আপডেট ৭ মিনিট ৫২ সেকেন্ড

ঢাকা বুধবার, ৭ ফাল্গুন, ১৪২৬ , বসন্তকাল, ২৪ জমাদিউস-সানি, ১৪৪১

লিড নিউজ, সড়ক সংবাদ ‘সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ে সৃজনশীল ভিডিও উদ্ভাবনের জন্য পুরস্কার প্রদান’

‘সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ে সৃজনশীল ভিডিও উদ্ভাবনের জন্য পুরস্কার প্রদান’

নিরাপদ নিউজ: সড়ক নিরাপত্তা এখন আর মানবিক সমস্য নয়, এটা এখন অর্থনৈতিক সমস্যা বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক ও জনপথ বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম।আজ মঙ্গলবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিসে সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ে সৃজনশীল ভিডিও উদ্ভাবনের জন্য পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে ৫টি উদ্ভাবনী টিমকে পরুস্কৃত করা হয়। বিশ্বব্যাংক ও জাতিসংঘের যৌথ উদ্যোগে এ পুরস্কার দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে নজরুল ইসলাম বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা নিরূপণে সৃজনশীল আইডিয়াগুলো কাজে লাগিয়ে দুঘর্টনা কমানো সম্ভব। বিশ্বব্যাংক ও জাতিসংঘের এ উদ্যোগ তরূণদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখবে।

এসময় বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট হার্টি উইং স্কেফার বলেন, সড়ক নিরাপত্তার সঙ্গে ব্যক্তিগত নিরাপত্তার পাশাপাশি দেশের অর্থনীতি ও উন্নয়নের সম্পর্ক রয়েছে। সড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিত করে বাংলাদেশ অন্যান্য দেশের মতোই দারিদ্র্য আরও কমিয়ে আনতে পারে। বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি টেম্পন বলেন, বাংলাদেশে ৫ থেকে ১৪ বছর বয়সী শিশু কিশোরদের মৃত্যুর অন্যতম বড় কারণ হয়ে দাড়িয়েছে সড়ক দুর্ঘটনা। এ কারণে সড়ক নিরাত্তার বিষয়টি বর্তমানে উন্নয়নে বড় আল্যেচ্য বিষয়ে পরিণত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা বর্তমানে বৈশ্বিক সমস্যায় পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশে দুর্ঘটনার জন্য অনেক কিছু দায়ি তবে আগে শুধু সড়কের দুর্দশাকে বেশী দায়ী করা হতো। সড়ক দুর্ঘটনারোধে সব থেকে বেশী প্রয়োজন আমাদের সকলের সচেতনতা। সচেতনতার মাধ্যমে সড়কের দুর্ঘটনার সংখ্যা কমিয়ে আনা সম্ভব।এই সচেতনতা চালক ,মালিক, যাত্রী,পথচারী সকলের মাঝে সৃষ্টি করতে হবে। নিসচার চেয়ারম্যান ও চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, অশিক্ষিত ও অদক্ষ চালক, ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন, দুর্বল ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, অসচেতনতা, অনিয়ন্ত্রিত গতি, রাস্তা নির্মাণে ত্রুটি, রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাব, আইনের যথাযথ প্রয়োগ না করা দুর্ঘটনার মূল কারণ। সেই সাথে লাইসেন্স প্রদানে দুর্নীতির কারণে প্রানহানী কমানোর পথে বড় বাধা হয়ে আছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন। ইলিয়াস কাঞ্চন আরো বলেন, পথচারীদের ট্রাফিক আইন সম্পর্কিত ধারণা না থাকা, রাস্তা চলাচল ও পারাপারে মোবাইল ফোন ব্যবহার, জেব্রা ক্রসিং,আন্ডারপাস,ফুটভার ব্রীজ ব্যবহার না করে যত্রতত্র রাস্তা পারাপারের ফলে সড়ক দুর্ঘটনার সম্মুখীন হচ্ছে। এসব বিষয়ে পথচারীদের বেশী সচেতন হতে হবে।

বিশ্বব্যাংক ও জাতিসংঘের উদ্যোগে নিরাপদ সড়ক নিয়ে ভিডিও প্রদর্শনের এই প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার লাভ করেছে কাজী মোহাম্মদ মারুফ আবিদের নেতৃত্বে বুয়েটের টিম, দ্বিতীয় পুরস্কার লাভ করে ফাহমিদুল আলমের নেতৃত্বে পরিচালিত টিম, তৃতীয় পুরস্কার লাভ করেন মো. তাওফিকুর জামান প্রান্ত। এছাড়া প্রথম রানার আপ হয়েছে প্রত্যয় রায়ের নেতৃত্বাধীন টিম এবং দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছেন নাওয়েদ কবির এবং ফাহাদ ওয়াফিক।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)