমবার, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ , হেমন্তকাল, ১১ রবিউস-সানি, ১৪৪১

রাজনীতি, লিড নিউজ ‘সড়কে শৃঙ্খলা ছাড়া উন্নয়ন জনস্বার্থে সুফল বয়ে আনবে না’

‘সড়কে শৃঙ্খলা ছাড়া উন্নয়ন জনস্বার্থে সুফল বয়ে আনবে না’

নিরাপদনিউজ : সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সড়ক ও পরিবহনে যথেষ্ট উন্নয়ন হয়েছে। তবে আমি মনে করি, এই উন্নয়ন জনগণকে সুফল দিতে পারবে না যদি সড়কে শৃঙ্খলা ফিরে না আসে। এখন সড়ক এবং পরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনাই আমাদের জন্য সবচেয়ে চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, এই চ্যালেঞ্জ যতো কঠিনই হোক তা মোকাবিলা করতে হবে।

কারণ আমি মনে করি, শৃঙ্খলা ছাড়া উন্নয়ন জনস্বার্থে তেমন কোন সুফল বয়ে আনবে না। গতকাল বিকেলে সাভারে নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের বাইপাইল এলাকায় সড়কের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পরিদর্শনে এসে তিনি এসব কথা বলেন। নিরাপদ সড়ক আইনের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্যই নিরাপদ সড়ক আইনটি সংসদে পাশ করাতে পেরেছি। এই আইনটি প্রণয়ন এবং বাস্তবায়নের পথে অনেক বাধা ছিলো।

কিন্তু প্রধানমন্ত্রী দৃঢ় প্রতিজ্ঞ থাকায় বিলম্বে হলেও এর বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে। এর ফলে দেশবাসীর সাথে সাথে আমরাও সন্তোষ্ট। তিনি আরো বলেন, রাস্তাঘাট ও সড়কে প্রধানন্ত্রীর নির্দেশে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে এতো অবকাঠামোগত উন্নয়ন অতীতে কখনও হয়নি। সড়কের নেটওয়ার্ক এখন সারা বাংলাদেশে এমনকি সুদূর পাহাড়েও বিস্তৃত হয়েছে। অনেক ব্রিজ, কালভার্ট ও রাস্তা নতুন করে নির্মিত হয়েছে এবং অনেক রাস্তা চার লেনে উন্নীত হয়েছে।

বাংলাদেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ে ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা নির্মিত হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা এবং যানজট কমানোর কথা মাথায় রেখেই আমরা রোড সেফটি প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছি। বিশ্ব ব্যাংকও আমাদের এই প্রোগ্রামে অর্থায়ন করতে যাচ্ছে। বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ঢাকায় এসে আমার সাথে এ বিষয়ে একটি সেমিনার করে গেছেন এবং আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছেন। আমরা আশা করি, বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় আগামী কয়েক বছরে সারা বাংলাদেশে রোড সেফটি প্রোগ্রামের মাধ্যমে দুর্ঘটনা এবং যানজট নিরসনে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করতে পারবো।

তিনি আরো বলেন, আন্দোলনের নামে বিএনপি’র হাঁক-ডাক আষাঢ়ের তর্জন গর্জনের মতোই এর বাস্তব কোন কার্যকারিতা নাই। তারা নেকাকর্মী ও অনুসারীদের খুশি রাখার জন্য এবং চাঙ্গা রাখার জন্যই বিভিন্ন সময়ে বলার জন্যই এমন কথা বলে। এসময় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রীর সাথে মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)