ব্রেকিং নিউজ
বাংলা

আপডেট ৫০ মিনিট ৩২ সেকেন্ড

ঢাকা সোমবার, ১৬ চৈত্র, ১৪২৬ , বসন্তকাল, ৫ শাবান, ১৪৪১

টিভি প্রোগ্রাম ২৬ মার্চের নাটক ‘কালের আবর্তে’

২৬ মার্চের নাটক ‘কালের আবর্তে’

নিরাপদ নিউজ: সাল ১৯৭১। উত্তাল মার্চ। কল্যানী (নুসরাত ইমরোজ তিশা) ইসলামপুরে তার পৈতৃক ভিটায় কয়েকটি মেয়ে নিয়ে বসবাস করে। যেখানে তার অন্যতম নির্ভরযোগ্য একটি মেয়ে হচ্ছে হেনা (নুসরাত জান্নাত রুহী)। হেনা আর কল্যানীর সম্পর্ক বোনের মতোই। কল্যানীর বাড়িটি মূলত একটি পতিতালয়। কল্যানীকে আবার ভালোবাসে বিরিয়ানি দোকানদার আলতাফ (সমাপ্তি মাশুক)। কিন্তু কল্যানীদের এমন জীবন যেখানে ভালোবাসা কিংবা সংসার থাকে না। এলাকার খালেক (শতাব্দী ওয়াদুদ) আবার কল্যানীদের পাড়ায় নিয়মিত আসে। একদিন কল্যানীর সাথে সামান্য একটি বিষয়ে বড় ধরনের বাকবিতন্ডতা হয়ে যায়। হেনা আর কল্যানী খালেক ও তার দলবলকে অপমান করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। খালেক বিষয়টি মাথায় রেখে দেয়। ২৫ মার্চ রাতে ঢাকায় হানাদার বাহিনীর আক্রমণ শুরু হয়। খালেকদের যেনো সুযোগ আসে। এলাকায় হিন্দুসহ অসহায় মানুষদের বাড়ি দখল করতে থাকে তারা। কল্যানীর বাড়িটি দখলে নিতে আসে খালেক। আলতাফ চলে যায় মুক্তিযুদ্ধে। হেনা আর কল্যানীরা তখন অসহায়। চলতে থাকে তাদের উপর খালেকের নির্মম নির্যাতন। এক সময় সেই বন্দিদশা থেকে কল্যানী আর হেনা বাঙালি একটি ছেলের সহায়তায় পালিয়ে যায়। দেশ স্বাধীন হয়। পার হয়ে যায় অনেকগুলো বছর। খালেকের নাম হয়ে যায় খালেকুজ্জামান। সে এখন বিশিষ্ট সমাজসেবক ও মুক্তিযোদ্ধা। স্বাধীনতার ৪৯ বছর পর কল্যানী আর হেনার সাথে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানে খালেকের দেখা হয়। সেই অনুষ্ঠানে খালেক প্রধান অতিথি। কল্যানী ও হেনা সহ আরো কিছু বীরঙ্গনাকে অনুষ্ঠানে সম্মাননা দেয়া হবে। কিন্তু কল্যানী আর হেনারা কি খালেকের হাত থেকে পুরস্কার নিবে? তখুনি ঘটে অন্যরকম এক ঘটনা। গল্প মোড় নেয় ভিন্নদিকে। এমনি গল্পে সম্প্রতি নির্মিত হয়েছে ২৬ মার্চের বিশেষ নাটক ‘কালের আবর্তে’। মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ের একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে গল্পটি লিখেছেন লেখক হেলেন বদরুদ্দীন। সৈয়দ ইকবালের চিত্রনাট্য ও আবু হায়াত মাহমুদের পরিচালনায় নাটকটিতে কল্যানী চরিত্রে নুসরাত ইমরোজ তিশা, খালেকের চরিত্রে শতাব্দী ওয়াদুদ, হেনার চরিত্রে নুসরাত জান্নাত রুহী ও আলতাফের চরিত্রে সমাপ্তি মাশুক অভিনয় করেছেন। আরো অভিনয় করেছেন রিগ্যান, হাঁসি প্রমুখ। নাটকে নুসরাত ইমরোজ তিশা, শতাব্দী ওয়াদুদ ও নুসরাত জান্নাত রুহীকে দুই ধরনের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় তারা এক ধরনের গেটআপ আর এই সময়ে এসে আরেক ধরনের গেটাপে তাদের পর্দায় দেখা যাবে। ফ্যাক্টর থ্রি সলিউশনস ও ত্রিধারা মিডিয়া প্রযোজিত নাটকটি ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে বাংলাভিশনে প্রচার হবে। পরিচালক আবু হায়াত মাহমুদ জানান, ‘নাটকটিতে দুটি সময়ের গল্প দেখানো হয়েছে। কাজটি করতে গিয়ে অনেক কষ্ট হয়েছে শিল্পী-কলাকুশলীসহ পুরো ইউনিটের। আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ যে, সবাই আমাকে বেশ সহযোগিতা করেছেন। এই কাজটির মধ্যে একপ্রকারের দায়বদ্ধতা আছে বলে আমার বিশ্বাস। নাটকটি দেখার পর সকলের মধ্যে অন্য এক অনুভূতি কাজ করবে। আমরা সচারচর মুক্তিযুদ্ধের যে ধরনের গল্প দেখতে পাই তা থেকে এই নাটকটি অনেক আলাদা। একটা মনস্তাত্বিক যুদ্ধের নাটক ‘কালের আবর্তে’।

পাঠকের মন্তব্য: (পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য কর্তৃপক্ষ কোন ক্রমে দায়ী নয়)